kalerkantho

বুধবার । ৯ আষাঢ় ১৪২৮। ২৩ জুন ২০২১। ১১ জিলকদ ১৪৪২

বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী বললেন

২০৪১ সালের মধ্যে নবায়নযোগ্য জ্বালানি হতে ৪০ শতাংশ বিদ্যুৎ আসবে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২ জুন, ২০২১ ২০:০৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



২০৪১ সালের মধ্যে নবায়নযোগ্য জ্বালানি হতে ৪০ শতাংশ বিদ্যুৎ আসবে

বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেছেন, জ্বালানি মিশ্রণে ক্লিন ও গ্রিন জ্বালানির অংশ উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পাচ্ছে। পাওয়ার সিষ্টেম মাস্টারপ্ল্যান অনুসারে ২০৪১ সালের মধ্যে নবায়নযোগ্য জ্বালানি হতে ৪০ শতাংশ বিদ্যুৎ আসবে। ইতোমধ্যে ৫৮ লাখ সোলার হোম সিস্টেমের মাধ্যমে ২ কোটি গ্রামীণ গ্রাহককে বিদ্যুতায়নের আওতায় আনা হয়েছে।

বুধবার ‘বাংলাদেশ-যুক্তরাজ্য ক্লাইমেট পার্টনারশীপ’ শীর্ষক গোল টেবিল বৈঠকে বক্তব্যকালে প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।
তিনি বলেন, টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যকে প্রাধান্য দিয়ে আমাদের পরিকল্পনা ও কৌশল গৃহীত হয়েছে।  নবায়ণযোগ্য জ্বালানির প্রসারে গবেষণার জন্য বাংলাদেশ জ্বালানি ও বিদ্যুৎ গবেষণা কাউন্সিল এবং জ্বালানি দক্ষতা অর্জন ও নবায়ণযোগ্য  জ্বালানির ব্যবস্থার উন্নয়নের লক্ষ্যে টেকসই ও নবায়ণযোগ্য জ্বালানি উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ গঠন করা হয়েছে।

প্রতিমন্ত্রী এসময় আরো বলেন, বাংলাদেশে নবায়নযোগ্য জ্বালানির সৌরশক্তি বা সৌর বিদ্যুতের সম্ভাবনা বেশি। কিন্তু জমির স্বল্পতার জন্য বড় আকারে সৌরবিদ্যুৎ কেন্দ্র করা সম্ভব হচ্ছে না। স্বল্প জমিতে বেশি সৌর বিদ্যুৎ উৎপাদন করা সম্ভব এমন প্রযুক্তি উদ্ভাবনে উন্নত দেশের সাথে একযোগে কাজ করা যেতে পারে।

গত ১২ এপ্রিল Second Virtual Ministerial Meeting of the COP26 Energy Transition Council (COP26 ETC) এবং গত ৪ ডিসেম্বর ২০২০ তারিখে অনুষ্ঠিত ‘First Round of Energy Transition Council Dialogues’ এর অংশ গ্রহণ করার প্রেক্ষিতে নসরুল হামিদ বলেন, পরিবেশ বান্ধব বিদ্যুৎ ও জ্বালানির ব্যবহার বাড়াতে যুক্তরাজ্য বৈশ্বিক পর্যায়ে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছে। বাংলাদেশে নবায়ণযোগ্য জ্বালানির অংশ বাড়াতে অব্যাহত গবেষণা করছে। বায়ু বিদ্যুৎ, ওশান রিনিউবল এনার্জি, বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ, ইলেকট্রনিক ভেহিক্যাল ইত্যাদি আগামীর জ্বালানি মিশ্রনে ব্যাপক অবদান রাখবে।

ভার্চুয়াল এই সভায় অন্যান্যের মাঝে সিওপি২৬-এর প্রেসিডেন্ট অলোক শর্মা এমপি, পররাস্ট্র মন্ত্রী ড. এ.কে. আব্দুল মোমেন এমপি, পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মোঃ শাহাব উদ্দিন এমপি, পররাস্ট্র প্রতিমন্ত্রী মোঃ শাহ্‌রিয়ার আলম এমপি, ক্লাইমেট ভালনারেবল ফোরাম (সিভিএফ)-এর থিমেটিক অ্যাম্বাসেডর সায়মা ওয়াজেদ, যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার সাদিয়া মুনা তাসনিম সংযুক্ত থেকে বক্তব্য রাখেন।



সাতদিনের সেরা