kalerkantho

শনিবার । ৩ আশ্বিন ১৪২৮। ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১০ সফর ১৪৪৩

নওগাঁয় ১০০০ দুস্থ পেল বসুন্ধরার খাদ্য সহায়তা

ফরিদুল করিম ও নাজমুল হুদা, নওগাঁ থেকে   

৬ আগস্ট, ২০২১ ০৩:৪৬ | পড়া যাবে ৫ মিনিটে



নওগাঁয় ১০০০ দুস্থ পেল বসুন্ধরার খাদ্য সহায়তা

নওগাঁর মান্দা উপজেলায় রেবা আখতার আলিম মাদরাসা মাঠে গতকাল বসুন্ধরা গ্রুপের খাদ্যসামগ্রী বিতরণ কার্যক্রমে উপস্থিত ছিলেন জেলা পুলিশ সুপার প্রকৌশলী আবদুল মান্নান মিয়া। ছবি : কালের কণ্ঠ

চোখে ঝাপসা দেখেন, কানেও ঠিকমতো শোনেন না। দেহের চামড়া লেপ্টে আছে হাড়ের সঙ্গে। পেট চলে ভিক্ষার ভাতে। মহামারি আর লকডাউনে তা-ও বন্ধ। এমন অবস্থায় বসুন্ধরা গ্রুপের ত্রাণ পেয়ে নওগাঁ জেলার মান্দা উপজেলার হাজেরা বানু কালের কণ্ঠ শুভসংঘের সদস্যদের বললেন, ‘তোমাঘরক আল্লা সুখে-শান্তিতে থুক।’

একই ধরনের অভিব্যক্তি ছিল আমেরুন বেগমের কণ্ঠেও। তিনি বলেন, ‘তোমাঘরক অনেক দোয়া দিচিন। আল্লা ভালো করবে। মুই এলা ত্রাণ কোনকালে পাইনু। এলা দিয়া মুই ১৫ দিন খাওয়া পামু।’ জমিরুন বেগম নামের এক নারী বলেন, ‘মোক থুইয়ে মোর স্বামী আবার বিয়া করিচে। মোক একন নিজের খাওয়া নিজক জোগাল করা লাগে। মানসে যখন কাম করবা ডাকে তকন খাওয়া জোটে। একন তো কেউ আর কামও দেয় না।’ হেমাদ উদ্দিন বলেন, ‘তোরা মোক এলা সাহায্য দিলি। এলা চাল-ডাল মোক কেউ দেই নাই। আল্লায় তোর বসুন্ধরাক উন্নতি দিক।’

গতকাল নওগাঁর চার উপজেলায় আমেরুন বেগম ও জমিরুন বেগমের মতো এক হাজার অসহায় ও দুস্থ মানুষের মাঝে বসুন্ধরা গ্রুপের ত্রাণ তুলে দেন কালের কণ্ঠ শুভসংঘের বন্ধুরা। স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য বিতরণ করা হয় মাস্কও।
মান্দা উপজেলার রেবা আখতার আলিম মাদরাসা মাঠে ২৫০, নিয়ামতপুর মডেল বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ২৫০, পোরশা উপজেলার নিতপুর সরকারি মডেল উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ১৫০, সরাইগাছীর মোড়ের কাতিপুর কালিনগর উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ১০০ ও সাপাহার উপজেলার পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ২৫০ অসহায় পরিবারের হাতে এই খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়।

মান্দায় খাদ্যসামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে জেলা পুলিশ সুপার প্রকৌশলী আবদুল মান্নান মিয়া বলেন, ‘দেশের ক্রান্তিকালে সরকারের একার পক্ষে সব অসহায় মানুষকে খাদ্য সহায়তা দেওয়া সম্ভব নয়। বসুন্ধরা গ্রুপের মতো বড় বড় শিল্পগোষ্ঠী ও বিত্তশালীরা এগিয়ে এলে আমরা দুস্থদের পাশে দাঁড়াতে পারব।’

মান্দায় খাদ্যসামগ্রী বিতরণ কার্যক্রমে উপস্থিত ছিলেন জেলার সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. মতিয়ার রহমান, উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ মোল্লা মোহাম্মদ এমদাদুল হক, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবু বাক্কার সিদ্দিক, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান গৌতম কুমার মহন্ত, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মাহাবুবা সিদ্দিকা রোমা, থানার ওসি শাহিনুর রহমান, রেবা আখতার আলিম মাদরাসার অধ্যক্ষ আব্দুল গফুর, শুভসংঘের মান্দা উপজেলা সভাপতি শাহাদাত হোসেন, সাধারণ সম্পাদক আকরাম হোসেন, সাংবাদিক জসিম উদ্দিন, রেজাউল ইসলাম, ইব্রাহিম হোসেন, জিল্লুর রহমান, পলাশ চন্দ্র, আব্দুল জব্বার, এ এইচ এম কামরুজ্জামান, মাসুদ রানা, শাহাজান আলী, ইসমাইল হোসেন, খলিলুর রহমান, মোয়াজ্জেম হোসেন, আলম হোসেন ও তরিকুল ইসলাম।

নিয়ামতপুরে উপজেলা চেয়ারম্যান ফরিদ আহম্মেদ বলেন, ‘আমাদের উপজেলায় অসহায় পরিবারকে খাদ্যসামগ্রী দেওয়ায় বসুন্ধরা গ্রুপকে ধন্যবাদ জানাই। ভবিষ্যতে আমরা আপনাদের পাশে চাই। করোনা মহামারিতে দেশব্যাপী আপনাদের এই উদ্যোগ প্রশংসনীয়।’

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জয়া মারিয়া পেরেরা, শুভসংঘের উপজেলা শাখার সভাপতি জামান হোসেন, সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলামসহ শাহজাহান সাজু, জাবেদ আলী, রফিকুল ইসলাম, আব্দুল মতিন, আয়নুক হক, ইমরান হোসেন ও দেলোয়ার হোসেন।

পোরশায় খাদ্যসামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ শাহ মোহাম্মদ মনজুর মোরশেদ চৌধুরী বলেন, ‘আজ আমাদের উপজেলার ছিন্নমূল ২৫০ পরিবারের মাঝে বসুন্ধরা গ্রুপ খাদ্য সহায়তা দিল। তাই আমরা কৃতজ্ঞতা ও আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই।’

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাজমুল হামিদ রেজা বলেন, ‘সারা দেশের দুই লাখ পরিবারের মাঝে তারা (বসুন্ধরা গ্রুপ) খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করছে। আমার জানা মতে, সরকারের পাশাপাশি বসুন্ধরা গ্রুপের মতো আর কেউ এত বড় পরিসরে ত্রাণ বিতরণ করেনি। দেশব্যাপী এমন মহৎ উদ্যোগ নেওয়ার জন্য বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যানকে আমি ধন্যবাদ জানাই।’

অনুষ্ঠানে শুভসংঘের পোরশা উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান সরকার বাবু, স্বেচ্ছাসেবী নুরুজ্জামান, গাজ্জালী সরকার, নাহিদ, মওদুদ আহমেদ প্রমুখ উপস্থিতি ছিলেন।

সাপাহারের ত্রাণ বিতরণ অনুষ্ঠানে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ শাহজাহান হোসেন মণ্ডল বলেন, ‘করোনা মহামারি মোকাবেলায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মানুষের জন্য ত্রাণ সহায়তা দিচ্ছেন। বসুন্ধরা গ্রুপও সারা দেশের দুই লাখ অসহায় পরিবারকে ত্রাণের আওতায় নিয়ে এসেছে। বর্তমান পরিস্থিতিতে এটা বসুন্ধরা গ্রুপের শ্রেষ্ঠ উদ্যোগ। তাই তাদেরকে ধন্যবাদ জানাই। আমরা আশা করি বসুন্ধরা গ্রুপের মতো দেশের অন্যান্য বড় শিল্পগোষ্ঠীও যেন মানুষের সাহায্যে এগিয়ে আসে। যেকোনো ব্যাপারে আমরা বসুন্ধরা গ্রুপকে পাশে পাব, সেই প্রত্যাশা করি।’

অনুষ্ঠানে সদর ইউপি চেয়ারম্যান আকবর আলী, সাপাহার বণিক সমিতির সভাপতি মতিউর রহমান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাসুদ রেজা সারওয়ার, শুভসংঘের নওগাঁ জেলার সহসভাপতি সাব্বির হোসেন, সাপাহার শাখার সভাপতি নুরুল হক মাস্টার, সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সাত্তার, আকরাম হোসেন, আব্দুল আলিম, সেলিম, ফজলুর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এ ছাড়া খাদ্যসামগ্রী বিতরণের সব কার্যক্রমে উপস্থিত ছিলেন কালের কণ্ঠ শুভসংঘের পরিচালক জাকারিয়া জামান, শুভসংঘের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য শরীফ মাহ্দী আশরাফ জীবন, বাংলাদেশ প্রতিদিন ও নিউজ টোয়েন্টিফোরের জেলা প্রতিনিধি বাবুল আখতার রানা এবং শুভসংঘের উত্তরা ইউনিভার্সিটির সাবেক সভাপতি আলমগীর হোসেন রনি।



সাতদিনের সেরা