kalerkantho

রবিবার । ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ৫ ডিসেম্বর ২০২১। ২৯ রবিউস সানি ১৪৪৩

‘সাম্প্রদায়িক অপশক্তির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াও’ স্লোগানে ছায়ানটের মানববন্ধন

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২২ অক্টোবর, ২০২১ ১৮:০৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



‘সাম্প্রদায়িক অপশক্তির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াও’ স্লোগানে ছায়ানটের মানববন্ধন

ছবি: সংগৃহীত

‘সাম্প্রদায়িক অপশক্তির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াও’-এই স্লোগান নিয়ে রাজধানীতে মানববন্ধন করেছে দেশের ঐতিহ্যবাহী সাংস্কৃতিক সংগঠন ‘ছায়ানট’। শুক্রবার সকালে ধানমন্ডি ছায়ানট সংস্কৃতি-ভবনের সামনে অনুষ্ঠিত এই মানববন্ধন থেকে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রাখতে বাঙ্গালী সংস্কৃতি চর্চা ও বিকাশে জরুরি উদ্যোগ নেওয়ার আহ্বান জানানো হয়েছে।

শারদীয় দূর্গোৎসবে সাম্প্রদায়িক হামলা, অগ্নিসংযোগ, লুটপাট ও হত্যার প্রতিবাদে আয়োজিত এই মানবন্ধনে ছায়ানটের কর্মী-সংগঠকরা ছাড়াও জাতীয় রবীন্দ্র সংগীত সম্মিলন পরিষদ, আবৃত্তি সংগঠন কণ্ঠশীলন, ছায়ানট সঙ্গীত বিদ্যায়তন, নালন্দা উচ্চ বিদ্যালয়সহ বিভিন্ন সংগঠন ব্যানার ফেস্টুন নিয়ে অংশ নেয়। মানববন্ধনের পুরোটা সময় সমবেত কণ্ঠে দেশাত্মবোধক ও অসাম্প্রদায়িক চেতনার গান পরিবেশন করেন তারা। এর মধ্যে রয়েছে ‘ও আমার দেশের মাটি, আমি মারের সাগর পাড়ি দেব, দুর্গম-গিরি-কান্তার মরু, ফুল খেলবার দিন নয় অদ্য, যশোর-খুলনা-বগুড়া-পাবনা এবং বাংলার হিন্দু বাংলার বৌদ্ধ।

মানববন্ধনে অংশ নেন বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর অর্থনীতিবিদ আতিউর রহমান, ছায়ানটের নির্বাহী সভাপতি ডা. সারওয়ার আলী, ছায়ানটের সাধারণ সম্পাদক লাইসা আহমেদ লিসা, শিল্পী খায়রুল আনাম শাকিল, শিল্পী বুলবুল ইসলাম, শিক্ষক হাফিজুর রহমান প্রমুখ।

মানববন্ধন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে ডা, সারওয়ার আলী বলেন, প্রতিনিয়ত দেশের বিভিন্ন স্থানে সাম্প্রদায়িক সহিংসতার ঘটনা ঘটছে। যে কারণে হিন্দু সম্প্রদায় তাদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজা নির্বিঘ্নে উদ্যাপন করতে পারেনি। যা অত্যন্ত দুঃখজনক। তিনি আরো বলেন, এখনো সাম্প্রদায়িক হামলার ঘটনা ঘটছে। দেশের সংবিধান সব ধর্মের মানুষের সমঅধিকার নিশ্চিত করেছে। কাজেই এই পরিস্থিতি কখনোই কাম্য হতে পারে না। এই অবস্থা থেকে পরিত্রাণের দায়িত্ব শুধু রাষ্ট্রের একার নয়, সমাজের সবার।

ডা, সারওয়ার আলী বলেন, আমরা বাঙালিরা সব সময় অসাম্প্রদায়িক চেতনায় বিশ্বাসী। মুক্তিযুদ্ধের মধ্য দিয়ে অর্জিত এই দেশে ধর্মান্ধ শক্তির স্থান নেই। তাই সাম্প্রদায়িক বিদ্বেষ থেকে পরিত্রাণের জন্য বাঙালি সংস্কৃতিচর্চা ও বিকাশের একান্ত প্রয়োজন। একইসঙ্গে সাম্প্রদায়িক অপশক্তি রুখে দিতে দেশবাসীকে প্রস্তুত থাকতে হবে। সম্প্রীতির বাংলাদেশ গড়ে তুলতে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।



সাতদিনের সেরা