kalerkantho

বুধবার । ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ । ১৩ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

হাইকোর্ট মাজারে শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের তবারক বিতরণ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৫ আগস্ট, ২০২২ ১৬:২৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



হাইকোর্ট মাজারে শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের তবারক বিতরণ

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে যেদিন হত্যা করা হয় সেদিন রাস্তায় কেউ নামে নাই, কোনো দিকে কোনো শব্দ ছিলো না। কেউ একটা প্রতিবাদও করে নাই। তখন আমি লালবাগ থাকতাম। এসব কথা বলছিলেন হাশেম মিয়া।

বিজ্ঞাপন

ষাটর্ধ্ব তিনি বর্তমানে রিকশা চালান।

হাইকোর্ট মাজার প্রাঙ্গনে জাতীয় শোক দিসব উপলক্ষে শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র লিমিটেড দুস্থ ও পথ শিশুরে মাঝে তবারক বিতরন করে। সেখানেই কালের কণ্ঠের সঙ্গে কথা বলেন হাশেম মিয়া।

তবারক বিতরন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র লিমিটেডের পরিচালক রফিকুল ইসলাম জাজ, পরিচালক আলিমুজ্জামান আলম ও পরিচালক হাবিবুর রহমান মান্নু। এছাড়া আরো উপস্থিত ছিলেন অন্যান্য পরিচালকসহ স্থায়ী সদস্যরা।

এসময় ষাটর্ধ্ব হাশেম মিয়া বলেন, ‘হাইকোর্ট এলাকার আশপাশেই তিনি রিকশা চালান। এই তবারক দিয়েই তিনি দুপুরের খাবার শেষ করবেন। শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের সবার জন্য দোয়া করেন তিনি। ’

জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পরিবারে জন্য দোয়া করে তিনি বলেন, ‘সেদিন পুরা ঢাকা এক ম স্তব্দ হয়ে গেছিলো। কেউ বাইরে বের হয় নাই। রাস্তায় ছিলো আর্মির লোকজন। প্রতিবাদ তো দুরের কথা রাস্তায় নামার কথাও কেউ চিন্তা করে নাই। যারা নামছে তারেকেই ধরে নিয়ে গেছে আর্মিরা। ’

তবারক বিতরনের পর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহামানসহ ১৯৭৫ সালের ১৫ আগষ্ট নিহত সবার জন্য দোয়া করা হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানার দীর্ঘায়ূ কামনা করা হয় মোনাজাতে।



সাতদিনের সেরা