kalerkantho

শনিবার । ১৫ মাঘ ১৪২৮। ২৯ জানুয়ারি ২০২২। ২৫ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

বঙ্গবন্ধু ৯ম বাংলাদেশ গেমসে পদক অর্জন

আনসার-ভিডিপি খেলোয়াড় ও কোচরা সংবর্ধনা পেলেন

নিজস্ব প্রতিবেদক    

২৬ নভেম্বর, ২০২১ ২৩:০৪ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



আনসার-ভিডিপি খেলোয়াড় ও কোচরা সংবর্ধনা পেলেন

গাজীপুরের সফিপুর বাংলাদেশ আনসার ভিডিপি একাডেমিতে গত বৃহস্পতিবার রাতে  ‘বঙ্গবন্ধু ৯ম বাংলাদেশ গেমস্-২০২০’-এ অংশগ্রহণকারী বাংলাদেশ আনসার-গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর খেলোয়াড় ও কোচদের জন্য সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল এমপি প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মিজানুর রহমান শামীম।  

এছাড়া উপস্থিত ছিলেন বাহিনীর অতিরিক্ত মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল খোন্দকার ফরিদ হাসান, একাডেমি’র কমান্ড্যান্ট অতিরিক্ত মহাপরিচালক মো. মাহবুব উল ইসলাম উপ-মহাপরিচালক (প্রশাসন) কর্নেল মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম উপ-মহাপরিচালক (অপারেশনস) মো. সামছুল আলমসহ সদর দপ্তর ও একাডেমির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

বিজ্ঞাপন

 

বাহিনীর এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ‘বঙ্গবন্ধু ৯ম বাংলাদেশ গেমস-২০২০’ -এ ১৩৩টি স্বর্ণ, ৮০টি রৌপ্য এবং ৫৭টি তাম্রপদক অর্জন করে একনাগাড়ে পঞ্চম বারের মতো চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করেছে এ বাহিনীর ক্রীড়া দল। ক্রীড়া ক্ষেত্রে অসমান্য অবদান রাখায় ২০০৪ সালে সরকার এই বাহিনীকে সর্বোচ্চ সম্মাননা ‘স্বাধীনাতা পদক’ প্রদান করে। এরপর ধারাবাহিকতা বজায় রেখে অষ্টম বাংলাদেশ গেমস্-২০১৩ ও  ৯ম বাংলাদেশ গেমস্-২০২০- এ টানা পঞ্চমাবারের শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট পরে এ বাহিনীর ক্রীড়া দল।

আজকের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বলেন, ‘বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী দেশের সর্ববৃহৎ শৃঙ্খলা বাহিনী। প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে অদ্যাবধি প্রতিটি ক্ষেত্রে এ বাহিনীর সদস্যরা সবসময়ই কর্মদক্ষতা ও সফলতার পরিচয় দিয়ে যাচ্ছে। বাহিনীর সদস্যরা অর্পিত দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি খেলাধুলায় অংশগ্রহণের মাধ্যমে দেশের গন্ডি ছাড়িয়ে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বাহিনী ও দেশের সুনাম বৃদ্ধি করছে।

২০১৯ সালে সাউথ এশিয়ান (এসএ) গেমস্-এ বাংলাদেশের অর্জিত ১৪২টি পদকের মধ্যে এ বাহিনীর সদস্যরা ৬৮টি পদক অর্জন করে দেশের মুখ উজ্জ্বল করেছে। আর্চার খেলোয়াড় ল্যান্স নায়েক মো. রোমান সানা এবং ভারোত্তোলন খেলোয়াড় মাবিয়া আক্তার এ বাহিনীর গর্বিত সদস্য। বাংলাদেশের একমাত্র আর্চার খেলোয়াড় হিসেবে ল্যান্স নায়েক মো. রোমান সানা ২০২১ সালে টোকিও’তে অনুষ্ঠিত অলিম্পিক গেমসে সরাসরি খেলার যোগ্যতা অর্জন করে দেশ ও  বাহিনীকে গৌরবান্বিত করেছে।

ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, ‘আজ যাদের পুরস্কৃত করা হলো তাদের খেলাধুলার মান আগামী দিনগুলোতে আরো বৃদ্ধি পাবে বলে আমি আশা করি। এছাড়া বাহিনীর অন্যান্য সদস্যরাও খেলাধুলায় অংশগ্রহণে অনুপ্রাণিত হবে। পুরুষ খেলোয়াড়দের পাশাপাশি এ বাহিনীর নারী সদস্যরাও জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে বিভিন্ন খেলাধুলায় অগ্রণী ভূমিকা রাখছে। আমি নিশ্চিত, বর্তমান ধারাবাহিকতা বজায় রেখে ভবিষ্যতেও এ বাহিনী খেলাধুলায় জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে অংশগ্রহণ করে দেশের সুনাম ও মর্যাদা বৃদ্ধি করবে। ’

সংবর্ধনা অনুষ্ঠান শেষে আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দ ও খেলোয়াড়দের সৌজন্যে বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর অকেষ্ট্রা দলের পরিবেশনায় এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এছাড়া বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তি তথা সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে আতশবাজির ঝলকানিতে ঝিলমিল আলোয় আলোকিত হয় গাজীপুরের আকাশ।  



সাতদিনের সেরা