kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১ ডিসেম্বর ২০২২ । ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ ।  ৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

সকল বিদ্যুৎ বিতরণ কম্পানির একটি কল সেন্টার করার নির্দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ২২:৩৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সকল বিদ্যুৎ বিতরণ কম্পানির একটি কল সেন্টার করার নির্দেশ

ছবি- বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।

গ্রাহক সেবা নিশ্চিত করতে সকল বিদ্যুৎ বিতরণ কম্পানির জন্য একটি কল সেন্টার করার নির্দেশ দিয়েছেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ। তিনি বলেন, ‘প্রত্যেকের জন্য পৃথক পৃথক নম্বর থাকলে সেটি মনে রাখা কঠিন। এজন্য সব বিতরণ কম্পানির জন্য একটি পৃথক নম্বর থাকলে সাধারণ মানুষের জন্য সুবিধা হবে। ’

আজ রবিবার রাজধানীর বিদ্যুৎ ভবনে অনুষ্ঠিত পিডিবির কল সেন্টার স্থাপন চুক্তি সই অনুষ্ঠানে প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, 'যত দ্রুত সম্ভব সেবা মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে হবে। এখন প্রত্যেকটা বিতরণ কম্পানি যদি আলাদা আলাদা কল সেন্টার করে তাহলে মানুষ এতগুলো নম্বর মনে রাখতে পারবে না। আবার এমন একটি নম্বর হতে হবে যেটি সহজে সবাই মনে রাখতে পারে। এজন্য সবার জন্য যদি একটি কল সেন্টার থাকে তাহলে ভালো হয়। '

গ্রাহক সেবার মান বাড়াতে এবার পিডিবি খুলতে যাচ্ছে কল সেন্টার। এজন্য এই বিষয়ে আজ বিদ্যুৎ ভবনের মুক্তি হলে একটি চুক্তি স্বাক্ষর হয়। চুক্তিতে পিডিবির পক্ষে পরিচালক (ক্রয় পরিদপ্তর) রুবিনা হক এবং কল সেন্টার স্থাপনকারী কম্পানি ডিজিকন টেকনোলজিসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ওয়াহিদুর রহমান শরিফ সই করেন।

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বিদ্যুৎ সচিব মো. হাবিবুর রহমান, পিডিবির চেয়ারম্যান প্রকৌশলী মো. মাহবুবুর রহমান ও  বক্তব্য রাখেন। এসময় বিদ্যুৎ খাতের বিভিন্ন সংস্থার প্রধান, বিদ্যুত্ কর্মকর্তা, পিডিবির সদস্যসহ সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, কল সেন্টারে মোট ২০৬টি স্মার্ট ফোন আছে। আগামী বছরের ১ জানুয়ারি থেকে পূর্ণাঙ্গভাবে এই সেন্টার চালু হবে এবং সার্বক্ষণিকভাবে দিনরাত ২৪ ঘণ্টা পরিচালিত হবে।

পিডিবির যে কোনো গ্রাহক ১৬১৩১ নম্বরে কল করে মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে অভিযোগ জানাতে পারবেন এবং তা স্বয়ংক্রিয়ভাবে সংশ্লিষ্ট বিতরণ অঞ্চলে পৌঁছে যাবে। সাধারণত অন্য কল সেন্টারগুলোতে যেভাবে সেবা দেওয়া হয় এখানেও সেই একই প্রক্রিয়া অনুসরণ করা হবে।



সাতদিনের সেরা