kalerkantho

সোমবার । ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮। ১৪ জুন ২০২১। ২ জিলকদ ১৪৪২

নোয়াখালীতে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপে সংঘর্ষ

সাংবাদিক মুজাক্কির হত্যা মামলায় এক আসামিকে জামিন দেননি হাইকোর্ট

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৮ মে, ২০২১ ২০:১০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সাংবাদিক মুজাক্কির হত্যা মামলায় এক আসামিকে জামিন দেননি হাইকোর্ট

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার চাপরাশিরহাট বাজারে মধ্যে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষে স্থানীয় সাংবাদিক বোরহান উদ্দিন মুজাক্কির নিহতের ঘটনায় করা মামলায় মো. ইকবাল বাহারকে জামিন দেননি হাইকোর্ট। তার জামিনের আবেদন আদালতের কার্যতালিকা থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে। 

বিচারপতি কৃষ্ণা দেবনাথ ও বিচারপতি এ এস এম আব্দুল মোবিনের হাইকোর্ট বেঞ্চ আজ মঙ্গলবার এ আদেশ দেন। আদালতে জামিন আবেদনকারীর পক্ষে আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট শাহীনুর বেগম।

গত ১৯ ফেব্রুয়ারি আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই আবদুল কাদের মির্জা এবং তার বিরোধীপক্ষ কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বাদল গ্রুপের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়। সেখানে স্থানীয় সাংবাদিক বোরহান উদ্দিন মুজাক্কিরসহ বেশ কয়েকজন গুলিবিদ্ধ হন। ওই ঘটনায় অর্ধশতাধিক ব্যক্তি আহত হন। পরে বোরহান উদ্দিন মুজাক্কিরসহ গুলিবিদ্ধ কয়েকজনকে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় ২০ ফেব্রুয়ারি রাতে মারা যান বোরহান উদ্দিন মুজাক্কির।

এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় নিহতের পিতা মাওলানা নুরুল হুদা মো. নোয়াব আলী মাস্টার বাদী হয়ে ২৩ ফেব্রুয়ারি কোম্পানিগঞ্জ থানায় মামলা করেন। মামলায় সুনির্দিষ্টভাবে কারো নাম উল্লেখ না করে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের আসামি করা হয়। মামলাটিতে এখন পিবিআই তদন্ত করছে। এ মামলায় কাদের মির্জার অনুসারী মো. ইকবাল বাহারকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়। এ অবস্থায় ইকবাল বাহারকে ব্যবসায়ী দাবি করে হাইকোর্টে জামিন আবেদন করা হয়। হাইকোর্ট তাকে জামিন দিতে রাজি হননি। ফলে তার আবেদন কার্যতালিকা থেকে বাদ দেন আদালত। 



সাতদিনের সেরা