kalerkantho

রবিবার । ১৪ আগস্ট ২০২২ । ৩০ শ্রাবণ ১৪২৯ । ১৫ মহররম ১৪৪৪

প্রেস ক্লাবের সামনে গায়ে আগুন দেওয়া আনিস মারা গেছেন

ঢামেক প্রতিনিধি   

৫ জুলাই, ২০২২ ০৮:৪৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



প্রেস ক্লাবের সামনে গায়ে আগুন দেওয়া আনিস মারা গেছেন

জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে গায়ে আগুন দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা কাজী আনিস (৫০) মারা গেছেন। আজ মঙ্গলবার (৫ জুলাই) সকাল ৬টা ১০ মিনিটের দিকে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু বরণ করেন। বার্ণ ইনস্টিটিউটের সমন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন কালের কণ্ঠকে মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ।

কাজী আনিস কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার পান্টি গ্রামের বাসিন্দা বলে জানা গেছে।

বিজ্ঞাপন

পেশায় ঠিকাদারি ব্যবসা করেন আনিস। তিনি কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ছিলেন। ১৯৯৩ সালে তিনি জেলা ছাত্রলীগে সভাপতির দায়িত্ব পান।  

কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি খন্দকার ইকবাল মাহমুদ বলেন, ‌‘কাজী আনিস আমার পর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি হয়। শুনেছি সে ঢাকায় প্রেস ক্লাবের সামনে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছে। ’

গতকাল সোমবার (৪ জুলাই) বিকেল ৫টার দিকে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে পাওনা টাকা না পাওয়ার হতাশায় গায়ে আগুন দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন আনিস। পরে তাকে উদ্ধারকরে পুলিশের সহযোগিতায় দ্রুত শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে নেওয়া হয়।   

আনিস সেই সময় জানান, হেনোলাক্স কম্পানির কাছে তিনি এক কোটি ২৬ লাখ টাকা পাবেন। কম্পানি পাওনা টাকা দিচ্ছে না। এ নিয়ে এর আগে মানববন্ধন করেছেন তিনি, কিন্তু কোনো লাভ হয়নি। তাই আজ গায়ে আগুন দিয়েছেন।

ওই সময় হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ডপ্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের আবাসিক চিকিৎসক এস এম আইউব হোসেন জানান, দগ্ধ কাজী আনিসের শরীরে ৯০ শতাংশ পুড়ে গেছে। তার অবস্থা খুবই আশঙ্কাজনক।

দুই মাস আগে একটি কম্পানির কাছে এক কোটি ২৬ লাখ টাকা পাওনার দাবি নিয়ে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধন করেছিলেন কাজী আনিস।

 



সাতদিনের সেরা