kalerkantho

মঙ্গলবার । ৮ আষাঢ় ১৪২৮। ২২ জুন ২০২১। ১০ জিলকদ ১৪৪২

ঋণ পাওয়ার যোগ্যদেরই যেন ঋণ দেওয়া হয় : শিল্পমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১১ মে, ২০২১ ১৮:৪৯ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



ঋণ পাওয়ার যোগ্যদেরই যেন ঋণ দেওয়া হয় : শিল্পমন্ত্রী

শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত প্রণোদনা প্যাকেজের আওতায় ঋণ বিতরণ কার্যক্রমে যেন স্বচ্ছতা থাকে। যে এই ঋণ পাওয়ার যোগ্য তাদেরকেই যেন ঋণ দেওয়া হয়। এসএমই ফাউন্ডেশনের অভিজ্ঞ ও দক্ষ কর্মকর্তাদের মাধ্যমে এই ঋণ বিতরণ কার্যক্রম সার্বক্ষণিক তদরকিতে রাখতে হবে। প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত প্রণোদনা প্যাকেজের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী যে উদেশ্যে প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করেছে তার সফলতা দেশের মানুষ আজ দেখতে শুরু করেছে। প্রধানমন্ত্রীর দক্ষ নেতৃত্বে করোনার মহামারির মধ্যেই মানুষের জীবন ও জীবিকার সচল রয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত প্রণোদনা প্যাকেজের আওতায় এসএমই ফাউন্ডেশনের ঋণ বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন এবং ঋণের চেক হস্তান্তর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিল্পমন্ত্রী আজ ভার্চুয়ালি এসব কথা বলেন।

এসএমই ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মো. মাসুদুর রহমানের সভাপতিত্বে এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন মাননীয় শিল্প প্রতিমন্ত্রী জনাব কামাল আহমেদ মজুমদার। এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন এসএমই ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক, ড. মো. মফিজুর রহমান।

অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ মাহবুবুর রহমান, প্রিমিয়ার ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রিয়াজুল করিম। এ ছাড়া এসএমই ফাউন্ডেশনের পরিচালক পর্ষদের সদস্যগণ এবং সংশ্লিষ্ট ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাগণ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন।

শিল্পমন্ত্রী বলেন, এসএমই খাত হলো আমাদের অর্থনীতির লাইফ লাইন। এখাতের ঋণের অর্থ অতি দ্রুততম সময় ও সহজ উপায়ে উদ্যোক্তাদের মধ্যে বিতরণ করতে হবে। যেসব উদ্যোক্তা প্রথম প্যাকেজের আওতায় সুবিধা পাননি, তাদের খুঁজে বের করে ঋণের আওতায় আনতে হবে। এক্ষেত্রে নারী ও প্রান্তিক উদ্যোক্তাদের বিশেষ গুরুত্ব দিতে হবে বলে তিনি জানান।

বিশেষ অতিথি বক্তব্যে শিল্প প্রতিমন্ত্রী বলেন, সারা দেশে যেসব ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত প্রণোদনা প্যাকেজের অর্থ নির্ধারিত সময়ের মধ্যে সেই সব ক্ষতিগ্রস্ত উদ্যোক্তাদের মধ্যে বিতরণ করতে হবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর যোগ্য নেতৃত্বে করোনা মহামারির প্রভাব সফলভাবে মোকাবেলা করে আমরা অদম্য অগ্রযাত্রায় এগিয়ে যাচ্ছি। এক্ষেত্রে মাইক্রো, ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তাদের প্রতিও আমাদের বিশেষভাবে নজর দিতে হবে। বিশেষ প্রনোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান এবং কৃতজ্ঞা প্রকাশ করেন তিনি। শিল্প প্রতিমন্ত্রী করোনার দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলায় সকলকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে নিরাপদ থাকার অনুরোধ জানান।

সভাপতির বক্তব্যে এসএমই ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান বলেন, এসএমই ফাউন্ডেশনের অনুকূলে বরাদ্দকৃত ৩০০ কোটি টাকার মধ্যে চলতি অর্থবছরে ১০০ কোটি টাকা এবং আগামী অর্থবছরে ২০০ কোটি টাকা বিতরণ করা হবে। এই ঋণ বিতরণের লক্ষ্যে সরকার নির্দেশিত সব ধরনের নির্দেশনা অনুসরণ করা হবে। ইতিমধ্যেই ১১টি ব্যাংক ও নন-ব্যাংক আর্থিক ও প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তি সম্পাদনের মাধ্যমে ঋণ বিতরণের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে এসএমই ফাউন্ডেশন। প্রণোদনা প্যাকেজের মোট ঋণের ২৫-৩০% নারী-উদ্যোক্তাদের মাঝে বিতরণের লক্ষ্য ঠিক করা হয়েছে।

স্বাগত বক্তব্যে এসএমই ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক বলেন, করোনা ভাইরাসের কারণে প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্ত এবং পিছিয়ে পড়া উদ্যোক্তাদের ঋণ পাওয়া নিশ্চিত করতে ইতোমধ্যে দেশের প্রায় ৫০টি এসএমই ক্লাস্টার, ৫০ এর অধিক চেম্বার ও অ্যাসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দ এবং নারী-উদ্যোক্তাদের সাথে অনলাইনে মতবিনিময় সভা করেছে এসএমই ফাউন্ডেশন।

অনুষ্ঠানে ব্র্যাক ব্যাংকের পক্ষ থেকে ২ জন, মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের পক্ষ থেকে ২ জন, প্রিমিয়ার ব্যাংকের পক্ষ থেকে ২ জন এবং আইডিএলসি ফাইন্যান্সের পক্ষ থেকে ১ জন উদ্যোক্তার হাতে ঋণের চেক হস্তান্তর করা হয়। তিনজন নারীসহ মোট ৭ জন উদ্যোক্তাদের মাঝে ৯৭.৫০ লক্ষ টাকার চেক বিতরণ কর হয়।



সাতদিনের সেরা