kalerkantho

শনিবার । ১৬ শ্রাবণ ১৪২৮। ৩১ জুলাই ২০২১। ২০ জিলহজ ১৪৪২

মশার লার্ভা: ওয়াসা ও গণপূর্তের ৩ ভবনসহ ১৭ ভবনকে জরিমানা

অনলাইন ডেস্ক   

১২ জুলাই, ২০২১ ২০:২৪ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



মশার লার্ভা: ওয়াসা ও গণপূর্তের ৩ ভবনসহ ১৭ ভবনকে জরিমানা

ওয়াসা ও গণপূর্ত মালিকানাধীন ৩ ভবনসহ মোট ১৭টি ভবনকে সাড়ে তিন লক্ষাধিক টাকা জরিমানা করেছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন পরিচালিত ৬ ভ্রাম্যমাণ আদালত।

এডিস মশার লার্ভা নিয়ন্ত্রণে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ঢাদসিক) ৫ জন আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা (আনিক) ও করপোরেশনের সম্পত্তি বিভাগের একজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালতগুলো পরিচালনা করা হয়েছে। অভিযানকালে ভ্রাম্যমাণ আদালতসমূহ ১৯৯টি ভবন ও নির্মাণাধীন স্থাপনা পরিদর্শন করেন এবং ১৭টি ভবনে মশার লার্ভা পাওয়ায়  সর্বমোট ১৭ মামলায়  ৩ লক্ষ ৫৭ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন।

আজ সোমবার (১২ জুলাই) করপোরেশনের ২-৫ ও ১০ নম্বর অঞ্চলের আনিকবৃন্দ ও সম্পত্তি বিভাগের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তানজিলা কবির ত্রপার নেতৃত্বে নগরীর এলিফ্যান্ট রোড, সেন্ট্রাল রোড, মতিঝিল, হাজারীবাগ, কদমতলী, দনিয়া ও দক্ষিণ যাত্রাবাড়ী এলাকায় এসব অভিযান পরিচালনা করা হয়।

অঞ্চল-১ এর আনিক মেরীনা নাজনীন ১৮ নম্বর ওয়ার্ডের এলিফ্যান্ট রোড ও সেন্ট্রাল রোড এলাকায় অভিযান পরিচালনা করেন। অভিযানকালে তিনি ৩০টি স্থাপনা পরিদর্শন করেন এবং ১টি বাড়ি ও দুটি নির্মাণাধীন ভবনে মশার লার্ভা পাওয়ায় ১ লক্ষ ৬০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন।

অঞ্চল-২ এর আনিক সুয়ে মেন জো'র তত্ত্বাবধানে করপোরেশনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তানজিলা কবির ত্রপা ১০ নং ওয়ার্ডের  মতিঝিল এজিবি কলোনি সংলগ্ন এলাকার ৫০ টি ভবন পরিদর্শন করেন। এ সময় রাজারবাগ পুলিশ লাইনস্থ টেলিকম ভবনের বিপরীত পাশে ওয়াসা ও গনপূর্তের নির্মাণাধীন ৩টি ভবনে মশার লার্ভা পাওয়ায় ভবনগুলোর নির্মাণ কার্যক্রমে সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে ৩ মামলায় ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।

অঞ্চল-৩ এর আনিক বাবর আলী মীর ১৪ নম্বর ওয়ার্ডের হাজারীবাগ ট্যানারি এলাকায় অভিযান পরিচালনা করেন। অভিযানকালে তিনি ১৫টি স্থাপনা পরিদর্শন করেন এবং গ্রীন এগ্রো ট্যানারি'তে মশার লার্ভা পাওয়ায় ট্যানারি মালিককে ১টি মামলায় ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

অঞ্চল-৪ এর আনিক মো. হায়দর আলী কাজী আলাউদ্দিন রোড ২৫টি বাড়ি ও নির্মাণধীন ভবন পরিদর্শন করেন। এ সময় আজাহার মার্কেটের বেজমেন্টে মশার লার্ভা পাওয়ায় ৫০ হাজার এবং একটি বাড়ির ছাদে লার্ভা পাওয়ায় ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেন। এছাড়াও ২২টি বাড়ির মালিককে ছাদে জমে থাকা পানি ও ময়লা আবর্জনা পরিষ্কারের জন্য নির্দেশনা প্রদান করেন।    

অঞ্চল ৫ এর আনিক মোহাম্মদ সাখাওয়াত হোসেন সরকার ৫০ নং ওয়ার্ডের দক্ষিণ যাত্রাবাড়ী এলাকায় ২০টি বাসাবাড়ি ও নির্মাণাধীন ভবন পরিদর্শন করেন। এ সময় ১টি বাড়ি ও ১টি দোকানে লার্ভা পাওয়ায় ২ মামলায় ৭ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন।

অঞ্চল-১০ এর আনিক মোহাম্মদ মামুন মিয়া জনতাবাগ, দনিয়া ও কদমতলী এলাকায় অভিযান পরিচালনা করেন। অভিযানকালে আদালত ৫৯টি স্থাপনা পরিদর্শন করেন এবং ৬টি ভবনে মশার লার্ভা পাওয়ায় ১৪ হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা আদায় করেন।



সাতদিনের সেরা