kalerkantho

সোমবার । ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ৬ ডিসেম্বর ২০২১। ১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

খাদ্যমন্ত্রী বললেন

বাল্যবিয়ে ও মাদকমুক্ত সমাজ গড়তে সংস্কৃতিকর্মীদের ভূমিকা রাখতে হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ১৫:৪৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বাল্যবিয়ে ও মাদকমুক্ত সমাজ গড়তে সংস্কৃতিকর্মীদের ভূমিকা রাখতে হবে

সংস্কৃতিমনা প্রজন্ম গড়ে তোলার ওপর গুরুত্বারোপ করে খাদ্যমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেছেন, বর্তমান সরকার সংস্কৃতি কর্মীদের বিষয়ে আন্তরিক। সংস্কৃতি কর্মীদেরও আন্তরিকতাকে কাজে লাগিয়ে দায়িত্ব পালন করতে হবে। নিজের চিন্তা চেতনাকে স্বচ্ছ রাখার পাশাপাশি বাল্যবিবাহ ও মাদকমুক্ত সমাজ গড়তে সংস্কৃতিকর্মীদের ভূমিকা রাখতে হবে।

আজ বৃহস্পতিবার নওগাঁর সাপাহার উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে উপকারভোগীদের মাঝে প্রণোদনা সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন তিনি। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আব্দুল্যাহ আল মামুনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন উপজেলা চেয়ারম্যান মো. সাহজাহান হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শামসুল আলম চৌধুরী, বীর মুক্তিযোদ্ধা ওমর আলী, সহকারি পুলিশ সুপার বিনয় কুমার সরকার, উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা আমেনা খাতুন প্রমূখ।

অনুষ্ঠানে মন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেন, সুস্থ সংস্কৃতি চর্চা সমাজে শৃংখলা প্রতিষ্ঠায় বিশেষ ভূমিকা রাখে। অপসংস্কৃতি থেকে দেশীয় সংস্কৃতিকে রক্ষার জন্য প্রাতিষ্ঠানিক পড়াশুনার পাশাপাশি নতুন প্রজন্মকে সুস্থ সংস্কৃতি চর্চায় মনোনিবেশ করতে হবে। নতুন প্রজন্মকে দেশের কল্যাণে কাজ করার আহবান জানান তিনি।

মন্ত্রী বলেন, করোনাকালে দেশে খাদ্য সংকট হয়নি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা করোনাকালে ক্ষতিগ্রস্ত সকল সেক্টরে প্রণোদণা দিয়েছেন। মানুষের জীবন জীবিকা স্বাভাবিক রেখেছেন। খাদ্যের অভাব হলে ৩৩৩ নন্বরে ফোন করলে দরিদ্রদের খাদ্য সহায়তা পোঁছে দেওয়া হয়েছে। দরিদ্র মানুষের মোবাইলে সহায়তার টাকা পৌঁছে গেছে নিমিষে। এটাই বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ-শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ বলে তিনি উল্লেখ করেন।

বীর মুক্তিযোদ্ধা সাধন চন্দ্র বলেন, বাল্যবিয়ে প্রতিরোধে জনপ্রতিনিধি, বিবাহ রেজিস্টার ও প্রশাসনকে সোচ্চার হতে হবে। বাল্যবিয়ের কুফল সম্পর্কে সচেতনতা বাড়াতে কাজ করতে হবে।

মাদক সমাজকে পঙ্গু করে দিচ্ছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, যুব সমাজকে রক্ষা করতে মাদককে রুখতে হবে। মাদকের ক্ষেত্রে জিরো টলারেন্স ভূমিকা গ্রহণের জন্য প্রশাসনকে পদক্ষেপ নিতে হবে।

অনুষ্ঠানে মন্ত্রী ৬টি কিশোর কিশোরী ক্লাবে সংগীত ও ক্রীড়া উপকরণ, ১০ জন দুস্থ শিল্পীর মাঝে ২৫ হাজার টাকা অনুদান, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের মাঝে এক হাজার পাঁচশত ফলদ, বনজ ও ঔষধী গাছের চারা, চাষীদের মাঝে কৃষি প্রণোদনা এবং ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত অসহায় দরিদ্র ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের মাঝে ঢেউটিন বিতরণ করেন। পরে তিনি উপজেলা পরিষদ মুক্ত মঞ্চের উদ্বোধন করেন।



সাতদিনের সেরা