kalerkantho

বুধবার । ২৯ জুন ২০২২ । ১৫ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৮ জিলকদ ১৪৪৩

সিপিবির সাধারণ সম্পাদক সুনামগঞ্জ যাচ্ছেন কাল

'সরকার ঢাকঢোল পিটিয়ে ত্রাণের কথা বললেও দুর্গত এলাকার খাবার নেই'

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২২ জুন, ২০২২ ১৬:৫৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



'সরকার ঢাকঢোল পিটিয়ে ত্রাণের কথা বললেও দুর্গত এলাকার খাবার নেই'

কুড়িগ্রামের বন্যাদুর্গত এলাকা

সুনামগঞ্জ-সিলেট, নেত্রকোনাসহ দেশের অন্তত ১৫টি জেলায় বন্যা পরিস্থিতি ভয়াবহ হয়ে ওঠায় এবং এখন পর্যন্ত সর্বত্র জান-মাল রক্ষা, ত্রাণসামগ্রী পৌঁছাতে না পারায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)।

সিপিবির পক্ষ থেকে সুনামগঞ্জ ও সিলেটকে দুর্গত এলাকা ঘোষণার দাবি জানিয়ে বলা হয়েছে, ঢাকঢোল পিটিয়ে ত্রাণ তৎপরতার কথা বলা হলেও দুর্গত এলাকার পর্যাপ্ত খবর পাওয়া যাচ্ছে না। বরং দুর্গত মানুষের মৃত্যুর খবর পাওয়া যাচ্ছে।

আজ বুধবার এক বিবৃতিতে সিপিবি সভাপতি মোহাম্মদ শাহ আলম ও সাধারণ সম্পাদক রুহিন হোসেন প্রিন্স এসব কথা বলেন।

বিজ্ঞাপন

তারা বলেন, দুর্যোগ পরিস্থিতি মোকাবেলায় জরুরি ভিত্তিতে উদ্ধার অভিযান, আশ্রয়কেন্দ্র স্থাপন, লঙ্গরখানা চালু ও পর্যাপ্ত ত্রাণ সহায়তা কার্যক্রম জোরদার করতে হবে। পর্যাপ্ত ত্রাণসামগ্রী নিয়ে দুর্গম এলাকা পর্যন্ত সহায়তা কার্যক্রম পরিচালনা করতে হবে, বন্দি মানুষকে উদ্ধার করতে হবে। ত্রাণ বণ্টনে কোনো রকমের দুর্নীতি ও উদাসীনতা জনগণ মেনে নেবে না।

বিবৃতিতে সরকার বন্যাপীড়িতদের পর্যাপ্ত ত্রাণ কার্যক্রম পরিচালনা না করে, সারা দেশের মানুষকে মানবতার সেবায় এগিয়ে আসতে উদ্বুদ্ধ না করে, পদ্মা সেতু উদ্বোধনের উৎসব ডামাডোলে মশগুল থাকা এবং কোটি কোটি টাকা খরচেরও তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন নেতারা। তারা পদ্মা সেতু উদ্বোধনের নামে বিলাসিতা না করে সেই অর্থ বন্যার্তদের জন্য খাদ্য, পানি বিশুদ্ধকরণ ওষুধ, খাবার পানি, ওষুধ, চিকিৎসা ও পুনর্বাসনে ব্যয় করার দাবি জানান।

এ ছাড়া নেতারা বন্যাদুর্গত মানুষক বাঁচাতে ভূমিকা নেওয়ার পাশাপাশি উন্নয়নের নামে ভবিষ্যতে জনদুর্ভোগ সৃষ্টিকারী প্রকল্পের বিরুদ্ধে সোচ্চার হওয়ার জন্য দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানান।

বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, সিলেট-সুনামগঞ্জসহ বন্যাদুর্গত এলাকায় সহায়তা কার্যক্রমে অংশ নিতে সিপিবি সাধারণ সম্পাদক রুহিন হোসেন প্রিন্স আগামীকাল ২৩ জুন সুনামগঞ্জ থাকবেন। তিনি কাল সকাল থেকে বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন করবেন ও ত্রাণ কার্যক্রমে অংশ নেবেন।

বিবৃতিতে বন্যার্তদের সহায়তার জন্য সিপিবির সহায়তা তহবিলে (অ্যাকাউন্ট নম্বর : ০০০ ০০০০ ২১১০ ৮৬২, জনতা ব্যাংক, পুরানা পল্টন শাখা, ঢাকা ও বিকাশ নম্বর : ০১৭১১৪৩৮১৮১) অর্থ সহায়তা পাঠানোর জন্য দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে।



সাতদিনের সেরা