kalerkantho

বুধবার । ৩০ নভেম্বর ২০২২ । ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ ।  ৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

ইডেন কলেজে সংঘর্ষের পর ছাত্রলীগের কার্যক্রম স্থগিত

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ০৩:৫৩ | পড়া যাবে ৫ মিনিটে



ইডেন কলেজে সংঘর্ষের পর ছাত্রলীগের কার্যক্রম স্থগিত

রাজধানীর ইডেন কলেজে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে মারামারির পর আহতদের হাসপাতালে নেওয়া হয়। গতকাল বিকেলে। ছবি : কালের কণ্ঠ

রাজধানীর ইডেন কলেজ শাখা ছাত্রলীগের দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে সভাপতি তামান্না জেসমিন রিভাসহ ১০ নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। গতকাল রবিবার বিকেলে এই সংঘর্ষ হয়। পরে সভাপতি-সম্পাদককে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করে বিরোধী পক্ষ। এর আগে সিট বাণিজ্য, রুম দখল এবং শিক্ষার্থী নির্যাতনকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের মধ্যে দিনভর উত্তেজনা চলে।

বিজ্ঞাপন

এদিকে ইডেন কলেজে ছাত্রলীগের সাংগঠনিক কার্যক্রম স্থগিত করা হয়েছে বলে গতকাল গভীর রাতে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ। সভাপতি আল-নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।   

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত ইডেন কলেজে ছাত্রলীগের সাংগঠনিক কার্যক্রম স্থগিত করা হলো। একই সঙ্গে শৃঙ্খলা পরিপন্থী কার্যকলাপে জড়িত থাকার অভিযোগ প্রাথমিকভাবে প্রমাণের ভিত্তিতে ইডেন ছাত্রলীগের সহসভাপতি সোনালি আক্তার, সুস্মিতা বাড়ৈ, জেবুন্নাহার শিলা, কল্পনা বেগম, জান্নাতুল ফেরদৌস, আফরোজা রশ্মি, মারজানা উর্মি, সানজিদা পারভীন চৌধুরী, এস এম মিলি, সাদিয়া জাহান সাথী; যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফাতেমা খান বিন্তি ও সাংগঠনিক সম্পাদক সামিয়া আক্তার বৈশাখী এবং কর্মী রাফিয়া নীলা, নোশিন শার্মিলী, জান্নাতুল লিমা ও সূচনা আক্তারকে ছাত্রলীগ থেকে স্থায়ী বহিষ্কার করা হলো। সেই সঙ্গে অধিকতর তদন্তে এই বিশৃঙ্খলায় যাঁদের জড়িত থাকার প্রমাণ মিলবে, তাঁদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।    

সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, ঘটনার সূত্রপাত হয় গত শনিবার রাতে কলেজের শহীদ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হল প্রাঙ্গণ থেকে। সেখানে ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি তামান্না জেসমিন রিভা এবং সাধারণ সম্পাদক রাজিয়া সুলতানার চাঁদাবাজি, সিট বাণিজ্যসহ বিভিন্ন বিষয়ে গণমাধ্যমে কথা বলায় সহসভাপতি জান্নাতুল ফেরদৌসকে মারধর করা হয়। এ ঘটনায় দুপুরে সংবাদ সম্মেলন করে সভাপতি ও সম্পাদকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নিলে গণপদত্যাগের ঘোষণা দেন জান্নাতুলসহ ওই কমিটির ২৫ নেত্রী।

এ ঘটনায় গতকাল বিকেল ৫টায় পাল্টা সংবাদ সম্মেলন ডাকেন সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক। সংবাদ সম্মেলনে সভাপতি রিভা তাঁদের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগের সুষ্ঠু তদন্ত করার কথা বলেন এবং এসব অভিযোগকে ষড়যন্ত্র বলে দাবি করেন। সংবাদ সম্মেলনের এক পর্যায়ে ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের একাংশ (বিরোধী পক্ষ) রিভাসহ তাঁর অনুসারীদের ওপর হামলা চালায়। এ সময় সভাপতিসহ তাঁর অনুসারী কলেজ মিলনায়তন ভবনের ভেতরে ঢুুকে যান। কলেজ প্রাঙ্গণে ছাত্রলীগের অন্য নেত্রীরা সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের লাগানো পোস্টার-ব্যানার ছিঁড়ে ফেলেন। এক পর্যায়ে কলেজের মিলনায়তন থেকে সভাপতি রিভা বের হলে সাংবাদিকরা তাঁর সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করেন। এ সময় বিরোধীপক্ষের নেত্রীরা তাঁকে টেনেহিঁচড়ে কলেজ থেকে বের করে দেওয়ার চেষ্টা করেন। রিভার অনুসারীরা তাঁকে নিয়ে কলেজের ভেতরে প্রশাসনিক ভবনের দিকে নিয়ে যেতে চাইলে তাঁদের বাধা দেন বিরোধীপক্ষের নেতাকর্মীরা। দুই পক্ষের মধ্যে পাল্টাপাল্টি হামলা ও ধস্তাধস্তির ঘটনায় রিভাসহ ১০ জন আহত হন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, এ সময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন পুলিশ ও কলেজের শিক্ষকরা। রিভাকে কলেজের প্রশাসনিক ভবনের দিকে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করা হলেও বিরোধী পক্ষের নেতাকর্মীরা ভেতরে গেট বন্ধ করে দেন। সেখানে দুই পক্ষের মধ্যে বাগবিতণ্ডা হয়। পরে কলেজ প্রশাসন রিভাকে অ্যাম্বুল্যান্সে তোলার চেষ্টা করে। বিরোধী পক্ষের বাধায় তা-ও সম্ভব হয়নি। এরপর সন্ধ্যা ৬টার পরে পুলিশ পাহারায় এবং শিক্ষকদের উপস্থিতিতে রিভা ও তাঁর অনুসারীরা কলেজের ২ নম্বর গেট দিয়ে বের হয়ে অ্যাম্বুল্যান্সে ওঠেন। আর রাত ৮টার পরে পুলিশ পাহারায় কলেজ প্রাঙ্গণ থেকে বের করে নিয়ে যাওয়া হয় সাধারণ সম্পাদক রাজিয়াকে।

আহত দুজন ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে

সংঘর্ষে আহত দুজনকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। তাঁরা হলেন ইডেন মহিলা কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি তামান্না জেসমিন রিভা এবং যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ঋতু আক্তার (২৬)।

ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের ১ নম্বর সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুন নাহার জ্যোতি হাসপাতালে সাংবাদিকদের বলেন, ‘সংবাদ সম্মেলন করার সময় সহসভাপতি গ্রুপের অনেকে আমাদের ওপর হামলা চালায়। এতে ছাত্রলীগের সভাপতি ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আহত হয়েছেন। ’

সভাপতি-সম্পাদকবিরোধী পক্ষের সংবাদ সম্মেলন

এর আগে গতকাল দুপুর সাড়ে ১২টায় কলেজের শহীদ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব ছাত্রীনিবাস প্রাঙ্গণে সংবাদ সম্মেলন করেন সহসভাপতি জান্নাতুল ফেরদৌসসহ তাঁর অনুসারীরা। জান্নাতুলকে মারধরের ঘটনায় সভাপতি ও সম্পাদকের বিষয়ে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা না হলে গণপদত্যাগের ঘোষণা দেন ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের ২৫ নেত্রী। এ সময় তাঁরা এই দাবি মেনে নিতে ছাত্রলীগ সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় এবং সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্যকে ২৪ ঘণ্টা সময় বেঁধে দেন।

সংবাদ সম্মেলনে তাঁরা ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের বিষয়ে এবং শনিবার রাতে হওয়া ঘটনার তদন্তের জন্য কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের গঠিত তদন্ত কমিটির সদস্য তিলোত্তমা শিকদার ও বেনজির হোসেন নিশিকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করেন।

সংঘর্ষের পর রাত ৯টার দিকে আবারও সংবাদ সম্মেলন করে ছাত্রলীগের এই পক্ষ। এ সময় তারা সভাপতি রিভা ও সম্পাদক রাজিয়া সুলতানাকে কলেজে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করে। আনন্দ মিছিলও করে তারা। পাশাপাশি সভাপতি-সম্পাদকের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নিতে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের প্রতি অনুরোধ জানায়।



সাতদিনের সেরা