kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০২২ । ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

ইডেন কলেজ ছাত্রলীগ

সাক্ষাৎকার দেওয়ায় ছাত্রলীগ নেত্রীকে মারধরের অভিযোগ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ১২:২৭ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



সাক্ষাৎকার দেওয়ায় ছাত্রলীগ নেত্রীকে মারধরের অভিযোগ

ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি তামান্না জেসমিন রিভা এবং সাধারণ সম্পাদক রাজিয়া সুলতানার চাঁদাবাজী, সিট বাণিজ্যসহ বিভিন্ন বিষয়ে গণমাধ্যমে কথা বলায় নিজ অনুসারীদের দিয়ে এক নেত্রীকে মারধর করার অভিযোগ উঠেছে রিভা এবং রাজিয়ার বিরুদ্ধে।

গতকাল শনিবার রাতে হওয়া এই ঘটনায় ক্যাম্পাসে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে এবং গভীর রাতেই রিভা রাজিয়ার বিরোধী পক্ষের অনুসারী শিক্ষার্থীরা কলেজ প্রাঙ্গণে জড়ো হয়ে তারা রিভা এবং রাজিয়ার শাস্তি দাবি করেন। এসময় তারা রাজিয়া এবং রিভাকে হল থেকে বের করে দেওয়ারও দাবি জানান। যাকে মারধর করার অভিযোগ উঠেছে তিনি ইডেন কলেজ ছাত্রলীগেরই সহ সভাপতি জান্নাতুল ফেরদৌস।

বিজ্ঞাপন

জান্নাতুল ফেরদৌস বলেন, রিভা আপু আর রাজিয়া আপুর সাথে আমার কোনভাবে মিলতেছিল না। কিছু পলিটিকাল রুম নিয়ে ঝামেলার শুরু। এসব ঝামেলার কথা আমরা জয় (ছাত্রলীগ সভাপতি)  ভাই আর লেখক (ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক) দাদাকে বলতে পারিনা। কারণ তারা ফোনই রিসিভ করে না। তাই আমরা কয়েক জায়গায় জানিয়েছিলাম।

তিনি বলেন, কিছুদিন আগে আমি একটা লাইভ দিয়েছিলাম। এরপর গতকাল রাজিয়ার মেয়েরা আমার রুমে ঝামেলা করে। তখন আমি হলের বাইরে ছিলাম। পরে আমার রুমের মেয়েরা আমাকে ফোন দেয়। আমি হলে এসে কয়েকজন মেয়ের সাথে কথা বলি। হলে আসা মাত্র আমাকে ১০-১৫জন মিলে মারধর করে। তারা সবাই রিভা আর রাজিয়া আপুর অনুসারী। তারা আমার ফোন এবং আমার সাথে থাকা দুই ছোট বোনকে মারধর করে তাদের ফোনও কেড়ে নিয়ে নেয়।  

ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের সামিয়া আক্তার বৈশাখি নামে এক সাংগঠনিক সম্পাদক অভিযোগ তুলেন, সাধারণ মেয়েরা সভাপতি সাধারণ সম্পাদকের কাছে সেইফটি ফিল করে না। কারণ তারা ব্যবসা করে। লিগ্যাল রুমের মেয়েরা যখন অ্যাটেন্ডেন্স খাতায় সাইন করতে আসে তখন সভাপতির অনুসারী পোস্টেড মেয়েরা তাদের ছবি তুলে রাখে। কোন মেয়েটা সুন্দর সেটা তারা সিলেক্ট করে রাখে। পরে তারা সেসব মেয়েদেরকে রুমে নিয়ে যায়। রুমে নিয়ে গিয়ে হুমকি ধামকি দিয়ে খারাপ উদ্দেশ্যে বিভিন্ন খারাপ কাজের প্রস্তাব দেয়।

এদিকে এঘটনায় ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি তামান্না জেসমিন রিভা এবং সাধারণ সম্পাদক রাজিয়া সুলতানা এসব অভিযোগকে মিথ্যা ও ষড়যন্ত্র বলে তার অপসারণের দাবি জানান।  

এদিকে এ ঘটনার তদন্তের জন্য রবিবার সকালে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ দুই সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। তদন্ত কমিটির সদস্যরা হলেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি তিলোত্তমা শিকদার ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বেনজির হোসেন নিশি। তদন্ত কমিটিকে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সুপারিশসহ তদন্ত প্রতিবেদন কেন্দ্রীয় দপ্তর সেলে জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।



সাতদিনের সেরা