kalerkantho

শনিবার । ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ২৭ নভেম্বর ২০২১। ২১ রবিউস সানি ১৪৪৩

'কাটাখালীর মেয়র আব্বাসের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে'

অনলাইন ডেস্ক   

২৫ নভেম্বর, ২০২১ ০৮:০৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



'কাটাখালীর মেয়র আব্বাসের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে'

মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, রাজশাহীর কাটাখালী পৌরসভার মেয়রের বক্তব্য অসাংবিধানিক ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা পরিপন্থী।সে কারণে মেয়রের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

গতকাল বুধবার দুপুরে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এ কথা বলেন।

মন্ত্রী আরো বলেন, আমাদের সংগঠন আছে এবং এটা জানেন যে এর মাধ্যমে স্বাধীনতা অর্জন হয়েছে, ঐতিহ্যবাহী দল। নিশ্চয়ই দল যথাসময়ে দলীয় নীতি-আদর্শপরিপন্থী কাজের জন্য অবশ্যই নিয়ম অনুসারে শৃঙ্খলা ভঙ্গের ব্যবস্থা নেবে। 

তিনি আরো বলেন, এটি দলীয় দৃষ্টিকোণ থেকে শতভাগ শৃঙ্খলা ভঙ্গ। দল যেখানে ম্যুরাল তৈরি করছে, সেই ম্যুরালটি ইসলামবিরোধী, এই কথা বলে সে দলীয় শৃঙ্খলা নিঃসন্দেহে ভঙ্গ করেছে। দল নিশ্চয়ই সেটির ব্যবস্থা নেবে।

তিনি আরো বলেন, প্রশাসনিকভাবে যদি বলা যায়, একজন মেয়র সরকারের অংশ। তারা যদিও নির্বাচিত প্রতিনিধি, পাবলিক সারভেন্ট, তবু সরকারি কর্মচারীরা যে আইন দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়, একজন মেয়রও সেই আইন দ্বারা নিয়ন্ত্রিত। এটি আবহমানকাল থেকেই। এটা যে বর্তমান সরকার করেছে, বা বাংলাদেশে করা হয়েছে তা নয়, সারা পৃথিবীতেই। জনপ্রতিনিধিরা যখন দায়িত্ব নেয়, তারা একটা শপথ গ্রহণ করে, সংবিধান সংরক্ষণ করার দায়িত্ব তাদের আছে, সংবিধানমতো চলার দায়িত্ব তাদের আছে, এবং রাষ্ট্রীয় যেসব নীতি সেগুলোও মেনে চলার, সরকারি আদেশ-নির্দেশ মেনে চলার বাধ্যবাধকতা আছে। জনপ্রতিনিধি হলেও। 

মন্ত্রী বলেন, আমি মনে করি জনপ্রতিনিধি হিসেবে তিনি আইন অনুযায়ী সরকারি কর্মচারীর যে আচরণ, সেই আচরণ তিনি লঙ্ঘন করেছেন। সেই হিসেবে তার বিরুদ্ধে সরকারি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী  আরো বলেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনার সঙ্গে এটি সাংঘর্ষিক, আমাদের সংবিধানের সঙ্গে এটি সাংঘর্ষিক। ‌‘ম্যুরাল করা যাবে না’ এমন কথা বা এটা সংবিধানের সঙ্গে সাংঘর্ষিক। তিনি এ ধরনের কথা বলে থাকলে এটি শাস্তিযোগ্য অপরাধ। আমরা স্থানীয় সরকারকে অনুরোধ করব- এটা খতিয়ে দেখে তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য।



সাতদিনের সেরা