kalerkantho

শনিবার । ১ অক্টোবর ২০২২ । ১৬ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

বঙ্গবন্ধু হত্যার পেছনে কারা, উদঘাটন হওয়া উচিত : প্রধান বিচারপতি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১১ আগস্ট, ২০২২ ২১:১১ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বঙ্গবন্ধু হত্যার পেছনে কারা, উদঘাটন হওয়া উচিত : প্রধান বিচারপতি

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হত্যাকারীদের বিচার হলেও এ হত্যাকাণ্ডের ষড়যন্ত্রকারী ও কুশিলব কারা, সেটি উদঘাটনের তাগিদ দিয়েছেন প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী। সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি এ এন এম বসির উল্লাহ’র লেখা বইয়ের প্রকাশনা অনুষ্ঠানে একথা বলেন প্রধান বিচারপতি।

বিচারপতি এ এন এম বসির উল্লাহর লেখা ‘বিচারক জীবনের কথা’ বইটির এ প্রকাশনা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন আপিল বিভাগের বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম। অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন মো. নুরুজ্জামান, বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি বোরহান উদ্দীন।

বিজ্ঞাপন

অনুষ্ঠানে মূখ্য আলোচক ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিবিদ্যালয়ের ইতিহাসের শিক্ষক, গবেষক সৈয়দ আনোয়ার হোসেন। সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি, কর্মকর্তা ও আইনজীবীরা উপস্তিত ছিলেন অনুষ্ঠানে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী বলেন, ‘বাঙালিরা কি আসলেই মানুষ হয়েছে? পঁচাত্তরের ঘটনায় কি মনে হয় আমরা বাঙালিরা মানুষ হয়েছি? কারণ বঙ্গবন্ধুকে যারা গুলি করেছে তারা বাঙালি। বঙ্গবন্ধুকে সামনে থেকে যারা গুলি করেছেন তারা স্বীকার করেছেন যে, আমরা খুন করেছি। প্রশ্ন হচ্ছে, শুধু কি তারাই এর সাথে জড়িত? নাকি অনেক বড় চক্র এর পেছনে কাজ করেছে, যেটি এখনও উদঘাটন হয়নি। কিন্তু এটি উদঘাটন হওয়া উচিত বঙ্গবন্ধু হত্যার পেছনে কলকাঠি কারা নেড়েছেন। ’

বঙ্গবন্ধুকে স্মরণ করে তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু আমার কাছে বাংলার মাটি, বাংলার বাতাস, বাঙালি জাতিয়তাবাদ, বাংলা ভাষা। বাংলাদেশের কথা বলতে গেলে, বাংলা ভাষার কথা বলতে গলে, বাংলার মানুষের কথা বলতে গেলে বঙ্গবন্ধুর কথা বলতে হবে। ’

বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের ষড়যন্ত্রকারী কুশিলবদের খুঁজে বের করতে কমিশন গঠনের তাগিদ দেন আপিল বিভাগের বিচারপতি মো. নূরুজ্জামান ও বিচারপতি ওবায়দুল হাসান।

কমিশন গঠনের বিষয়ে সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বিচারপতি মো. নূরুজ্জামান বলেন, ‘কমিশন গঠন হলে এ হত্যাকাণ্ডের প্রকৃত তথ্য উপাত্ত বের হয়ে আসবে এবং ইতিহাসের অংশ হয়ে থাকবে। ’

বিচারপতি ওবায়দুল হাসান বলেন, ‘একটি কমিশন হওয়া উচিত। কারা এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত ছিল, দেশি-বিদেশি কারা সম্পৃক্ত ছিল। একটি কমিশনের মাধ্যমে এটি উদঘাটিত না হলে আগামী প্রজন্ম জানতে পারবে না যে কী ঘটনাটি সেদিন ঘটেছিল। শারীরিকভাবে বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেছে কয়েকজন সামরিক বাহিনীর লোক। তাদের বিচার হয়েছে, ফাঁসি হয়েছে। এটাই কী যথেষ্ট? ইতিহাসকে সঠিক পথে আনার জন্য আমার মনে হয়, আমি যে প্রস্তাব রেখে গেলাম সরকার এটি বিবেচনা করবে। ’

সপরিবার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার নেপথ্যের কুশীলবদের চিহ্নিত করতে একটি তদন্ত কমিশন গঠনের কথা বিভিন্ন সময় বলে আসছেন আওয়ামী লীগের মন্ত্রী-এমপিরা ও নেতারা। কমিশন গঠনের নিয়ে কথা বলেছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। এ নিয়ে হাইকোর্টে একটি রিট আবেদনও করা হয়েছে, যদিও সে রিটের শুনানি এখন পর্য ন্ত হয়নি।  



সাতদিনের সেরা