kalerkantho

শনিবার । ৯ শ্রাবণ ১৪২৮। ২৪ জুলাই ২০২১। ১৩ জিলহজ ১৪৪২

ব্যারিস্টার কামাল-উল আলম নতুন চেয়ারম্যান

পিপলস লিজিং পরিচালনা পর্ষদ গঠন করে দিলেন হাইকোর্ট

নিজস্ব প্রতিবেদক    

১৩ জুলাই, ২০২১ ১৪:৪৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পিপলস লিজিং পরিচালনা পর্ষদ গঠন করে দিলেন হাইকোর্ট

অবসায়নের প্রক্রিয়ায় থাকা নন-ব্যাংকিং আর্থিক প্রতিষ্ঠান পিপলস লিজিং অ্যান্ড ফিন্যানশিয়াল সার্ভিসেস (পিএলএফএস) লিমিটেড পরিচালনার জন্য একটি পরিচালনা পর্ষদ গঠন করে দিয়েছেন হাইকোর্ট।

সুপ্রিম কোর্টের জ্যেষ্ঠ আইনজীবী ব্যারিস্টার কামাল-উল আলমকে চেয়ারম্যান এবং আনসার ভিডিপি উন্নয়ন ব্যাংকের সাবেক এমডি মোহাম্মদ জালাল উদ্দিনকে ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) করে ১০ সদস্যের এই বোর্ড গঠন করা হয়েছে।

বোর্ডের অপর আট সদস্য হলেন সাবেক সচিব আনোয়ারুল ইসলাম সিকদার, সাবেক জ্যেষ্ঠ জেলা ও দায়রা জজ হাসান শাহীদ ফেরদৌস, পূবালী ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) আব্দুল হালিম চৌধুরী, বিগ্রেডিয়ার জেনারেল (অবসরপ্রাপ্ত) কাজী তৌফিকুল ইসলাম, নূর-এ-খোদা আব্দুল মবিন এফসিএ, মওলা মোহাম্মদ এফসিএ, সঞ্চয়কারীদের প্রতিনিধি ড. নাশিদ কামাল এবং নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিন্যান্স বিভাগের চেয়ারম্যান ড. নুরুল কবির।

পিপলস্ লিজিং যাতে আবারো কার্যকর হয়ে ওঠে সেজন্য পুনর্গঠিত বোর্ড চেয়ারম্যান ও সদস্য, বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর, দুর্নীতি দমন কমিশন, পিপলস লিজিং-এর ঋণগ্রহীতাসহ সংশ্লিষ্টদের প্রতি কয়েক দফা নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। একইসঙ্গে আগামী ২২ আগস্ট পরবর্তী আদেশের জন্য দিন ধার্য করা হয়েছে।

বিচারপতি মুহাম্মদ খুরশীদ আলম সরকারের হাইকোর্টের কম্পানি বেঞ্চ সোমবার এ আদেশ দিয়েছেন।

এর আগে গত ২৮ জুন এ আদালত পরিচালনা পর্ষদ পুনর্গঠনের সিদ্ধান্ত জানিয়েছিলেন। পিপলস লিজিং-এ আমানতকারীদের আবেদনে এ আদেশ দেন হাইকোর্ট। আবেদনকারীর পক্ষে আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট আহসানুল করিম। বাংলাদেশ ব্যাংকের পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার তানজিব-উল আলম। পিপলস লিজিং এর সাময়িক অবসায়কের পক্ষে আইনজীবী ছিলেন ব্যারিস্টার মেজবাহুর রহমান।

অবসায়নের লক্ষে বাংলাদেশ ব্যাংক ২০১৯ সালের জুলাইয়ে সাময়িক অবসায়ক (প্রবেশনাল লিক্যুডেটর) হিসেবে মো. আসাদুজ্জামান খানকে নিয়োগ দেওয়া হয়। তাঁর করা এক আবেদনের ওপর শুনানিকালে পিপলস লিজিং-এর প্রায় ৫০০ জনের বেশি ঋণগ্রহীতার একটি তালিকা হাইকোর্টে দাখিল করা হয়। এর পর পাঁচ লাখ টাকা এবং তার ওপরে নেওয়া ঋণগ্রহীতাদের মধ্যে যারা খেলাপি  হয়েছে এমন ২৮০ জনকে তলব করে হাইকোর্ট। তাঁদেরকে হাজির হয়ে ঋণ গ্রহণের বিষয়ে ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়।

এরই ধারাবাহিকতায় গত ২১ জুন ২০১ জন আমানতকারী প্রতিষ্ঠানটি অবসায়ন না করে পুনর্জীবিত করার নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করেন। এই আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে হাইকোর্ট নতুন পরিচালনা পর্ষদ নিয়োগ দিলেন।



সাতদিনের সেরা