kalerkantho

বুধবার ।  ১৮ মে ২০২২ । ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৬ শাওয়াল ১৪৪৩  

খাল রক্ষায় ডিএনসিসির অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অব্যাহত

ট্রাক টার্মিনাল উচ্ছেদ করেই খাল খননের কাজ শুরু : আতিকুল ইসলাম

অনলাইন ডেস্ক   

২৪ জানুয়ারি, ২০২২ ২১:০৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ট্রাক টার্মিনাল উচ্ছেদ করেই খাল খননের কাজ শুরু : আতিকুল ইসলাম

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন-ডিএনসিসি মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম বলেছেন, মোহাম্মদপুরের বসিলায় অবৈধভাবে দখল হ‌ওয়া লাউতলা খালকে দখলমুক্ত করে প্রকৃত অবস্থায় ফিরিয়ে আনার লক্ষ্যেই অভিযান পরিচালনা অব্যাহত রয়েছে।   অবৈধভাবে গড়ে ওঠা ট্রাক টার্মিনালটি উচ্ছেদ করেই খাল খননের কাজ শুরু করা হয়েছে। আজ সোমবার সকালে রাজধানীর মোহাম্মদপুরের বসিলায় লাউতলা খালের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান ও খাল খননের কাজ চলাকালে ডিএনসিসি মেয়র এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, নগরীকে জলজট এবং জলাবদ্ধতার কবল থেকে মুক্ত করতে হলে খালগুলো উদ্ধার করতেই হবে।

বিজ্ঞাপন

লাউতলা খালটিকে উদ্ধারপূর্বক খনন করে বুড়িগঙ্গার সঙ্গে সংযুক্ত করে এতে পানি প্রবাহের সৃষ্টি করা হবে। নগরীর প্রত্যেকটি খালই মানচিত্র অনুযায়ী উদ্ধার করা হবে।
  
আতিকুল ইসলাম বলেন, যারা অবৈধভাবে খালের জায়গা দখল করে, খাল ভরাট করে বিভিন্ন স্থাপনা নির্মাণ করেছে তাদেরকে স্বেচ্ছায় অবৈধ দখল ছেড়ে দিতে হবে অন্যথায় বিনা নোটিশেই অভিযান পরিচালনা করে অবৈধ স্থাপনাগুলো ভেঙে গুঁড়িয়ে দেওয়া হবে।

ডিএনসিসি মেয়র বলেন, খালগুলো ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের নিকট হস্তান্তরের পূর্বে যারা দায়িত্বে ছিল তাদের অবহেলার কারণেই খালগুলো দখল ও দূষণে নাজুক অবস্থায় উপনীত হয়েছে। তিনি অভিযান চলাকালে বসিলাতেই স্থাপিত তাঁর ভ্রাম্যমাণ অফিসে জরুরি ও গুরুত্বপূর্ণ ফাইলপত্র স্বাক্ষরসহ প্রয়োজনীয় অন্যান্য দাপ্তরিক কাজ সম্পাদন করেন। আতিকুল ইসলামের উপস্থিতিতেই এক্সকাভেটর ও বুলডোজার দিয়ে লাউতলা খালের  জায়গা দখল করে অবৈধভাবে নির্মিত স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়।
 
এ সময় অন্যদের মধ্যে ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সেলিম রেজা, প্রধান প্রকৌশলী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মুহাম্মদ আমিরুল ইসলাম, প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা কমোডর এস এম শরিফ-উল ইসলাম, প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা মো. মোজাম্মেল হক এবং স্থানীয় কাউন্সিলর আসিফ আহমেদ উপস্থিত ছিলেন।



সাতদিনের সেরা