kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৫ কার্তিক ১৪২৮। ২১ অক্টোবর ২০২১। ১৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

নতুন ১৮ ওয়ার্ডে একটি করে রাস্তা হবে: আতিকুল ইসলাম

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৪ অক্টোবর, ২০২১ ১৭:৫৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নতুন ১৮ ওয়ার্ডে একটি করে রাস্তা হবে: আতিকুল ইসলাম

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন-ডিএনসিসি মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম বলেছেন, আগামী ২০শে নভেম্বর থেকে ডিএনসিসির নতুন ১৮টি ওয়ার্ডের প্রত্যেকটিতে ১টি করে রাস্তার নির্মাণ কাজ শুরু হবে। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর উত্তরায় কামারপাড়া স্কুল এন্ড কলেজ মাঠে আয়োজিত কামার পাড়া কবরস্থান রোডের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় ডিএনসিসি মেয়র একথা বলেন।

তিনি বলেন, জনগুরুত্ব বিবেচনায় ডিএনসিসির নতুন ১৮টি ওয়ার্ডের প্রতিটিতে ১টি করে রাস্তা বাছাই করা হয়েছে এবং বাছাইকৃত রাস্তাগুলোর নির্মাণ করার জন্য বাংলাদেশ সেনাবাহিনীকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

মো. আতিকুল ইসলাম বলেন, ডিএনসিসির নিজস্ব অর্থায়নে ৫ কোটি ৯০ লাখ ১৭ হাজার ১৬৩ টাকা ব্যয়ে ৫৪ নম্বর ওয়ার্ডে কামার পাড়া কবরস্থান রোড তথা মিডল্যান্ড ব্যাংক হতে তালুকপাড়া মোড় হয়ে কামারপাড়া কবরস্থান ও বামনারটেক মেইন রোড পর্যন্ত এবং রাজ্জাক মেম্বারের বাড়ী হতে স্টার স্কুল পর্যন্ত সড়কের নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হয়েছে।

ডিএনসিসি মেয়র বলেন, স্থানীয় জনগনের আন্তরিক সহযোগিতায় সকলের সুবিধার জন্যই ১.৪৬ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যবিশিষ্ট রাস্থাটির প্রস্থ ১২ ফুট থেকে ২০ ফুটে উন্নীত করা সম্ভব হয়েছে।

তিনি বলেন, পূর্বে এই সড়কের অবস্থা খুবই নাজুক ছিল, মানুষের চলাফেরায় খুব কষ্ট পোহাতে হতো, এখন স্থানীয় জনগণসহ সবাই এই রাস্তাটির সুফল ভোগ করবে।
 মো. আতিকুল ইসলাম বলেন, কামারপাড়া বাজার থেকে সরকারবাড়ী পর্যন্ত ৪ লেনবিশিষ্ট রাস্তাটির নির্মাণ কাজও আগামী মাসেই শুরু হবে।

তিনি অবৈধভাবে নদী, নালা, খাল, ডোবা দখলকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, ডিএনসিসি থেকে অবৈধ দখলদারদের নামে কোন বৈধ নোটিশ ইস্যু করা হবে না, বিনা নোটিশেই তাদেরকে উচ্ছেদ করা হবে।

মো. আতিকুল ইসলাম বলেন, সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় দখল ও দূষণমুক্ত সুস্থ, সচল ও আধুনিক ঢাকা গড়ে তুলতে হবে।

ডিএনসিসি মেয়র প্রধান অতিথি হিসেবে নিজের গুরুত্ত্বপূর্ণ বক্তৃতা শেষে কামারপাড়া কবরস্থান রোডের শুভ উদ্বোধন করেন।

এসময় অন্যান্যের মধ্যে ঢাকা-১৮ আসনের সংসদ সদস্য মোহাম্মদ হাবিব হাসান এবং স্থানীয় কাউন্সিলর জাহাঙ্গীর হোসেন যুবরাজ উপস্থিত ছিলেন।



সাতদিনের সেরা