kalerkantho

সোমবার । ৯ কার্তিক ১৪২৮। ২৫ অক্টোবর ২০২১। ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

স্থানীয় নির্বাচন নিয়ে বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির মত

'একতরফা নির্বাচনে রাষ্ট্রীয় অর্থ-সময়ের অপচয় হচ্ছে'

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২১ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ১৯:৫৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



'একতরফা নির্বাচনে রাষ্ট্রীয় অর্থ-সময়ের অপচয় হচ্ছে'

স্থানীয় সরকারের একতরফা নির্বাচনে রাষ্ট্রীয় অর্থ ও সময়ের অপচয় হচ্ছে বলে মনে করেন বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক। আজ মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে তিনি বলেছেন, বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ার যে ধারা চালু হয়েছে তাতে আগামীতে হয়তো আনুষ্ঠানিকভাবে নির্বাচন নামক তামাশা আয়োজনেরও আর প্রয়োজন হবে না। রাজনৈতিক দল, নির্বাচনে অংশগ্রহনে ইচ্ছুক প্রার্থী ও ভোটারদের মধ্যে যে অনাগ্রহ তা এই একতরফা নির্বাচনের প্রতি দেশের মানুষের গভীর অনাস্থা ও অবিশ্বাসেরই বহিঃপ্রকাশ।

সাইফুল হক বলেন, সদ্য সমাপ্ত  ১৬০টি ইউনিয়ন পরিষদের মধ্যে ৪৪ জন যদি বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন। আর বিজয়ী ঘোষিত প্রায় সকল প্রার্থী যদি সরকার দলীয় হন তাহলে তাকে নির্বাচন বলার সুযোগ আছে কিনা, তাও এক গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন। বাস্তবে ভোটাররা সরকার, সরকারি দল ও অকার্যকর নির্বাচন কমিশনের এই নির্বাচনী প্রহসনের প্রতি তাদের গণঅনাস্থা ও গণহতাশা নানাভাবেই জানিয়ে দিয়েছে। কিন্তু দুঃখজনক হচ্ছে সরকার ও সরকারি দল এই গণঅনাস্থার অর্থ বুঝতে পুরোপুরি অক্ষম।

বিবৃতিতে তিনি বলেন, নির্বাচনী আয়োজনের চেয়ে এখন সরকারি দলের মনোনয়ন পাওয়াটাই গুরুত্বপূর্ণ। সরকারি দলের প্রার্থী মানেই পাস। এ কারণে সরকারি দলের ভোটারেরাও আর কেন্দ্রে যেয়ে ভোট দেওয়া প্রয়োজন বলে মনে করেন না। তারাও জানেন তারা কেন্দ্রে না গেলেও তাদের দলীয় প্রার্থীরাই বিজয়ী ঘোষিত হবেন। তিনি নির্বাচনের নামে একতরফা ও তামাশাপূর্ণ আয়োজনের বিরুদ্ধে জনগণকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান।



সাতদিনের সেরা