kalerkantho

বুধবার । ৯ আষাঢ় ১৪২৮। ২৩ জুন ২০২১। ১১ জিলকদ ১৪৪২

রাজধানীতে পুলিশের সঙ্গে 'গোলাগুলিতে' নিহত ২

অনলাইন ডেস্ক   

১৮ মে, ২০২১ ১৫:১২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রাজধানীতে পুলিশের সঙ্গে 'গোলাগুলিতে' নিহত ২

রাজধানীর খিলক্ষেতে গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে দুই যুবক নিহত হয়েছেন।

নিহতদের নাম এনামুল (৩০) ও রাসেল (২৮)। পুলিশের দাবি, তারা ছিনতাইকারী।

ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (পরিদর্শক) মো. বাচ্চু মিয়া বলেন, আজ মঙ্গলবার (১৮ মে) ভোর ৪টার দিকে খিলক্ষেত থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মোফাখখারুল ইসলাম গুলিবিদ্ধ অবস্থায় দুই যুবককে হাসপাতালে নিয়ে আসেন। এসময় সেখানে  কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদেরকে মৃত ঘোষণা করেন। গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে ওই দুই যুবক নিহত হয়েছেন বলে জানতে পেরেছি। মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে বলে জানান তিনি।

ডিবি গুলশান বিভাগের উপকমিশনার (ডিসি) মশিউর রহমান বলেন, গভীর রাতে গণপরিবহন বন্ধ থাকায় কয়েকটি ডাকাত চক্র রাইড শেয়ারের নামে মানুষের সর্বস্ব ডাকাতি করে নেওয়ার অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছিল। গোয়েন্দা তথ্য, প্রযুক্তিগত উপাত্তের ভিত্তিতে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা গুলশান বিভাগের একাধিক দল কুড়িল-বিশ্বরোড ফ্লাইওভার, খিলক্ষেত, কাওলা, ঢাকা-ময়মনসিংহ রোড ও পূর্বাচলগামী ৩০০ ফুট সড়কে টহল জোরদার করে।

ডিসি মশিউর বলেন, রাত সোয়া ২টার দিকে একটি অটোরিকশাকে চেকপোস্টে থামতে ইশারা দেওয়া সেটি দ্রুত বেগে ৩০০ ফুট ফ্লাইওভারের ওপর দিয়ে পূর্বাচলের দিকে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। ডিবি পুলিশের দলটি ব্রিজের মাঝে থাকা দ্বিতীয় দলকে ওয়ারলেসে সতর্ক করলে তারা মাইক্রোবাস আড়াআড়ি দাঁড় করিয়ে পথরোধ করে এবং প্রথম দলটি পেছন থেকে ধাওয়া করে।

কিছুক্ষণ পরে অটোরিকশা থেকে দুই সন্ত্রাসী নেমে দৌড়ে সামনে যেতে থাকে এবং পুলিশের মাইক্রোবাস লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। এতে ডিবি পুলিশের একটি মাইক্রোবাসের বাম দিকের কাচ ভেঙে যায়। ডিবি পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। একপর্যায়ে গোলাগুলি থেমে গেলে সবুজ রঙের একটি অটোরিকশা (ঢাকা মেট্রো থ: ১১-৭৯৪৫) ফ্লাইওভারের সঙ্গে ধাক্কা খাওয়া অবস্থায় পাওয়া যায়। সেটির চালকের আসন এবং দ্বিতীয় আসন থেকে দুইজনকে আটক করা হয়। কিছু দূরে আরো দুজনকে রক্তাক্ত অবস্থায় ফ্লাইওভারের ওপর পরে থাকতে দেখা যায়।

পরে খিলক্ষেত থানা পুলিশের মাধ্যমে তাদেরকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন বলে দাবি করেন ডিসি মশিউর। 



সাতদিনের সেরা