kalerkantho

সোমবার । ২ কার্তিক ১৪২৮। ১৮ অক্টোবর ২০২১। ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

দরিদ্র শিশু হৃদরোগীদের বিনামূল্যে ডিভাইস ও বেলুন দেবে এভারকেয়ার হাসপাতাল

অনলাইন ডেস্ক   

২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ২৩:০৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দরিদ্র শিশু হৃদরোগীদের বিনামূল্যে ডিভাইস ও বেলুন দেবে এভারকেয়ার হাসপাতাল

নানা কারণে শিশুদের হৃদরোগ হয়। গর্ভাবস্থায় অনাগত শিশুর হৃদযন্ত্র গঠনগত বা কার্যগত নানা সমস্যা হয়ে জন্মগত হৃদরোগ হতে পারে। তবে সচেতন হলে এই রোগকে অনেকাংশেই প্রতিরোধ করা যায়। জন্মগত হৃদরোগের চিকিৎসা বা হার্টের ছিদ্র সারাতে বিশ্বের অত্যাধুনিক চিকিৎসা এখন বাংলাদেশেই রয়েছে।

এভারকেয়ার হসপিটাল ঢাকার শিশু হৃদরোগ (পেডিয়াট্রিক কার্ডিওলজি) বিভাগ চালু করেছে বিশেষ কর্মসূচি। এর আওতায় সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের ফ্রি ডিভাইস ও বেলুন প্রদানের মাধ্যমে হার্টের জন্মগত ছিদ্র বন্ধের চিকিৎসা প্রদান করা হবে। বিশ্ব হার্ট দিবস উপলক্ষ্যে মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) হাসপাতাল অডিটোরিয়ামে পেশেন্ট ফোরাম আয়োজিত অনুষ্ঠানে এ ঘোষণা দেওয়া হয়।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন এভারকেয়ার হসপিটাল ঢাকার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডা. রত্নদ্বীপ চাস্কার এবং শিশু হৃদরোগ বিভাগের প্রধান ডা. তাহেরা নাজরীন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিল্ডিং টেকনোলজি অ্যান্ড আইডিয়াস লিমিটেডের (বিটিআই) প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, লেখক, গীতিকার আসিফ ইকবাল, ব্যবস্থাপনা পরিচালক এফ আর খান, এসিক্স এর কার্যনির্বাহী অংশীদার আফসানা আসিফ, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষক আসরারুল ইসলাম চৌধুরী। 

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন হাসপাতালের মেডিক্যাল সার্ভিসেস বিভাগের পরিচালক ডা. সানজায় কিশানরাও পাঠারে, উপ-পরিচালক ডা. আরিফ মাহমুদ, চিফ মার্কেটিং অফিসার ভিনয় কাউল, বিজনেস ডেভেলপমেন্ট মহাব্যবস্থাপক আখতার জামিল প্রমুখ। 

এভারকেয়ার হসপিটাল ঢাকার শিশু হৃদরোগ বিভাগের প্রধান ডা. তাহেরা নাজরীন বলেন, শিশু হৃদরোগ চিকিৎসাযোগ্য ও প্রতিরোধযোগ্য। তবে এই রোগ বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধিতে সবার একযোগে কাজ করা উচিত। তিনি জানান, কোনো রকম বাইপাস সার্জারি ছাড়াই ডিভাইস ও বেলুন দ্বারা শিশুদের জন্মগত হার্টের ছিদ্র স্থায়ীভাবে বন্ধ করার আধুনিক চিকিৎসা আমরা দিচ্ছি। 



সাতদিনের সেরা