kalerkantho

সোমবার । ৩ মাঘ ১৪২৮। ১৭ জানুয়ারি ২০২২। ১৩ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

বাসে অগ্নিসংযোগকারীকে খুঁজছে পুলিশ

অনলাইন ডেস্ক   

৩০ নভেম্বর, ২০২১ ০২:০৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বাসে অগ্নিসংযোগকারীকে খুঁজছে পুলিশ

রাজধানীর রামপুরায় বাসচাপায় স্কুল শিক্ষার্থীর মৃত্যুর ঘটনায় কারা বাসে আগুন দিয়েছে তা খতিয়ে দেখবে পুলিশ। সুযোগসন্ধানীরা উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে বাসে আগুন দিয়েছে কি না পুলিশ এ বিষয়ে তদন্ত করবে। সোমবার রাতে দুর্ঘটনাস্থলে গিয়ে সাংবাদিকদের এসব কথা জানান পুলিশের মতিঝিল বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) মো. আ. আহাদ।

তিনি জানান, রামপুরায় সড়কে শিক্ষার্থী নিহতের ঘটনায় বাসচালককে আটক করেছে পুলিশ। ঘাতক বাসটিও জব্দ করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে চালকের নাম পরিচয় জানা যায়নি।

আ. আহাদ বলেন, ঘটনার পর চালক পালিয়ে যাচ্ছিল। পুলিশ সঙ্গে সঙ্গে তাকে আটক করে। সে বর্তমানে থানায় আছে। বাসটিও জব্দ করা হয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। এরপর প্রচলিত আইনে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আ. আহাদ দাবি করেন, পুলিশ নিহতের ভাইয়ের সঙ্গে কথা বলেছে। তিনি পুলিশকে বলেছেন তারা ভাঙচুর বা আগুন দেননি। অন্য কেউ এসে এসব করিয়েছে। এ ধরনের ঘটনা কাম্য নয় বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

এর আগে, রাজধানীর রামপুরায় অনাবিল পরিবহনের একটি বাসচাপায় মাঈন উদ্দিন নামের এক শিক্ষার্থী মারা যায়। সোমরাত রাত পৌনে ১১টার দিকে রামপুরা বাজারের সামনে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর ঘটনাস্থলে জড়ো হয়ে ৯টি গাড়িতে আগুন দেয় স্থানীয়রা। এ সময় রাস্তা বন্ধ করে দেয় তারা।

স্থানীয়রা জানান, নিহত মঈন স্থানীয় বাসিন্দা। তিনি রামপুরা এলাকায় বড় হয়েছে। স্থানীয় একরামুন্নেসা স্কুলে পড়ত মঈন। সেখান থেকে এসএসসি পরীক্ষা দিচ্ছিল সে। রামপুরার তিতাস রোডে ভাড়া বাসায় থেকে চায়ের দোকান চালান মাঈনুদ্দিনের বাবা।

রামপুরা থানার ওসি রফিকুল ইসলাম কালের কণ্ঠকে বলেন, বাসচাপায় রামপুরা বাজারের সামনে একজন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় উত্তেজিত জনতা সড়ক অবরোধ করেছে।



সাতদিনের সেরা