kalerkantho

শনিবার । ২৫ বৈশাখ ১৪২৮। ৮ মে ২০২১। ২৫ রমজান ১৪৪২

করোনার মধ্যেও পাঁচ কার্যদিবসে সাড়ে ১০ হাজার জামিন

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৯ এপ্রিল, ২০২১ ২০:৪১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



করোনার মধ্যেও পাঁচ কার্যদিবসে সাড়ে ১০ হাজার জামিন

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ার পেক্ষাপটে সারা দেশে আদালতের স্বাভাবিক বিচারকাজ বন্ধ থাকলেও শুধুমাত্র ভার্চুয়ালি জামিন আবেদন শুনানি শেষে গত ৫ কার্যদিবসে ১০ হাজার ৬৮১ জনকে জামিনে কারামুক্তি দেওয়া হয়েছে। ১৭ হাজার ৯৮০টি জামিন আবেদন নিষ্পত্তি শেষে এদের জামিন দেওয়া হয়। এরপর তারা কারাগার থেকে মুক্তি পান।
সুপ্রিম কোর্ট সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। এর মধ্যে সোমবার জামিনে মুক্তি পেয়েছেন ১৬৩৫ জন। এদিন ৩১৩৮টি জামিন আবেদন নিষ্পত্তি করে এই জামিন মঞ্জুর করা হয়।

সুপ্রিম কোর্টের বিশেষ কর্মকর্তা মোহাম্মদ সাইফুর রহমানের দেওয়া এক তথ্য বিবরণীতে বলা হয়েছে, আজ ১৯ এপ্রিল ২০২১ খ্রি তারিখ সারা দেশে অধস্তন আদালতে ভার্চুয়াল শুনানিতে ৩১৩৮টি জামিন-দরখাস্ত নিষ্পত্তি হয় এবং ১৬৩৫ জন হাজতি অভিযুক্ত ব্যক্তি জামিনপ্রাপ্ত হয়ে কারাগার থেকে মুক্ত হয়েছেন। ভার্চুয়াল আদালত শুরু হওয়ার পাঁচ কার্যদিবসে সারা দেশে অধঃস্তন আদালত এবং ট্রাইব্যুনালে ভার্চুয়াল শুনানির মাধ্যমে জামিনপ্রাপ্ত হয়ে মোট ১০৬৮১ জন হাজতি অভিযুক্ত ব্যক্তি কারাগার থেকে মুক্ত হয়েছেন।’

করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ার প্রেক্ষাপটে গত ৫ এপ্রিল থেকে সারা দেশে নিম্ন আদালতে স্বাভাবিক বিচারকাজ বন্ধ ঘোষণা করে সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন। এরই ধারাবাহিকতায় ১২ এপ্রিল পৃথক এক আদেশে

এখন থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত আসামিদের কারাগারে রেখেই ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ভার্চুয়ালি জামিন ও রিমান্ড শুনানি করতে দেশের সকল অধস্তন আদালত ও ট্রাইব্যুনালের বিচারকদের প্রতি নির্দেশ দেওয়া হয়। এবিষয়ে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নির্দেশে সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগের রেজিস্ট্রার মো. গোলাম রব্বানীর স্বাক্ষরে বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়। এ নির্দেশের পরপরই সেদিন (১২ এপ্রিল) থেকে ভার্চুয়ালি রিমান্ড ও জামিন শুনানি শুরু হয়েছে।



সাতদিনের সেরা