kalerkantho

শুক্রবার । ১১ আষাঢ় ১৪২৮। ২৫ জুন ২০২১। ১৩ জিলকদ ১৪৪২

স্কুলছাত্রী ও পথশিশু ধর্ষণের বিচার দাবি মহিলা পরিষদের

অনলাইন ডেস্ক   

৩ মে, ২০২১ ১৮:১৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



স্কুলছাত্রী ও পথশিশু ধর্ষণের বিচার দাবি মহিলা পরিষদের

বাগেরহাটের চিতলমারীতে ইউপি সদস্য ননী গোপাল বিশ্বাস কর্তৃক ৬ষ্ঠ শ্রেণির স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ এবং কক্সবাজার সমুদ্রসৈকতের লাবণী পয়েন্টের পাশে জেলা পরিষদের ফুলের বাগানে তিন তরুণ কর্তৃক পথশিশুকে ধর্ষণের ঘটনায় গভীর উদ্বেগ ও ক্ষোভ প্রকাশ করে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ বিবৃতি দিয়েছে।

বিবৃতিতে মহিলা পরিষদ জানায়, বাগেরহাটের চিতলমারীতে ইউপি সদস্য ননী গোপাল বিশ্বাস কর্তৃক ৬ষ্ঠ শ্রেণির স্কুলছাত্রী ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। জানা যায়, উপজেলার চরবানিয়ারী ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ননী গোপাল বিশ্বাস ০২.০৫.২০২১ তারিখ ত্রাণ দেয়ার কথা বলে ওই ওয়ার্ডের এক ভোটারের বাড়িতে গেলে কোনো লোকজন না থাকায় ওই ছাত্রীকে একগ্লাস পানি আনতে বলেন। মেয়েটি পানি নিয়ে কাছে আসলে ইউপি সদস্য ননী গোপাল তাকে ঘরে আটকে হাত-মুখ বেঁধে উপর্যুপরি ধর্ষণ করে পালিয়ে যায়। ঘটনার পর ওই স্কুলছাত্রী লোক লজ্জার ভয়ে ঘরের আড়ায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করতে গেলে তার মা দেখতে পেয়ে রক্ষা করে।

বিবৃতিতে বলা হয়, গত ৩০ এপ্রিল কক্সবাজার সমুদ্রসৈকতের লাবণী পয়েন্টের পাশে বাগানের ভেতরে তিন তরুণ কর্তৃক পথশিশুকে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। পরে সৈকতের সি-গাল, সুগন্ধা পয়েন্ট ও লাইট হাউস এলাকায় অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত পেকুয়া উপজেলার গোয়াখালী এলাকার মো. আরিফ, উখিয়ার রোহিঙ্গা শিবিরের মো. রাশেদ ও মোহাম্মদ জুয়েল ছিনতাইকারী তরুণকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। অভিযুক্ত গ্রেপ্তার তিনজনকে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়। ঘটনার শিকার শিশুটিকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ শিশুদের ধর্ষণের এ বর্বর ঘটনায় গভীর উদ্বেগ, তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করে জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতার, তাদের বিরুদ্ধে যথাযথ আইনী ব্যবস্থাগ্রহণসহ দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছে। পাশাপাশি নির্যাতনের শিকার শিশুদের সুচিকিৎসাসহ তাদের ও তাদের পরিবারের সদস্যদের নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণের দাবি করছে সংগঠনটি।

এ ধরনের নৃশংস, বর্বর ঘটনার পুনরাবৃত্তিরোধে আশু কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়সহ সংশ্লিষ্ট প্রশাসন ও মন্ত্রণালয়ের নিকট জোর দাবি জানায় সংগঠনটি। সেইসাথে এই ধরণের অমানবিক ঘটনাসহ নারীর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধে সকল সামাজিক শক্তিকে ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহ্বান জানাচ্ছে মহিলা পরিষদ।



সাতদিনের সেরা