kalerkantho

মঙ্গলবার । ৮ আষাঢ় ১৪২৮। ২২ জুন ২০২১। ১০ জিলকদ ১৪৪২

'প্রতিবাদী মানুষের ওপর গুলি চালিয়ে কেউ গদি রক্ষা করতে পারেনি'

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১১ মে, ২০২১ ১৮:৩৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



'প্রতিবাদী মানুষের ওপর গুলি চালিয়ে কেউ গদি রক্ষা করতে পারেনি'

বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি) নেতারা বলেছেন, ইতিহাস সাক্ষ্য দেয়, প্রতিবাদী মানুষের ওপর গুলি চালিয়ে কোনো শাসক তার গদি রক্ষা করতে পারেনি। আইয়ুব খান পারে নাই, এরশাদ পারে নাই, আপনারাও পারবেন না। মালিকশ্রেণির বশংবদ হয়ে শ্রমিক নিপীড়ন করে ক্ষমতায় টিকে থাকার চেষ্টা ব্যর্থ হবে।

গাজীপুরের টঙ্গীর মিলগেইটে পাওনা ছুটির দাবিতে আন্দোলনরত শ্রমিকদের ওপর গুলি চালানোর প্রতিবাদে আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে তারা এসব কথা বলেন।

আজ মঙ্গলবার বিকেলে রাজধানীর পুরানা পল্টন মোড়ে অনুষ্ঠিত ওই সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন সিপিবির কোষাধ্যক্ষ শ্রমিক নেতা মাহবুব আলম। সমাবেশে বক্তব্য দেন পার্টির সহকারী সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ জহির চন্দন, প্রেসিডিয়াম সদস্য আবদুল্লাহ ক্বাফী রতন, গার্মেন্ট টিইউসির সভাপতি মন্টু ঘোষ, সিপিবির ঢাকা কমিটির সাধারণ সম্পাদক ডা. সাজেদুল হক রুবেল ও গার্মেন্ট শ্রমিক সাদেকুর রহমান শামীম।

সমাবেশে নেতারা বলেন, করোনা অতিমারিকালে সরকার শ্রমিক-কৃষক-ক্ষেতমজুরসহ খেটে খাওয়া মানুষের কথা ভাবেনি। বরং তারা নানা রকম সুযোগ-সুবিধা ও প্রণোদনা দিয়ে ধনীদের আরো ধনী হওয়ার সুযোগ করে দিয়েছে। লকডাউন লকডাউন খেলা খেলে সরকার ঈদে ঢাকাসহ দেশের বড় শহরগুলোতে কাজের জন্য দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে আসা মানুষগুলোকে বিপদে ফেলে দিয়েছে। ব্যক্তিগত গাড়িতে এক জেলা থেকে আরেক জেলায় যাওয়ার অনুমতি থাকলেও গণপরিবহন বন্ধ করে দেওয়ায় বিপদে পড়েছে দরিদ্র শ্রমিকরা।

নেতারা বলেন, এপ্রিল ও মে মাসের ছুটির দিনগুলোতে ‘জেনারেল ডিউটি’ করানো হয়েছে ঈদের সাথে সেই ছুটিগুলো দেওয়া হবে বলে। এখন সেই ছুটি মালিকরা দিচ্ছে না। পাওনা ছুটি চাইতে গিয়ে গুলিবিদ্ধ হয়ে শ্রমিকরা আজ হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। নেতৃবৃন্দ যাদের নির্দেশে টঙ্গীতে শ্রমিকদের ওপর হামলা চালানো হয় তাদের গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবি জানান।

নেতৃবৃন্দ আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে চিকিৎসারত কাঞ্চনসহ আহত সব শ্রমিকের সুচিকিৎসার ব্যয়ভার সরকার ও মালিককে বহন করার দাবি জানান। একই সঙ্গে ঈদের আগে গার্মেন্ট শ্রমিকসহ সব শ্রমিকের ঈদ বোনাস ও বকেয়া মজুরি পরিশোধের আহ্বান জানান।



সাতদিনের সেরা