kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১১ আগস্ট ২০২২ । ২৭ শ্রাবণ ১৪২৯ । ১২ মহররম ১৪৪৪

নর্থ সাউথের দুর্নীতির মামলার আসামি হিলালী নিখোঁজ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৩ জুলাই, ২০২২ ০৮:৪৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নর্থ সাউথের দুর্নীতির মামলার আসামি হিলালী নিখোঁজ

রফিকুল ইসলাম হিলালীর ফেসবুক থেকে নেওয়া।

নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের জমি কেনার নামে প্রায় ৩০৪ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশনের দায়ের করা মামলার আসামি আমিন মোহাম্মদ হিলালীর খোঁজ মিলছে না। তিনি একজন আবাসন ব্যবসায়ী। স্বজনরা বলছেন, শুক্রবার রাতে উত্তরার ১১ নম্বর সেক্টর থেকে আমিন হিলালী নিখোঁজ হয়েছেন। এ ঘটনায় উত্তরা পশ্চিম থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

পুলিশ কর্মকর্তারা বলেন, হিলালীর অবস্থান জানার জন্য তদন্ত শুরু হয়েছে।

গতকাল শনিবার নিখোঁজ আমিন হিলালীর ভাই রফিকুল ইসলাম হিলালী বলেন, রাত ৮টায় উত্তরার ১১ নম্বর সেক্টরে তাঁর বাসা থেকে ১৩ নম্বর সেক্টরে নিজের বাসায় যেতে বের হন আমিন হিলালী। বের হয়েই তিনি তাঁর গাড়িচালক জামাল উদ্দিনের সঙ্গে কথা বলেন। তখন তিনি গাড়িচালককে বলেছেন, অফিসের দিকে যাবেন এবং ১৫ মিনিট পর যোগাযোগ করতে বলেন। এর পর থেকেই তাঁকে পাওয়া যাচ্ছে না।

নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের জমি ক্রয় বাবদ অতিরিক্ত ৩০৩ কোটি ৮২ লাখ টাকা ব্যয় দেখিয়ে তা আত্মসাৎ করার অভিযোগে গত ৫ মে মামলা করে দুর্নীতি দমন কমিশন। বিশ্ববিদ্যালয়ের চার ট্রাস্টিসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে করা এ মামলায় আশালয় হাউজিং ও ডেভেলপারস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আমিন হিলালী ৬ নম্বর আসামি। দুদকের উপপরিচালক মো. ফরিদ আহমেদ পাটোয়ারী বাদী হয়ে করা মামলাটির অন্য আসামিরা হলেন—নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান আজিম উদ্দিন আহমেদ, বোর্ড অব ট্রাস্টিজের সদস্য এম এ কাশেম, বেনজীর আহমেদ, রেহানা রহমান ও মোহাম্মদ শাহজাহান।

এ ঘটনার পর আমিন হিলালীর নিখোঁজ হওয়ার ঘটনাকে রহস্যজনক মনে করছেন সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা। তাঁর ভাই রফিকুল ইসলাম বলেন, থানা, ডিবি অফিস, র‌্যাব ও দুদকে খোঁজ নিয়েছেন তাঁরা। কেউ খবর জানাতে পারেনি।

উত্তরা পশ্চিম থানার ওসি শাহ মোহাম্মদ আক্তারুজ্জামান ইলিয়াস বলেন, হিলালীর ভাই এ বিষয়ে একটি জিডি করেছেন। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। তাঁর অবস্থানের বিষয়ে তথ্য পাওয়া যায়নি।

 



সাতদিনের সেরা