kalerkantho

বুধবার । ১১ কার্তিক ১৪২৮। ২৭ অক্টোবর ২০২১। ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

গায়ে আগুন দেওয়া সেই ছাত্রী মারা গেছেন

নিজস্ব প্রতিবেদক    

১৩ অক্টোবর, ২০২১ ০৫:৩৬ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



গায়ে আগুন দেওয়া সেই ছাত্রী মারা গেছেন

নিজের গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন জ্বালিয়ে দেওয়া সেই দগ্ধ শিক্ষার্থী মারা গেছেন। তাঁর নাম ঈশিতা ইয়াসমিন সিমি (১৯)। তিনি আজিমপুর গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজের এইচএসসি পরীক্ষার্থী। গতকাল মঙ্গলবার সকালে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সিমি মারা যান। 

ইনস্টিটিউটের আবাসিক চিকিৎসক পার্থ শংকর পাল বলেন, মেয়েটির শরীরের ৮০ শতাংশ পুড়ে গেছে। আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সকালে মারা যান তিনি।

মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে জানতে চাইলে ঈশিতার চাচা মিজানুর রহমান বলেন, গত শনিবার রাতে পড়ালেখার জন্য ঈশিতার মা নার্গিস বেগম রাগারাগির একপর্যায়ে তাঁর ছোট ছেলে শাকিলকে মারধর করেন। এই অভিমানে হয়তো ঈশিতা নিজের গায়ে আগুন ধরিয়ে দেন। পরে রাতেই ঈশিতাকে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়। 

পারিবারিক সূত্র জানায়, ঈশিতা কামরাঙ্গীর চর নোয়াগাঁও গ্রামের মো. ইদ্রিসের মেয়ে। তাঁর বাবা গভর্নমেন্ট ল্যাবরেটরি স্কুলের কর্মচারী। সেই সূত্রে তাঁরা স্কুলের কোয়ার্টারেই থাকেন। দুই ভাই এক বোনের মধ্যে ঈশিতা ছিলেন বড়।



সাতদিনের সেরা