kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৮ জুন ২০২২ । ১৪ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৭ জিলকদ ১৪৪৩

গণফোরাম সভাপতির প্রশ্ন

১২ হাজার কোটির পদ্মা সেতুতে কিভাবে ৫০ হাজার কোটি ব্যয় হয়?

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২১ মে, ২০২২ ২০:৪০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



১২ হাজার কোটির পদ্মা সেতুতে কিভাবে ৫০ হাজার কোটি ব্যয় হয়?

পদ্মা সেতুর সম্পূর্ণ আয়-ব্যয়ের হিসাব জনসম্মুখে প্রকাশ করতে হবে উল্লেখ করে গণফোরাম সভাপতি মোস্তফা মোহসীন মন্টু বলেছেন, প্রধানমন্ত্রীকে জনগণের কাছে জবাব দিতে হবে, ১২ হাজার কোটি টাকার পদ্মা সেতু প্রকল্পে কিভাবে প্রায় ৫০ হাজার কোটি টাকা ব্যয় হয়? পদ্মা সেতুর সম্পূর্ণ আয়-ব্যয়ের হিসাব জনসম্মুখে প্রকাশ করতে হবে।

আজ শনিবার বিকেলে গণফোরাম কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সদস্য সংগ্রহ ও সাংগঠনিক মাস উদ্বোধন এবং আলোচনাসভায় বক্তৃতাকালে তিনি এ কথা বলেন।

গণফোরাম সভাপতি বলেন, 'দেশের জনগণ প্রাকৃতিক দুর্যোগ, দ্রব্যমূল্যের সীমাহীন ঊর্ধ্বগতি, বিচারহীনতা, গণতন্ত্রহীনতা, অর্থপাচারসহ নানা সমস্যায় ভয়াবহভাবে জর্জরিত ও অবৈধ সরকারের দুঃশাসনে অতিষ্ঠ। জনতাকে নাজেহাল অবস্থায় ফেলে দিয়ে রাতের ভোটে ক্ষমতা দখল করা সরকার জনগণের দুরবস্থা নিয়ে চিন্তা না করে মিথ্যাচারিতায় লিপ্ত।

বিজ্ঞাপন

রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ ক্ষমতাবান পদ দখল করে জনগণের নিজস্ব অর্থায়নে গঠিত পদ্মা সেতু প্রসঙ্গে আলাপকালে বাংলাদেশের সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন ব্যক্তিত্ব নোবেল বিজয়ী ড. মুহাম্মদ ইউনূসকে নিয়ে প্রধানমন্ত্রী যে হেয়প্রতিপন্ন বক্তব্য দিয়েছেন তার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। '

মোস্তফা মোহসীন মন্টু আরো বলেন, দেশের এই মহাক্রান্তিকাল উত্তরণে গণফোরামকে ভূমিকা রাখতে সংগঠনকে শক্তিশালী করতে জেলা-উপজেলা, পাড়া-মহল্লায়, গ্রাম-গঞ্জে দেশের সর্বত্র গণফোরামের আদর্শ ছড়িয়ে দিতে হবে। একটি কল্যাণমুখী রাষ্ট্রের লক্ষ্যে গণফোরাম সংগ্রাম চালিয়ে যাবে।

সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে গণফোরাম সাধারণ সম্পাদক সুব্রত চৌধুরী বলেন, 'নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের লাগামহীন ঊর্ধ্বগতিতে জনগণ দিশাহারা। এখন শুনছি এই জনভোগান্তির ফ্যাসিস্ট সরকার জনজীবনকে আরো অতিষ্ঠ করে তুলতে গ্যাস ও বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির পাঁয়তারা শুরু করেছে। গণফোরাম জনগণের বিরুদ্ধে এই ষড়যন্ত্রের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানায়। '

তিনি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, 'আপনাদের অত্যাচার সীমা ছাড়িয়ে গেছে। এ দেশের মানুষ আর একমুহূর্তও আপনাদের ক্ষমতায় দেখতে চায় না। আমরা এই দুর্ভোগ থেকে জনগণকে মুক্ত করতে রাজপথে জনতার ঐক্য গড়ে তুলে ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য একটি বাসযোগ্য বাংলাদেশ গড়ে তুলব। '

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গণফোরাম নির্বাহী সভাপতি মোহসীন রশিদ, মহিউদ্দিন আব্দুল কাদের, সভাপতি পরিষদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা খান সিদ্দিকুর রহমান, সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আইয়ুব খান ফারুক, তথ্য ও গণমাধ্যম সম্পাদক মুহাম্মদ উল্লাহ মধু, মহিলাবিষয়ক সম্পাদক নিলুফার ইয়াসমিন শাপলা, ছাত্র সম্পাদক মো. সানজিদ রহমান শুভ, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণের আহ্বায়ক হাবিবুর রহমান বুলু, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য কামাল উদ্দিন সুমন, ইসমাইল সম্রাট, রিয়াদ হোসেন, আনোয়ার ইবরাহীম, নকিব আহমেদ, ঢাকা মহানগরের সদস্য জজ মিয়া, শেখ শহিদুল ইসলাম, ইমাম হোসেন, আনোয়ার হোসেন, মশিউর রহমান বাবুল, ঢাকা জেলার সদস্য অখিল কর্মকার, আমিনুল ইসলাম, নিজাম উদ্দিন, ফারুক হোসেন, উজ্জল হোসেন, মহিউর রহমান খোকন, হাজি আবুল কাশেমসহ গণফোরাম ঢাকা মহানগর উত্তর-দক্ষিণ ও ঢাকা জেলার নেতৃবৃন্দ।

অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন গণফোরাম ঢাকা মহানগর উত্তরের আহ্বায়ক মার্শাল এম এ কাদের। সঞ্চালনা করেন ঢাকা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মো. রওশন ইয়াজদানী।



সাতদিনের সেরা