kalerkantho

বুধবার । ১১ কার্তিক ১৪২৮। ২৭ অক্টোবর ২০২১। ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

পুলিশ বলছে, মুসার কথা রহস্যজনক

কাদেরের প্রতারণার শিকার মুসা বিন শমসেরও

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৩ অক্টোবর, ২০২১ ০৮:৩২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কাদেরের প্রতারণার শিকার মুসা বিন শমসেরও

কথিত ধনকুবের ও আলোচিত ব্যক্তি মুসা বিন শমসেরের সঙ্গে অতিরিক্ত সচিব পরিচয়ে প্রতারণাকারী আব্দুল কাদেরের ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ ছিল। কাদের মুসার প্রচার করা সুইস ব্যাংকের টাকাসহ বিপুল সম্পদের কথা মানুষকে জানিয়ে এবং মুসা বিন শমসেরের সঙ্গে সম্পর্ক আছে বলে প্রচার করে প্রতারণা চালাচ্ছিলেন।

এমন তথ্যের ভিত্তিতে মুসা বিন শমসের, তাঁর স্ত্রী ও ছেলেকে গতকাল মঙ্গলবার প্রায় সাড়ে তিন ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করেছে গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

সন্ধ্যায় ডিবি কার্যালয় থেকে বের হয়ে মুসা বিন শমসের সাংবাদিকদের কাছে দাবি করেন, তিনিও কাদেরের প্রতারণার শিকার হয়েছেন। তিনি একটি মামলা করবেন। তবে পুলিশ কর্মকর্তারা বলছেন, মুসার কথা রহস্যজনক। তাঁর সঙ্গে ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ ছিল কাদেরের। সেই সম্পর্ক এবং মুসার দাবি করা সম্পদের কথা বলে প্রতারণা করেছেন কাদের। সুইস ব্যাংকে ৮২ বিলিয়ন ডলারসহ অনেক সম্পদ আছে বলে দাবি করলেও বাস্তবে মুসার তেমন কিছুই নেই।

গতকাল বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে মুসা, তাঁর স্ত্রী শারমিন চৌধুরী ও ছেলে জুবি হাজ্জাজ একটি গাড়িতে করে ডিবি কার্যালয়ে প্রবেশ করেন। সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত সেখানে কাদেরের মুখোমুখি করে এবং আলাদাভাবে তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। কেন নবম শ্রেণি পাস কাদেরকে মুসা তাঁর আইন উপদেষ্টা নিয়োগ দিলেন, কেন এই প্রতারককে ২০ কোটি টাকার চেক দিলেন এবং কাদেরের সঙ্গে মুসার আর কী ধরনের সম্পর্ক—এসব ব্যাপারে তাঁর কাছ থেকে জানতে চান ডিবির কর্মকর্তারা। জিজ্ঞাসাবাদে কাদেরকে তিনি প্রথমে চিনতে পারেননি দাবি করেন এবং নিজের সম্পদের ব্যাপারে আগের মতোই গল্প করতে থাকেন মুসা।

ডিবির কার্যালয় থেকে বেরিয়ে মুসা সাংবাদিকদের বলেন, ‘কাদের নিজেকে অতিরিক্ত সচিব পরিচয় দিয়ে কার্ড ছাপিয়ে আমার অফিসে আসে, আমার সঙ্গে বিভিন্ন সময় ছবি তুলেছে। সে মাঝে মাঝে বড় বড় লোকের সঙ্গে কথা বলত; তখন আমার বিশ্বাস জন্মাল যে সে অতিরিক্ত সচিব। পরে প্রমাণিত হলো সে অতিরিক্ত সচিব না, সে প্রতারক। আমি তাকে বের করে দিয়েছি। সে জন্মগতভাবে একজন মিথ্যাবাদী। আমিও প্রতারণার শিকার হয়েছি।’



সাতদিনের সেরা