kalerkantho

বুধবার ।  ১৮ মে ২০২২ । ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৬ শাওয়াল ১৪৪৩  

বসুন্ধরা নুডলস নিয়ে এলো 'বিনা তারের পাঠশালা'

অনলাইন ডেস্ক   

১৬ জানুয়ারি, ২০২২ ১৬:১২ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বসুন্ধরা নুডলস নিয়ে এলো 'বিনা তারের পাঠশালা'

ভবিষ্যৎ প্রজন্মের অগ্রগতির জন্য শুধু পুষ্টিমান নিশ্চিত করলেই হয় না, সাথে দরকার তাদের পূর্ণাঙ্গ মেধার বিকাশ। এই পূর্ণাঙ্গ মেধার বিকাশের জন্য শিক্ষার বিকল্প আর কিছুই হতে পারে না। এ জন্যই পুষ্টিমান নিশ্চিতকরণের পাশাপাশি উপযুক্ত মেধার বিকাশের জন্য 'বসুন্ধরা নুডলস শিক্ষার সাথে' নিয়ে এলো 'বিনা তারের পাঠশালা'।

রবিবার (১৬ জানুয়ারি), বসুন্ধরা ইন্ডাস্ট্রিয়াল হেডকোয়ার্টার্স-২-এ এক প্রেস কনফারেন্সের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয় ব্যতিক্রমী এই ক্যাম্পেইনের।

বিজ্ঞাপন

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন এম এম জসীম উদ্দীন (সিওও ব্র্যান্ড অ্যান্ড মার্কেটিং, সেক্টর-এ, বসুন্ধরা গ্রুপ), আব্দুর রহমান (কো-অর্ডিনেটর টু অনারারি ভাইস চেয়ারম্যান), তাফসিরুল হক (ব্র্যান্ড ম্যানেজার, বসুন্ধরা ফুড অ্যান্ড বেভারেজ লি.), রাহবার খানসহ (ম্যানেজিং ডিরেক্টর, প্যাপিরাস ডিজি কম) বসুন্ধরা গ্রুপের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ।

ক্যাম্পেইনটির বিস্তারিত বর্ণনা দেন জসীম উদ্দীন। তিনি বলেন, "'বসুন্ধরা নুডলস শিক্ষার সাথে'র 'বিনা তারের পাঠশালা' একটি অনলাইনভিত্তিক শিক্ষামূলক প্ল্যাটফর্ম। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে পরিবর্তন এসেছে প্রযুক্তির। আর প্রযুক্তির এই উন্নয়নে, সবারই সিংহভাগ সময় কেটে যায় অনলাইনে। সেই সিংহভাগ সময়টিও যেন অযথাই অপচয় না হয়, সে কারণেই বসুন্ধরা নুডলসের এই উদ্যোগ। এখন সময় অনলাইনে কাটলেও নিশ্চিত হবে সময়ের সদ্ব্যবহার। 'বিনা তারের পাঠশালা' এই উদ্যোগের মাধ্যমে আমরা চেয়েছি শিক্ষার এক নতুন দিগন্ত উন্মোচন করতে। সবার জন্য শিক্ষার পথকে অবারিত করতে বসুন্ধরা নুডলস ব্র্যান্ডটি নিয়ে এলো ভিন্নধর্মী এই উদ্যোগ। নুডলসের সাথে ক্ষণস্থায়ী উপহারের বদলে আমরা ভোক্তাদের দিতে যাচ্ছি চিরস্থায়ী ভবিষ্যতের অনুপ্রেরণা। বিনা তারের পাঠশালা ওয়েবসাইটটি সবার জন্য। যেকোনো বয়সের, যেকোনো শ্রেণির মানুষ একদম বিনা মূল্যে এখান থেকে শিক্ষা অর্জন করতে পারবে। ইন্টারনেট ব্যবহারের জন্য আমরা নুডলসের প্যাকে দিচ্ছি স্ক্রাচ কার্ড। যেখানে রয়েছে ১০ টাকা থেকে শুরু করে ১০ হাজার টাকার মোবাইল রিচার্জ পর্যন্ত জেতার সুযোগ। "

রাহবার খান (ম্যানেজিং ডিরেক্টর, প্যাপিরাস ডিজি কম) বলেন, বসুন্ধরা গ্রুপের একটি অন্যতম বৈশিষ্ট্য হলো তারা শুধুমাত্র নিজেদের জন্য কাজ করে না, তারা দেশ ও মানুষের জন্য কাজ করে। বসুন্ধরা গ্রুপের যেকোনো পণ্য সেটা দেশি হোক আর বিদেশি, ক্রেতারা সাদরে তা গ্রহণ করেছে। প্রযুক্তির উৎকর্ষতা কাজে লাগিয়ে আগামী প্রজন্মের মেধার বিকাশের সহায়ক এমন উদ্যোগ সত্যিই প্রশংসনীয়। প্যাপিরাস ডিজিকম এমন উদ্যোগের সাথে সংযুক্ত হতে পেরে গর্বিত এবং আনন্দিত।

বসুন্ধরা গ্রুপ দেশ ও জনগণের সেবাকে পণ হিসেবে গ্রহণ করে কাজ করে যাচ্ছে। শুধু ব্যবসার মাধ্যমে মুনাফা তৈরিতে এই গ্রুপ বিশ্বাসী নয়, একই সাথে মানুষ ও দেশের সেবায় নিয়োজিত রয়েছে অবিরাম। বসুন্ধরা নুডলস পুষ্টিগুণে শুধু মেধার বিকাশের কথা চিন্তা করে না, বিনা মূল্যে শিক্ষা প্রদান করে জাতির উন্নতির কথাও চিন্তা করে। এ জন্যই তারা 'বিনা তারের পাঠশালা' নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে শিক্ষার সাথে। দেশ ও মানুষের কল্যাণে দেশের বৃহত্তম শিল্পগোষ্ঠী বসুন্ধরা গ্রুপ কাজ করে যাচ্ছে নিরলসভাবে; 'বিনা তারের পাঠশালা' ক্যাম্পেইনটিও এ রকমই এক সেবামূলক উদ্যোগ।

উপস্থিত কর্মকর্তাবৃন্দ কেক কেটে অনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন 'বিনা তারের পাঠশালা' ক্যাম্পেইন। অনুষ্ঠানে ক্যাম্পেইনটির অডিও ভিজ্যুয়াল এবং ওয়েবসাইটটি বিশদভাবে উপস্থাপন করেন বসুন্ধরা নুডলসের ব্র্যান্ড ম্যানেজার তাফসিরুল হক।  

www.bashundharanoodles.com/binatarerpathshala/ ওয়েবসাইটে গিয়ে শুধু রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন করলেই উন্মোচিত হবে শিক্ষার এক নতুন দ্বার। এই উদ্যোগের সাথে আগামী প্রজন্মের মেধার বিকাশের মাধ্যমে দেশও এগিয়ে যাবে উন্নতির এক মাত্রায়, এমনই আশাবাদ ব্যক্ত করেন অনুষ্ঠানে আগত সকলেই।



সাতদিনের সেরা