kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৬ মাঘ ১৪২৮। ২০ জানুয়ারি ২০২২। ১৬ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

এলো অহংকারের ডিসেম্বর

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১ ডিসেম্বর, ২০২১ ০৮:২৭ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



এলো অহংকারের ডিসেম্বর

আজ ১ ডিসেম্বর। পরম গৌরব আর অহংকারের বিজয়ের মাসের প্রথম দিন। ১৯৭১ সালের ডিসেম্বরেই পূর্ণতা পেয়েছিল স্বাধীনতার জন্য বাঙালির দীর্ঘ সংগ্রাম। এ মাসের মাঝামাঝিই ৯ মাসের রক্তক্ষয়ী মুক্তিযুদ্ধে পরাজিত হয় হানাদার পাকিস্তানি সামরিক বাহিনী। বিশ্বের বুকে আবির্ভূত হয় বাংলাদেশ নামের একটি জাতি-রাষ্ট্র। স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীর উৎসব-আনন্দের বিশেষ আবহের মধ্য দিয়ে জাতি এবারের বিজয় দিবস পালন করতে যাচ্ছে।

স্বাধীনতার স্থপতি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকে সাড়া দিয়ে জনযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিল এ দেশের মানুষ। ৯ মাসের বীরত্বপূর্ণ লড়াইয়ের মধ্য দিয়ে ৩০ লাখ মানুষের প্রাণদান ও দুই লাখ মা-বোনের সম্ভ্রমের বিনিময়ে আসে জাতীয় মুক্তি। পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী আত্মসমর্পণ করেছিল ১৬ ডিসেম্বর। আবার এই ডিসেম্বর মাসেই পাকিস্তানিরা তাদের এ দেশীয় দোসর রাজাকার আলবদর আলশামস বাহিনীর সহযোগিতায় জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান বুদ্ধিজীবীদের হত্যার নৃশংস যজ্ঞে মেতে উঠেছিল। এই কারণে বাঙালি বিজয়ের মাসটি উদযাপন করে একই সঙ্গে আনন্দ ও বেদনায়।

প্রতিবছর বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনায় নানা অনুষ্ঠান-আয়োজনের মাধ্যমে মাসজুড়ে বিজয়ের আনন্দ উদযাপন করে বাংলাদেশ। অগুনতি লাল-সবুজ পতাকা ওড়ে সারা দেশে। গত বছর করোনাভাইরাস সংক্রমণের মাত্রা বেশি থাকায় আনুষ্ঠানিক উৎসব-আয়োজনে বাধা পড়েছিল। তবে এবারের পরিস্থিতি অনেকটাই ভিন্ন। করোনার দৌরাত্ম্য বেশ কিছুটা কমে যাওয়াতে এবারের বিজয় উদযাপন পূর্ণমাত্রা পাবে বলেই আশা করা হচ্ছে। প্রস্তুতিও নেওয়া হচ্ছে সেভাবেই।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে গত বছরের ১৭ মার্চ থেকে মুজিববর্ষ উদযাপন করছে বাংলাদেশ।

করোনাভাইরাস মহামারির কারণে কর্মসূচিগুলো যথাযথভাবে পালন করা যায়নি। ফলে মুজিববর্ষের মেয়াদ এ বছরের ১৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছিল। সে কারণে স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী এবং বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী এবার এক সঙ্গে পালিত হচ্ছে।

১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবস উপলক্ষে রাজধানী ঢাকাসহ সারা দেশে বিজয় শোভাযাত্রা হবে। ঢাকাসহ সারা দেশে বর্ণাঢ্য বিলবোর্ড, ব্যানার, ফেস্টুন টানানো হবে। ঢাকাজুড়ে থাকবে আলোকসজ্জা। সভা, সেমিনার ও আলোচনাসভার আয়োজন করা হবে। ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের সহযোগীরা মূল দলের কর্মসূচির সঙ্গে মিল রেখে নিজস্ব কর্মসূচি পালন করবে। অন্যান্য রাজনৈতিক. সামাজিক ও সাংস্কৃতিক দল এবং সংগঠনেরও থাকবে নিজ নিজ নানা আয়োজন।

 বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মাননা : মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, এবার স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী পালন উপলক্ষে আঞ্চলিক ও উপ-আঞ্চলিক পর্যায়ে বিভিন্ন অঞ্চলের বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মাননা প্রদর্শন শুরু করা হয়েছে। এই কর্মসূচিতে সারা দেশে ২১টি মহাসমাবেশ করা হচ্ছে। এর শুরু হয়েছে গত ২৬ নভেম্বর দিনাজপুরে উপ-আঞ্চলিক মহাসমাবেশের মধ্য দিয়ে। সাতটি আঞ্চলিক ও ১৪টি উপ-আঞ্চলিক মহাসমাবেশ করার কর্মসূচি হাতে নেওয়া হয়েছে। পঞ্চগড়ে ২ ডিসেম্বর, যশোরে ৬ ডিসেম্বর, গোপালগঞ্জে ৭ ডিসেম্বর, কুমিল্লায় ৮ ডিসেম্বর, জামালপুরে ১১ ডিসেম্বর, কক্সবাজারে ১২ ডিসেম্বর এবং সিলেটে-১৫ ডিসেম্বর আঞ্চলিক মহাসমাবেশ হতে যাচ্ছে।

বিভিন্ন দল ও সংগঠনের আয়োজন : আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন স্বেচ্ছাসেবক লীগ গতকাল দিবাগত রাত ১২টা ১ মিনিটে শিখা চিরন্তনে শহীদদের উদ্দেশ্যে শ্রদ্ধা নিবেদন করে।

‘লাল-সবুজের মহোৎসব’ : বিজয়ের ৫০ বছর উদযাপনে ১ ডিসেম্বর থেকে ১৬ দিনব্যাপী ‘লাল-সবুজের মহোৎসব’ করবে এফবিসিসিআই। আজ ১ ডিসেম্বর থেকে রাজধানীর হাতিরঝিলের অ্যাম্ফিথিয়েটারে শুরু হবে এফবিসিসিআই আয়োজিত এই মহোৎসব। সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় ভার্চুয়ালি এই আয়োজনের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানসহ প্রতিদিনের আয়োজনে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান। সভাপতিত্ব করার পাশাপাশি স্বাগত বক্তব্য দেবেন এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন। অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেবেন ডিএনসিসির মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম।

জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদ আগের কয়েক বছরের মতো আজ ১ ডিসেম্বর দেশব্যাপী মুক্তিযোদ্ধা দিবস পালন করবে। এ উপলক্ষে দলটি সকাল ৯টায় মিরপুর বীর মুক্তিযোদ্ধা কবরস্থানে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে শ্রদ্ধা নিবেদন করবে। এরপর জাসদ ঢাকা মহানগর পশ্চিম কমিটির উদ্যোগে কবরস্থান চত্বরে সংক্ষিপ্ত আলোচনাসভা হবে। সকাল ১১টায় ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যান শিখা চিরন্তনে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে মুক্তিযুদ্ধের বীরদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করবে জাসদ।

সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সংগঠন ‘পদক্ষেপ বাংলাদেশ’ শিল্পকলা একাডেমির উন্মুক্ত মঞ্চে সকাল ৭টা থেকে বিজয় মাসের প্রথম প্রভাত শীর্ষক আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করবে। এ ছাড়া সংগঠনের সব জেলা শাখার উদ্যোগে হবে ‘বিজয়ের মাসের প্রথম প্রহর’ শীর্ষক অনুষ্ঠান।

‘আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান’ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আজ সকাল ১১টায় রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে মুক্তিযোদ্ধা দিবস, জাতির জনকের জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে মাসব্যাপী কর্মসূচির উদ্বোধন ও শিখা চিরন্তনে পুষ্পস্তবক অর্পণ করবে।



সাতদিনের সেরা