kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ৩০ নভেম্বর ২০২১। ২৪ রবিউস সানি ১৪৪৩

আবার মোটরসাইকেলে হতাশার আগুন

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২২ অক্টোবর, ২০২১ ০৪:৫৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আবার মোটরসাইকেলে হতাশার আগুন

পুলিশের ওপর ক্ষুব্ধ হয়ে রাজধানীর পলাশী এলাকায় এক রাইড শেয়ারিংয়ের চালক নিজের মোটরসাইকেলে আগুন ধরিয়ে দেন। ছবি : সংগৃহীত

হেলমেট না থাকায় মামলা দেওয়ায় এবার পুলিশের ওপর ক্ষুব্ধ হয়ে এক  রাইড শেয়ারিং মোটরসাইকেলচালক নিজের মোটরসাইকেলে আগুন দিয়েছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর পলাশী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনার পর মোটরসাইকেলে আগুন দেওয়া ইলিয়াস মিয়াকে (৩০) লালবাগ থানায় নেওয়া হয়। সেখানে তিনি পুলিশের কাছে অভিযোগ করেন, হেলমেট না থাকায় সার্জেন্ট তাঁকে এক হাজার টাকা জরিমানা করেন। এরপর হতাশা ও রাগে তিনি এ কাজ করেন।

একসময় কিশোরগঞ্জে কাপড়ের দোকান ছিল দাবি করে ইলিয়াস বলেন, কাপড়ের ব্যবসার পাশাপাশি ঋণ করে দুটি ট্রাক কিনেছিলেন তিনি। করোনার কারণে সব শেষ হয়েছে তাঁর। কয়েক মাস আগে তিনি ঢাকায় এসে অ্যাপসে রাইড শেয়ারিং চালানো শুরু করেন। তিনি যোগ করেন, ‘সারা দিনে এক হাজার টাকা আয় করতে পারি না। বাইকের তেল কেনা, সার্ভিসিংসহ আরো খরচ আছে। এরপর যদি এক হাজার টাকার মামলা হয়, তাহলে চলব কী করে।’ 

লালবাগ থানার ওসি এম এম মোরশেদ কালের কণ্ঠকে বলেন, মামলা দেওয়ার প্রায় ৪০ মিনিট পর নিরিবিলি জায়গায় গিয়ে নিজের মোটরসাইকেলে আগুন লাগিয়ে দেন ইলিয়াস। এর আগে ট্রাফিক আইন অমান্য করার অভিযোগে তাঁর বিরুদ্ধে আরো দুটি মামলা হয়। কিন্তু সেই মামলাগুলো তিনি নিষ্পত্তি করেননি।

তাঁকে থানায় এনে জানার চেষ্টা চলে কেন তিনি এ কাজ করলেন। জবাবে ইলিয়াস মিয়া বলেন, করোনার সময় তিনি অনেক অভাবের মধ্যে ছিলেন। কাপড়ের ব্যবসা বন্ধ হওয়ার পাশাপাশি লোনের কিস্তি তাঁকে বিপাকে ফেলেছে। অর্থিক অনটনের কারণে হতাশার মধ্যে আছেন। দুপুরে ট্রাফিক সার্জেন্ট মামলা দিলে তিনি নিজের ডিসকভারি-১২৫ মডেলের মোটরসাইকেলে আগুন ধরিয়ে দেন।

এদিকে ঘটনাটির একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। এতে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখানোর একপর্যায়ে তিনি নিজের মোটরসাইকেলে পেট্রল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেন। এ সময় আশপাশের লোকজন আগুন নেভানোর চেষ্টা করলে তিনি তাদের বাধা দেন।

প্রসংগত, মামলা দিলে গত ২৭ সেপ্টেম্বর রাজধানীর বাড্ডা এলাকায় শওকত আলম সোহেল নামে রাইড শেয়ারিংয়ের আরেক চালক নিজের মোটরসাইকেলে আগুন দেন।



সাতদিনের সেরা