kalerkantho

মঙ্গলবার । ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮। ১৮ মে ২০২১। ৫ শাওয়াল ১৪৪

মুজিবনগর সরকারের সুবর্ণজয়ন্তীর আলোচনায় সাইফুল হক

অধিকার ও মুক্তি অর্জনে আরেকটি মুক্তিযুদ্ধের প্রস্তুতি নেওয়ার আহ্বান

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৭ এপ্রিল, ২০২১ ১৬:৪০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অধিকার ও মুক্তি অর্জনে আরেকটি মুক্তিযুদ্ধের প্রস্তুতি নেওয়ার আহ্বান

ফাইল ফটো

অধিকার ও মুক্তি অর্জনে আরেকটি মুক্তিযুদ্ধের প্রস্তুতি নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক। তিনি বলেছেন ভিতর-বাইরের নানা প্রতিকুলতা মোকাবেলা করে তাজউদ্দীন আহমদের নেতৃত্বাধীন প্রবাসী মুজিবনগর সরকার দেশের স্বাধীনতা সংগ্রামে নেতৃত্ব দিয়ে বিজয় চিনিয়ে এনেছে। কিন্তু সংকীর্ণ দৃষ্টিভঙ্গি ও হীনমন্যতার কারণে স্বাধীনতার পঞ্চাশ বছর পরও যুদ্ধকালীন সরকার প্রয়োজনীয় স্বীকৃতি ও মর্যাদা পায়নি।  

আজ শনিবার স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপন পরিষদের উদ্যোগে প্রবাসী বাংলাদেশ সরকারের পঞ্চাশ বছর উপলে আয়োজিত আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ সব কথা বলেন। ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় আরো অংশ নেন আবদুর নূর, সৈয়দ হারুন-অর-রশিদ, ইফতেখার আহমেদ বাবু, বহ্নিশিখা জামালী, আকবর খান, মাহমুদ হোসেন, রাজু আহমেদ খান, নির্মল বড়ুয়া মিলন, শেখ মো. শিমুল, শ্রমিক নেতা অরবিন্দু বেপারী বিন্দু, ইমরান হোসেন প্রমুখ।

সভায় নেতৃবৃন্দ বলেন, সাম্য, মানবিক মর্যাদা ও সামাজিক ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার ল্য নিয়ে ১৯৭১ সালের ১৭ এপ্রিল বাংলাদেশের ভূখণ্ডে শপথ নেওয়া যুদ্ধকালীন সরকার গঠনের মধ্য দিয়ে একদিকে স্বাধীনতা সংগ্রামের ঐতিহাসিক রাজনৈতিক ন্যায্যতা প্রতিষ্ঠিত হয়, অন্যদিকে মুক্তিকামী দেশবাসীর কাছে সুস্পষ্ট নির্দেশনাসহ তাদের মনে বিপুল উদ্দীপনা ও সাহস সঞ্চার করে। অথচ অরাজনৈতিক চিন্তা-ভাবনার কারণে প্রবাসী সরকারের গৌরবজনক ভূমিকাকে ছোট করে রাখা হয়েছে।

নেতৃবৃন্দ বলেন, বর্তমান সরকার ও মুক্তিযুদ্ধের আদর্শ ও চেতনাকে বিসর্জন দিয়ে দেশকে মারাত্মক অনিশ্চয়তার পথে ঠেলে দিয়েছে। তাই অধিকার ও মুক্তি অর্জনে আরেকটি মুক্তিযুদ্ধের প্রস্তুতি নিতে হবে। দেশ ও গণতান্ত্রিক ভবিষ্যত রায় বিদ্যমান সর্বগ্রাসী দুঃশাসনের বিরুদ্ধে ব্যাপক গণঐক্য-গণজাগরণ গড়ে তোলার আহ্বান জানান তারা।
সভায় চিত্রনায়িকা কবরীর মৃত্যুতে গভীর শোক ও সমবেদনা প্রকাশ করা হয়।



সাতদিনের সেরা