kalerkantho

সোমবার । ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮। ১৪ জুন ২০২১। ২ জিলকদ ১৪৪২

রোজিনা ইস্যুতে বিএনপি ফায়দা লুটতে চায় : সেতুমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক   

২৫ মে, ২০২১ ১৯:২৮ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



রোজিনা ইস্যুতে বিএনপি ফায়দা লুটতে চায় : সেতুমন্ত্রী

বিএনপি নামক দলটি সবক্ষেত্রেই ব্যর্থ হয়ে এখন সাংবাদিক রোজিনা ইসলাম ইস্যুতে ভর করে ফায়দা লুটবার অপচেষ্টা করছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

আজ মঙ্গলবার সকালে সচিবালয়ে সাংবাদিক নেতৃবৃন্দের সাথে সমসাময়িক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে মতবিনিময়কালে তিনি এসব কথা বলেন।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, রোজিনা ইস্যুকে কেন্দ্র করে যারা এদেশে বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতাকে বারবার আঘাত করেছে এবং রাষ্ট্রবিরোধী মামলাও করেছে তারাই এখন মায়াকান্না করছে।

রোজিনা ইস্যুটি প্রধানমন্ত্রী অত্যন্ত মানবিকভাবে দেখছেন জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, তাকে রিমান্ডে নেওয়া উচিত নয়, সে বিষয়টি প্রধানমন্ত্রী উপলব্ধি করেছেন। আদালত যথাযথ সিদ্ধান্তই নিয়েছে, তার জামিনে সরকার পক্ষ কোনো বিরোধিতা করেনি।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার সাংবাদিক বান্ধব সরকার উল্লেখ করে তিনি বলেন, সরকার এমন কোনো কিছু করবে না, যা সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে যায়। গণমাধ্যমের সঙ্গে সরকারের বৈরিতা হোক, বৈরী সম্পর্ক হোক এটা আমরা চাই না। আমরা কোনো সংঘর্ষ চাই না। আমরা চাই সবার সঙ্গে একটি সুসম্পর্ক থাকুক। এটি সরকারের জন্য ভালো, গণমাধ্যমের জন্যও সুখকর।

সাংবাদিক নেতাদের সঙ্গে কী বিষয়ে আলোচনা হয়েছে- জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, সাংবাদিক রোজিনা ইসলাম এবং সংবাদপত্র শিল্প নিয়ে, কিছু বিষয় নিয়ে, অধিকার নিয়ে, দাবি-দাওয়া নিয়ে সরকারের সঙ্গে আলোচনার কিছু বিষয় আছে। এগুলো আমাকে পার্টির জেনারেল সেক্রেটারি হিসেবে তারা অবহিত করেছেন।

রোজিনা ইসলামের মামলা প্রত্যাহারসহ বিভিন্ন দাবি দাওয়ার বিষয় নিয়ে তিনি বলেন, এখানে তো সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় আছে। তথ্য মন্ত্রণালয় আছে, আইন মন্ত্রণালয় আছে, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আছে। বিশেষ করে কিছু কিছু বিষয় আছে প্রধানমন্ত্রীকে অবহিত করার। সমস্যাগুলো তারা বলেছেন, আমি সমাধানের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলব। দাবিগুলো নেত্রীকে জানাব।

এ সময়ে সাংবাদিক নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর সাবেক তথ্য উপদেষ্টা ও ডেইলি অবজারভারের সম্পাদক ইকবাল সোবহান চৌধুরী, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি মনজুরুল আহসান বুলবুল, জাতীয় প্রেস ক্লাবের সভাপতি ফরিদা ইয়াসমীন, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক মহাসচিব ওমর ফারুক, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়েনের সভাপতি কুদ্দুস আফ্রাদ, সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ আলম খান তপু, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক আবদুল মজিদ, ব্রডকাস্ট জার্নালিস্ট সেন্টারের ট্রাস্টি রেজওয়ানুল হক রাজা, সদস্য সচিব শাকিল আহমেদ, ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক মশিউর রহমান খান প্রমুখ।



সাতদিনের সেরা