kalerkantho

শনিবার । ৯ শ্রাবণ ১৪২৮। ২৪ জুলাই ২০২১। ১৩ জিলহজ ১৪৪২

মতবিনিময়সভা

নারীর প্রতি সহিংসতায় অপরাধ ও ক্ষমতা একত্রে চলছে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৫ জুলাই, ২০২১ ০১:৫৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নারীর প্রতি সহিংসতায় অপরাধ ও ক্ষমতা একত্রে চলছে

নারীর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধে প্রধানমন্ত্রীর গৃহীত নানা পদক্ষেপের ফলেও এই সহিংসতা কমছে না। নারীর প্রতি সহিংসতাকে জাতীয় ইস্যু হিসেবে দেখতে হবে। 

অপরাধ ও ক্ষমতা একত্রে চলতে থাকলে নারীকে মানুষ হিসেবে ভাবার মতো পরিবার বা সমাজ তৈরি করা কখনোই সম্ভব নয়। তাই নারীর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধে সমন্বিত রূপরেখা তৈরি ও বাস্তবায়নের উদ্যোগ গ্রহণ, সহিংসতার ঘটনা সংসদে উত্থাপন, সাইবার অপরাধ দমন, ঘটনা প্রতিরোধে দ্রুত আইনি বিচার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা এবং কতটা লক্ষ্যে পৌঁছানো গেল সেটিও দেখতে হবে।

গতকাল বুধবার বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের উদ্যোগে ‘নারী ও কন্যার প্রতি সহিংসতা : প্রতিকারের সমন্বিত পদক্ষেপ’ শীর্ষক এক মতবিনিময়সভায় এসব কথা বলেন সংগঠনের সভাপতি ডা. ফওজিয়া মোসলেম। মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সঙ্গে অনলাইনে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় স্বাগত বক্তব্য দেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মালেকা বানু। অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী (সাবেক) এবং এই মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি বেগম মেহের আফরোজ, সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য মো. আব্দুল আজিজ ও সদস্য বেগম শবনম জাহান।

মালেকা বানু জানান, সরকারি ও বেসরকারিভাবে সহিংসতা প্রতিরোধে নানামুখী পদক্ষেপ নেওয়া হলেও সামগ্রিকভাবে নারীর মানবাধিকার রক্ষা চ্যালেঞ্জ হিসেবে দাঁড়িয়েছে। 

মেহের আফরোজ জানান, বাল্যবিয়ে প্রতিরোধে নারীদের অর্থনৈতিকভাবে স্বাবলম্বী হতে হবে। সহিংসতা প্রতিরোধে সংসদীয় স্ট্যান্ডিং কমিটির সদস্যদের ও মহিলা পরিষদকে একত্রে কাজ করার আহ্বান জানান তিনি।

সংসদ সদস্য শবনম জাহান সব অপরাধীকে বিচারের আওতায় এনে ১৮০ দিনের মধ্যে মামলা নিষপত্তির দাবি জানান। 

সভায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটির সহসভাপতি ও ভারপ্রাপ্ত আন্দোলন সম্পাদক রেখা চৌধুরী।



সাতদিনের সেরা