kalerkantho

বুধবার । ২০ শ্রাবণ ১৪২৮। ৪ আগস্ট ২০২১। ২৪ জিলহজ ১৪৪২

অসুস্থ শাশুড়িকে দেখতে নাটোর যাচ্ছিলেন জাহিদুল, পথেই গেল প্রাণ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৬ জুন, ২০২১ ২১:৪৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অসুস্থ শাশুড়িকে দেখতে নাটোর যাচ্ছিলেন জাহিদুল, পথেই গেল প্রাণ

মো. জাহিদুল ইসলাম (বাঁয়ে) ও তার স্ত্রী।

অসুস্থ শাশুড়িকে দেখতে রাজধানী থেকে মোটরসাইকেল যোগে নাটোর যাওয়ার পথে বাস চাপায় মো. জাহিদুল ইসলাম (২৯) নামের  ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের এক স্টাফ নার্স নিহত হয়েছেন। বুধবার দুপুরের দিকে নবীনগর এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। মৃত ঝালকাঠি সদর উপজেলার সিরজো গ্রামের মো. সিরাজুল ইসলামের ছেলে। বর্তমানে চাকরির সুবাদে ঢাকার হাজারীবাগ এলাকায় স্ত্রী মনিরাকে থাকতেন। তাদের আট মাসের একটি পুত্র সন্তান রয়েছে।

নিহতের ছোট ভাই মো, জিয়াফুল ইসলাম জীবন জানান, তার ভাইয়ের শশুর বাড়ি নাটোর জেলায়। তার অসুস্থ শাশুড়িকে দেখতে নাটোরের উদ্দেশ্যে সকালে বাসা থেকে মোটরসাইকেল নিয়ে বের হয়েছেন। পরে সংবাদ পান তিনি সাভারের নবীনগর এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় শিকার হয়েছেন। এরপর সেখান থেকে বিকালে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে আসেন স্বজনরা। এখানে চিকিত্সক পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর তাকে মৃত ঘোষণা করেন। 

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, স্বামী-স্ত্রী দুজনই একসঙ্গে করোনাকালীন ২০২০ সালে চাকরিতে যোগ দেন। এরপর থেকে দুজনেই ঢামেক হাসপাতালের স্টাফ নার্স হিসেবে কর্মরত ছিলেন। দুই ভাই এক বোনের মধ্যে জাহিদুল ছিল সবার বড়।

সন্ধ্যার দিকে ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ ফাড়ির ইনচার্জ মো. বাচ্চু মিয়া বলেন, জাহিদুলের মরদেহ ঢামেক হাসপাতাল মর্গে ময়নাতদন্তের জন্য রাখা হয়েছে। তার কর্মস্থলের সহকর্মীরা এসে শেষ দেখা দেখে যাচ্ছেন। 

সাভার থানার ওসি কাজী মাইনুল ইসলাম বলেন, আমাদের কাছে এ ধরনের কোনো অভিযোগ আসেনি। আসলে আমরা তা খতিয়ে দেখবো।



সাতদিনের সেরা