kalerkantho

শনিবার । ১৬ শ্রাবণ ১৪২৮। ৩১ জুলাই ২০২১। ২০ জিলহজ ১৪৪২

যৌতুক চাওয়ার অভিযোগে মামলায়

হাইকোর্ট থেকে জামিন পেলেন শরীয়তপুর হাসপাতালের ডা. স্বপন

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৫ জুলাই, ২০২১ ১৫:৩৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



হাইকোর্ট থেকে জামিন পেলেন শরীয়তপুর হাসপাতালের ডা. স্বপন

যৌতুক চাওয়ার অভিযোগে স্ত্রীর করা মামলায় হাইকোর্ট থেকে ছয় মাসের জামিন পেলেন শরীয়তপুর সদর হাসপাতালের কারাবন্দি চিকিৎসক মো. মোস্তাফিজুর রহমান স্বপন। বিচারপতি জে বি এম হাসানের হাইকোর্ট বেঞ্চ সোমবার ওই চিকিৎসকের জামিন মঞ্জুর করে আদেশ দেন। জামিন আবেদনকারীর পক্ষে আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট ড. মমতাজ উদ্দিন আহমেদ মেহেদী ও অ্যাডভোকেট মো. ইলিয়াস হোসেন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল তুষার কান্তি রায়।

জানা যায়, গত ৪ মার্চ ডা. মো. মোস্তাফিজুর রহমান স্বপন ও তার স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া হয়। এ ঘটনার পর গত ৪ মে ৫০ লাখ টাকা যৌতুক চাওয়ার অভিযোগে মো. মোস্তাফিজুর রহমান স্বপনের বিরুদ্ধে মামলা করেন তার স্ত্রী। তবে মো. মোস্তাফিজুর রহমান স্বপনের আইনজীবী আদালতে জামিন আবেদনের ওপর শুনানিকালে দাবি করেন, স্ত্রীকে তালাক দেওয়ার পর যৌতুকের মামলা করা হয়েছে। তিনি বলেন, ঘটনা ঘটেছে ৪ মার্চ। ঘটনার পর ৬ মার্চ স্ত্রীকে তালাক দেওয়া হয়েছে। এরও প্রায় দুই মাস পর যৌতুকের মামলা করা হয়েছে। তিনি বলেন, এই ডাক্তার একজন করোনাযোদ্ধা। ২৫তম বিসিএস উত্তীর্ণ হয়ে সরকারি চিকিৎসক হিসেবে কর্তব্যরত আছেন।

জামিন আবেদনের বিরোধিতা করে রাষ্ট্রপক্ষে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল তুষার কান্তি রায় আদালতে বলেন, নথিপত্রে দেখা যায়, এই ডাক্তার তার স্ত্রীকে মারধর করেছেন। তিনি বলেণ, যৌতুকের অভিযোগের মামলার আগে একটি জুডিশিয়াল অনুসন্ধান হয়েছে। তাতে অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পাওয়া গেছে। এরপর মামলা রেকর্ড হয়েছে।

এই শুনানিকালে চিকিৎসককে উদ্দেশ্য করে আদালত বলেন, আপনি একজন শিক্ষিত মানুষ। আপনার বিরুদ্ধে যৌতুক চাওয়ার অভিযোগ উঠবে কেন? আপনার বিরুদ্ধে এসব অভিযোগ আসবে কেন? আপনি একজন ব্যর্থ স্বামী।



সাতদিনের সেরা