kalerkantho

বুধবার ।  ১৮ মে ২০২২ । ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৬ শাওয়াল ১৪৪৩  

কিং ব্র্যান্ড সিমেন্টের রাজমিস্ত্রি কর্মশালা "রাজসভা'' অনুষ্ঠিত

সময় বাঁচাতে ঝুঁকি নিয়ে কাজ জীবন কেড়ে নেয়! কাজের সময় দূর্ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের পাশে থাকার ঘোষণা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৪ জানুয়ারি, ২০২২ ২১:০২ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



কিং ব্র্যান্ড সিমেন্টের রাজমিস্ত্রি কর্মশালা

নিরাপত্তাই প্রথম। দূর্ঘটনা একটা জীবন শুধু কেড়ে নেয় না, এতে একটা পরিবার নিঃস্ব হয়ে যায়। ভবন নির্মাণের সময় অনেক রাজমিস্ত্রী কাজে অসুবিধা আর সময় বাঁচাতে নিরাপত্তার বিষয়ে গুরুত্ব দেয় না। এটি ঠিক না।

বিজ্ঞাপন

তাই সবাইকে সচেতন হতে হবে। আজ সোমবার সন্ধ্যায় নির্মাণশিল্পে নির্মাণ শিল্পীদের দক্ষতা ও সচেতনতা এগিয়ে নিতে ''রাজসভা'' শীর্ষক এক কর্মশালায় বক্তারা এসব কথা বলেন।

রাজধানীর পুরান ঢাকার আরমানিটোলায় কণা পার্টি সেন্টারে এই কর্মশালার আয়োজন করেন দেশের শীর্ষস্থানীয় শিল্পগোষ্ঠী বসুন্ধরা গ্রুপের কিং ব্র্যান্ড সিমেন্ট। কর্মশালায় অংশগ্রহণ করেন স্থানীয় রাজমিস্ত্রিরা।

অনুষ্ঠানে কিং ব্রান্ড সিমেন্ট এর অ্যাসিস্ট্যান্ট জেনারেল ম্যানেজার (সেলস) মোহাম্মদ আলী খান বলেন, 'যেকোন ইঞ্জিনিয়ার ভবন নির্মাণের আগে রাজমিস্ত্রীর কাছে ভালো মন্দ জানতে চান। তাই রাজমিস্ত্রীরা গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু তাদের অবহেলায় একটি জীবনের সঙ্গে পরিবার নিঃস্ব হয়ে যায়। তাই সচেতন হতে হবে। '

তিনি বলেন, 'দূর্ঘটনায় কোন ইঞ্জিনিয়ার বা সহযোগী কেউ আঘাত প্রাপ্ত হলে স্থানীয় ডিলারের মাধ্যমে যোগাযোগ করলে কিং ব্র্যান্ড সিমেন্টর পক্ষ থেকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেওয়া হবে। এছাড়া রাজমিস্ত্রীর মেয়েদের বিয়ে দিতে না পারলে, মেধাবী ছেলে-মেয়েদের শিক্ষা খরচ চালাতে না পারলে অনুদান দেওয়ার জন্য এমডি মহাদয়ের নির্দেশনা রয়েছে। আমরা সব ধরণের সহায়তা করব। ''

রাজমিস্ত্রীদের পক্ষ থেকে পুরান ঢাকার রাজমিস্ত্রী মাসুদ খান বলেন, 'বসুন্ধরা গ্রুপের পেট ভরা এইজন্যে তারা দুই নম্বরি করে না। তাদের টাহা আর চাহিদা নাই। যাদের পেট খালি তারা দুই নম্মরি করে। ' 

কর্মশালা শেষে বক্তারা বলেন, দূর্ঘটনায় মাথা বাঁচাতে হেলমেট পরতে হবে,  ভালো বুট পড়তে হবে, সেফটি বেইল্ট বাঁধতে হবে। তাহলে জীবন রক্ষা পাবে।

বক্তারা বলেন, নির্মাণ সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় ম্যাটেরিয়ালস  ইট, বালি, সিমেন্ট, পাথর, রড, পানি ইত্যাদি ব্যাবহারে সচেতন হতে হবে। বালিতে কাদা ময়লা থাকলে স্থাপনা মজবুত হয় না, তাই
পরিমাণ মতো পরিষ্কার পানি ব্যবহার করতে হবে। নয়তো সিমেন্ট এর কার্যকারিতা কমে যায়। ইট-বালি সব কিছুকে আঁকড়ে রাখে সিমেন্ট। তাই এই বিষয়ে কোনো ছাড় দেওয়া যাবে না। সিমেন্ট ব্যবহার এর আগে বিশ্বাসযোগ্য কোম্পানির ভালো মানের সিমেন্ট ব্যবহার করতে হবে। কর্মশালায়, তাৎক্ষণিক সিমেন্ট পরীক্ষার কিছু টেকনিক উপস্থিত রাজমিস্ত্রীদের শিখিয়ে দেন প্রকৌশলীরা।

ইঞ্জিনিয়ার শুকদেব হাওলাদার কর্মশালায় স্থাপনা নির্মাণ বিষয়ক সেশনে জানান, সেন্টারিং, শাটারিং ঢালাইয়ের নির্দিষ্ট সময় পর খোলাসহ সব কিছু নিয়মতান্ত্রিকভাবে করতে হবে। নয়তো ভবনের স্থায়িত্ব ঠিক থাকে না।

কিং ব্র্যান্ড সিমেন্ট এর প্রতিনিধিরা বলেন, প্রাইভেট কোম্পানির মধ্যে সর্বপ্রথম কিং ব্র্যান্ড সিমেন্ট বাজারে আসে। এর আগে বিদেশি সিমেন্ট চলতো।   উন্নত মানের পদ্ধতিতে এই সিমেন্ট তৈরি করা হয়। নিজস্ব পরীক্ষাগারে পরীক্ষা করার পর এই সিমেন্ট বাজারে ছাড়া হয়। তাই দেশব্যাপী এই সিমেন্টের চাহিদা বেশি।

অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারী রাজমিস্ত্রিরা কিং ব্র্যান্ড সিমেন্ট ব্যবহার করে তাদের কাজের বাস্তব অভিজ্ঞতা ও তাদের নির্ভরতার কথা উল্লেখ করে ধন্যবাদ জানান।  

অনুষ্ঠানে স্থাপনা নির্মাণ কৌশল এবং নির্মাণ সংক্রান্ত বিভিন্ন পরামর্শ উপস্থাপন করেন কর্মশালার বিশেষ অতিথি ঢাকা ন্যাশনাল মেডিকেল কলেজ এর প্রকৌশল বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রকৌশলী মো. ফাইকুজ্জামান রাসেল। তিনি নির্মাণ কাজে দক্ষ কর্মীর ভূমিকা এবং উন্নত মানের সিমেন্ট ব্যবহারের প্রয়োজনীয়তা বিষয়ে তুলে ধরেন। এছাড়াও গুণগত মান বজায় রেখে দেশের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনাগুলোতে কিং ব্র্যান্ড সিমেন্ট এর অবদানের বিষয়ে কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বংশাল এলাকার ব্যবসায়ী মেসার্স ভাই ভাই এন্টারপ্রাইজ এর মালিক জসিম উদ্দিন এবং খান ট্রেডার্স এর মালিক মোঃ মনির হোসেন। দুই ব্যবসায়ী সকল রাজমিস্ত্রির সাথে আন্তরিক শুভেচ্ছা বিনিময় করেন এবং কিং ব্র্যাড সিমেন্ট এর সাথে তাদের দীর্ঘদিনের ব্যবসার অভিজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

উক্ত অনুষ্ঠানে কিং ব্র্যান্ড সিমেন্ট এর পক্ষে উপস্থিত ছিলেন এরিয়া সেলস ম্যানেজার (মতিঝিল) শহিদুল ইসলাম,  এরিয়া সেলস ম্যানেজার (ধানমন্ডি) রাকিবুল ইসলাম,  ইঞ্জিনিয়ার টেকনিক্যাল সাপোর্ট শুকদেব হাওলাদার, এক্সিকিউটিভ টেকনিক্যাল সাপোর্ট ইঞ্জিনিয়ার শাহানশাহ, সিনিয়র এক্সিকিউটিভ (ব্রান্ড) মোঃ শিহাব উদ্দিন।

অনুষ্ঠান শেষে র‌্যাফেল ড্র এর মাধ্যমে দশজনকে পুরস্কৃত করা হয়। এছাড়াও উপস্থিত সকল রাজমিস্ত্রিকে উপহার সামগ্রী দেওয়া হয়।

উল্লেখ্য, বর্তমানে দেশের বিভিন্ন প্রকল্প যেমন সপ্তম বাংলাদেশ চীন মৈত্রী সেতু, রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র, বসুন্ধরা সিটি শপিং কমপ্লেক্স, রুপসা সেতু, গঙ্গাছড়া শেখ হাসিনা সেতু, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়, বেকুটিয়া ব্রিজ প্রকল্পের মত বড় প্রকল্পে ব্যবহৃত হচ্ছে কিং ব্র্যান্ড সিমেন্ট।



সাতদিনের সেরা