kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ আশ্বিন ১৪২৮। ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৫ সফর ১৪৪৩

শ্রদ্ধা নিবেদনকালে সিপিবির নেতৃবৃন্দ

‘কমরেড জ্ঞান চক্রবর্তী বিপ্লবী আন্দোলনের পথপ্রদর্শক’

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৯ আগস্ট, ২০২১ ১৭:৪৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



‘কমরেড জ্ঞান চক্রবর্তী বিপ্লবী আন্দোলনের পথপ্রদর্শক’

বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)’র সাবেক কেন্দ্রীয় নেতা, ব্রিটিশ বিরোধী সংগ্রামী, ভাষা আন্দোলন ও মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক কমরেড জ্ঞান চক্রবর্তী বিপ্লবী আন্দোলনের পথপদর্শক হিসেবে উল্লেখ করেছেন সিপিবির নেতৃবৃন্দ। তারা বলেছেন, কমরেড জ্ঞান চক্রবর্তী মেহনতি মানুষের মুক্তির জন্য লাল ঝান্ডা নিয়ে নেতৃত্ব দিয়েছেন। কমিউনিস্ট আন্দোলন গড়ে তুলতে ও বিকশিত করতে নিজেকে উৎসর্গ করেছেন। ৭২ বছরের জীবনে তিনি প্রায় ৩৫ বছর জেল ও আত্মগোপনে কাটিয়েছেন। তাঁর অবদান চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে।

আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর পোস্তগোলা শ্মশানঘাটে কমরেড জ্ঞান চক্রবর্তীর স্মৃতিফলকের পাদদেশে ৪৪তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে অনুষ্ঠিত সংক্ষিপ্ত সমাবেশে সিপিবির নেতৃবৃন্দ এসব কথা বলেন। সমাবেশের আগে সিপিবি ও বিভিন্ন গণসংগঠনের নেতৃবৃন্দ কমরেড জ্ঞান চক্রবর্তীর স্মৃতিফলকে পুষ্পার্ঘ অর্পণ করেন। সিপিবির ঢাকা কমিটির সদস্য ও সূত্রাপুর থানা কমিটির সভাপতি আবু তাহের বকুলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সিপিবির প্রেসিডিয়াম সদস্য অনিরুদ্ধ দাশ অঞ্জন, সূত্রাপুর থানা কমিটির সাধারণ সম্পাদক বিকাশ সাহা, সিপিবি নেতা সাইফুল ইসলাম সমীর, গোলাম রাব্বি খান, আনোয়ার হোসেন প্রমুখ।

এ সময় নেতৃবৃন্দ বলেন, মহান ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে এ দেশের প্রতিটি লড়াই-সংগ্রামে কমরেড জ্ঞান চক্রবর্তী অসামান্য অবদান রেখেছেন। মহান মুক্তিযুদ্ধে ন্যাপ-কমিউনিস্ট পার্টি-ছাত্র ইউনিয়নের গেরিলা বাহিনীর সংগঠক হিসেবে তিনি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন। কৃষক আন্দোলন গড়ে তুলতে তিনি যে অবদান রেখেছেন, তা চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে। প্রগতি লেখক সংঘ ও ছাত্র ইউনিয়ন গড়ে তুলতেও তিনি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন।

কমরেড জ্ঞান চক্রবর্তীর মতো মহান বিপ্লবীদের কাছ থেকে শিক্ষা নিয়ে প্রতিদিনের বিপ্লবী কর্মকা- অগ্রসর করার আহ্বান জানিয়ে নেতৃবৃন্দ বলেন, তাঁর বিপ্লবী জীবন ও বিপ্লবী মতাদর্শ অসংখ্য তরুণকে আকৃষ্ট করেছে। বিপ্লবী আন্দোলনের জন্য অসংখ্য নেতা-কর্মীকে গড়ে তুলেছিলেন।



সাতদিনের সেরা