kalerkantho

শুক্রবার । ১১ আষাঢ় ১৪২৮। ২৫ জুন ২০২১। ১৩ জিলকদ ১৪৪২

আওয়ামী লীগের দপ্তর ও সহ-দপ্তর সম্পাদকদের মতবিনিময় সভা

‘আজকের যুগে যার কাছে যত তথ্য সে তত শক্তিশালী’

অনলাইন ডেস্ক   

২ জুন, ২০২১ ১৬:২৯ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



‘আজকের যুগে যার কাছে যত তথ্য সে তত শক্তিশালী’

আজ বিকাল ৩:৩০ মিনিটে  ভিডিও কনফারেন্সে (Zoom) বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দপ্তর ও উপ-দপ্তর সম্পাদকের সাথে রংপুর  বিভাগের সাংগঠনিক জেলাসমূহের ( রংপুর, রংপুর মহানগর, দিনাজপুর, পঞ্চগড়,  ঠাকুরগাঁও,নীলফামারি, কুড়িগ্রাম, লালমনিরহাট ও গাইবান্ধা জেলা) দপ্তর ও সহ-দপ্তর সম্পাদকদের এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দপ্তর বিভাগ থেকে ধাপে ধাপে ৮টি বিভাগের জেলাসমূহের দপ্তর ও সহ-দপ্তর সম্পাদকদের সাথে এই সভার আয়োজন করা হচ্ছে।

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কাজের ব্যবস্থাপনায়  তথ্য ও প্রযুক্তির ব্যবহার নিয়ে আলোচনা করা হয়। ২০০৮ সালে ক্ষমতাসীন হওয়ার পর  প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের পরামর্শে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে করছেন। সভায় বর্তমান যুগে তথ্য প্রযুক্তির গুরুত্ব তুলে ধরে আলোচনা শুরু করা হয়।

বক্তাদের কথার মূলভাব ছিল- 'Information is power'। আজকের যুগে যার কাছে যত তথ্য সে তত বেশি শক্তিশালী। তাই তথ্যের আদান-প্রদান যত দ্রুত ও দক্ষভাবে হবে কাজের গতিশীলতা তত বৃদ্ধি পাবে। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে তথ্য পেলে যার উপযোগিতা বেশী থাকে এবং তার কার্যকারিতাও বেশি থাকে। তবে তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবহারের ক্ষেত্রেও কিছু ঝুঁকি রয়েছে। একইসাথে ঝুঁকি নিয়ে সতর্ক থাকার জন্যও নেতৃবৃন্দকে আহ্বান জানানো হয়েছে।

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া নেতৃবৃন্দের প্রতি বলেন,  বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ বাংলাদেশের সর্বপ্রাচীন রাজনৈতিক দল। প্রাচীনতার পাশাপাশি দলটি সময়ের ইতিবাচক পরিবর্তনে সর্বদা নেতৃত্ব দিয়ে আসছে। সে দিক থেকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ একটি আধুনিক রাজনৈতিক দলও। আমাদের দলের মাননীয় সভাপতি বঙ্গবন্ধুকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা ইতোমধ্যে  দলীয় কাজের ব্যবস্থাপনায় তথ্য-প্রযুক্তির ব্যবহার জোরদার করার নির্দেশ প্রদান করেছেন।  একইসাথে যে কোন বিষয়ে সহযোগিতা বা সাংগঠনিক বিষয় বোঝার জন্য নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে যোগাযোগের আহ্বান জানান তিনি। এরপর সভায় বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক সায়েম খান।

এছাড়াও করোনা পরিস্থিতির মধ্যে মানুষের মাঝে অর্থ সহায়তা ও খাদ্য সহায়তা নিয়ে আলোচনা হয়।  জেলা নেতৃবৃন্দ জানায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কতৃক প্রদত্ত মাস্ক ও অক্সিজেন সিলিন্ডার বিতরণ করা হয়েছে এবং অসহায়-দুস্থ মানুষের মাঝে খাদ্য সহায়তা প্রদান করা হচ্ছে। সভা থেকে রংপুর বিভাগে কোভিড পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে মানুষের মধ্যে সচেতনতা তৈরিতে কাজ করতে এবং স্বাস্থ্য সুরক্ষা বিধি মেনে চলার আহ্বান জানানো হয়।

আওয়ামী লীগের গবেষণা প্রতিষ্ঠান সেন্টার ফর রিসার্চ এন্ড ইনফরমেশন (সি আর আই)-এর পক্ষ থেকে সভা পরিচালনায় কারিগরি সহায়তা প্রদান করা হয়। সি আর আই এর পক্ষ থেকে প্রতিষ্ঠানটির কো-অর্ডিনেটর  তন্ময় আহমেদ এবং ডাটাবেইজ টিমের সদস্য নূরুল আলম পাঠান মিলন সভায় সংযুক্ত ছিলেন। এছাড়া সভায় রংপুর বিভাগের জেলাসমূহের সংযুক্ত দপ্তর ও উপ-দপ্তর সম্পাদকবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।



সাতদিনের সেরা