kalerkantho

শনিবার । ৫ আষাঢ় ১৪২৮। ১৯ জুন ২০২১। ৭ জিলকদ ১৪৪২

সোহরাওয়ার্দী উদ্যান রক্ষায় হাইকোর্টে রিট

তিন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক    

১০ মে, ২০২১ ০২:৪২ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



সোহরাওয়ার্দী উদ্যান রক্ষায় হাইকোর্টে রিট

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে গাছ কাটার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ চলছেই, গতকালের ছবি

ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের মূল নকশার সঙ্গে অসংগতিপূর্ণ স্থাপনা উচ্ছেদ, উদ্যান সংরক্ষণ এবং স্বাধীনতাযুদ্ধের স্মৃতিবিজড়িত এই উদ্যানকে মূল রূপে রাখার নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট হয়েছে। পরিবেশবাদী ছয় সংগঠন ও এক ব্যক্তি গতকাল রবিবার এই রিট আবেদন দায়ের করেছেন। এদিকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান থেকে গাছ কেটে ফুডকোর্ট নির্মাণ করায় একই দিনে সরকারের তিন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আদালত অবমাননার মামলা হয়েছে।

রিট আবেদনে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে স্বাধীনতাস্তম্ভ নির্মাণের (তৃতীয় প্রকল্প) নামে পুরনো ও ঐতিহাসিক গাছ কেটে প্রকল্প নির্মাণ কেন অবৈধ ও অসাংবিধানিক ঘোষণা করা হবে না, মূল নকশার বাইরে বাণিজ্যিক স্থাপনা নির্মাণ কেন বেআইনি ঘোষণা করা হবে না, এরই মধ্যে নির্মিত স্থাপনা অপসারণে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না এবং ঢাকা মহানগরের মাস্টারপ্ল্যান অনুযায়ী উদ্যান সংরক্ষণে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারির আরজি জানানো হয়েছে। একই সঙ্গে বাণিজ্যিক স্থাপনা নির্মাণের জন্য গাছ কাটা বন্ধ রাখার নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে। পাশাপাশি যেসব গাছ কাটা হয়েছে তার পরিবর্তে তিন গুণ গাছ লাগানোর নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে। এসব বিষয়ে গত ৬ মে পাঠানো আইনি নোটিশের পরও কোনো পদক্ষেপ না নেওয়ায় রিট আবেদন করা হয় বলে জানান রিট আবেদনকারী পক্ষ।

রিট আবেদনকারীরা হলো—বাংলাদেশ পরিবেশ আইনবিদ সমিতি (বেলা), অ্যাসোসিয়েশন ফর ল্যান্ড রিফরমস অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (এএলআরডি), নিজেরা করি, বাংলাদেশ লিগ্যাল এইড অ্যান্ড সার্ভিসেস ট্রাস্ট (ব্লাস্ট), বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা), আইন ও সালিশ কেন্দ্র (আসক) এবং স্থপতি মোবাশ্বের হোসেন।

আগামী ১৯ মে বিচারপতি ফারাহ মাহবুবের নেতৃত্বাধীন হাইকোর্ট বেঞ্চে এ আবেদনের ওপর শুনানি হবে বলে জানিয়েছেন বেলার আইনজীবী অ্যাডভোকেট সাঈদ আহমেদ কবির।

রিট আবেদনে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র; গৃহায়ণ ও গণপূর্ত সচিব; পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয় সচিব; মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব; প্রধান বন সংরক্ষক; রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক) চেয়ারম্যান; পরিবেশ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ও গণপূর্ত অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলীকে বিবাদী করা হয়েছে।

এদিকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে গাছ কেটে ফুডকোর্ট নির্মাণ করায় তিন সরকারি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে হাইকোর্টে গতকাল মামলা করেন অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ। মামলায় মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব তপন কান্তি ঘোষ, গণপূর্তের প্রধান প্রকৌশলী মো. শামিম আখতার ও প্রধান আর্কিটেক্ট অব বাংলাদেশ মীর মনজুর রহমানকে বিবাদী করা হয়েছে।

মামলা করার পর অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ জানান, ‘তিন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। যেকোনো দিন শুনানি করব।’



সাতদিনের সেরা