kalerkantho

শনিবার । ১৬ শ্রাবণ ১৪২৮। ৩১ জুলাই ২০২১। ২০ জিলহজ ১৪৪২

মডার্নার টিকাদান কাল থেকে শুরু

দিনে নিবন্ধন সাড়ে তিন লাখের বেশি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১২ জুলাই, ২০২১ ০৩:২৪ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



মডার্নার টিকাদান কাল থেকে শুরু

ঢাকার ৪০টি কেন্দ্রসহ অন্যান্য সিটি করপোরেশন এলাকার কেন্দ্রগুলোতে আগামীকাল মঙ্গলবার থেকে মডার্নার টিকা দেওয়া শুরু হবে। আগে যাঁরা নিবন্ধন করেছেন তাঁদের আর নতুন করে এসএমএস লাগবে না। তাঁদের নির্দিষ্ট কেন্দ্রে গিয়ে আগের এসএমএস দেখিয়ে টিকা নেওয়া যাবে। কোনো অবস্থাতেই এখন আর কেন্দ্র পরিবর্তন করে টিকা নেওয়ার সুযোগ নেই।

এ ছাড়া যাঁরা আগে নিবন্ধন করেননি তাঁদের নিবন্ধন করে নির্দিষ্ট তারিখে ও কেন্দ্রে টিকা দিতে হবে। তারিখের আগে-পরে করা যাবে না। এ বিষয়গুলো মনে রাখা সবার জন্য খুবই জরুরি।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক (ইপিআই) ডা. শামসুল হক গতকাল রবিবার বিশেষ বুলেটিনে এসব তথ্য জানান।

ওই কর্মকর্তা বলেন, টিকার আওতা বাড়িয়ে ৩৫ বছর পর্যন্ত করা হয়েছে। সুরক্ষা অ্যাপের মাধ্যমে এখন ৩৫ বছর ও এর বেশি বয়সীরা টিকার জন্য নিবন্ধন করতে পারছেন। নিবন্ধনের পর এসএমএস দেওয়া হবে এবং তারপর নির্দিষ্ট দিনে নির্দিষ্ট কেন্দ্রে গিয়ে টিকা নিতে হবে। তিনি জানান, ঢাকার চারটি মেডিক্যাল কলেজ ও তিনটি বিশেষায়িত হাসপাতালে ফাইজারের টিকা দেওয়া হচ্ছে। এটা চলতে থাকবে। এসব কেন্দ্রে ফাইজারের টিকা শেষ হওয়ার পর মডার্নার টিকা দেওয়া হবে। এ ছাড়া ঢাকায় বাকি যে ৪০টি টিকাদান কেন্দ্র আছে সেখানে অন্য সব সিটি করপোরেশন এলাকার মতোই আগামীকাল ১৩ জুলাই থেকে মডার্নার টিকা দেওয়া শুরু হবে। এরই মধ্যে ঢাকার বাইরে সিটি করপোরেশন এলাকায় ওই টিকা চলে গেছে। এ ছাড়া সৌদি আরব, কুয়েতসহ যেসব দেশে চীনের টিকা নিয়ে সমস্যা ছিল সেসব দেশে যাঁরা যাবেন তাঁদের ফাইজারের টিকা দেওয়া হচ্ছে। তাঁদের মডার্নার টিকাও দেওয়া যাবে। কারণ ওই দেশগুলোতে মডার্নার টিকার সনদও গ্রহণ করা হচ্ছে। ফলে ঢাকার বাইরের বিদেশগামী শ্রমিকরা যাঁর যাঁর অঞ্চলের সিটি করপোরেশন এলাকার কেন্দ্রে গিয়েই টিকা নিতে পারবেন। তাঁদের টিকা নিতে ঢাকায় আসতে হবে না। আর সিটি করপোরেশনের বাইরে সারা দেশে দেওয়া হবে চীনের সিনোফার্মের টিকা।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য অনুসারে গতকাল দুপুর পর্যন্ত দেশে করোনার টিকার জন্য নিবন্ধন করেছেন মোট ৯০ লাখের বেশি মানুষ। এর মধ্যে চলতি দফায় গত বুধবার থেকে গতকাল পর্যন্ত পাঁচ দিনে নিবন্ধন করেছেন প্রায় ১৮ লাখ মানুষ। অর্থাৎ দিনে সাড়ে তিন লাখের বেশি মানুষ নিবন্ধন করছেন টিকার জন্য। এর মধ্যে কয়েক দিন ধরে প্রতিদিন সিনোফার্ম ও ফাইজার মিলিয়ে ৪৫ হাজার মানুষকে টিকা দেওয়া হয়।



সাতদিনের সেরা