kalerkantho

রবিবার । ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮। ১৩ জুন ২০২১। ১ জিলকদ ১৪৪২

‘লকডাউনে’ বাসায় বসেই কাজ করার পরামর্শ কূটনীতিকদের

মেহেদী হাসান   

১৪ এপ্রিল, ২০২১ ০০:৫৬ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



‘লকডাউনে’ বাসায় বসেই কাজ করার পরামর্শ কূটনীতিকদের

দেশে নভেল করোনাভাইরাস মহামারি পরিস্থিতি অবনতির কথা ঢাকায় সব কূটনৈতিক ও কনস্যুলার মিশন এবং জাতিসংঘ ও আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রতিনিধিদের কার্যালয়কে জানিয়েছে সরকার। গতকাল মঙ্গলবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো এক ‘নোট ভারবালে’ এ বিষয়টি জানানো হয়। সেখানে কভিড পরিস্থিতি অবনতির প্রেক্ষিতে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের নির্দেশনা অনুযায়ী জনসাধারণ ও যানবাহন চলাচলের কঠোর বিধিনিষেধ আরোপের তথ্যও তুলে ধরা হয়েছে। উদ্ভুত পরিস্থিতিতে বিধি নিষেধের দিনগুলোতে বাংলাদেশে বিদেশি মিশনগুলোর সদস্যদের তাদের বাসায় অবস্থান করেই কাজ করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। ঢাকায় বেশ ক’জন কূটনীতিক গতকাল মঙ্গলবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে এ সংক্রান্ত বার্তা পাওয়ার কথা কালের কণ্ঠকে নিশ্চিত করেছেন। গত সপ্তাহে সরকার কভিড মোকাবিলায় বিধি নিষেধ আরোপের আগে থেকেই অধিকাংশ পশ্চিমা দূতাবাস কভিড মোকাবিলায় সতর্কতা অবলম্বন করছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক কূটনীতিক কালের কণ্ঠকে বলেন, বাংলাদেশ সরকারের নেওয়া উদ্যোগের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে তারা তাদের কনস্যুলার সেবা দেওয়ার পরিকল্পনায় পরিবর্তন এনেছেন। যেমন যদি জনসাধারণ ও যান চলাচল বন্ধ থাকে তাহলে ভিসা আবেদনের সাক্ষাৎকার দিতে আসতে পারবে না। সে ক্ষেত্রে তাদের সাক্ষাৎকারের তারিখ বা বিধিনিষেধের দিনগুলোতে সাক্ষাত্কার নেওয়ার সূচি স্থগিত করতে হবে। আবার বিধি নিষেধের সময় এ দেশের অবস্থানরত বিদেশি কারো তার দূতাবাসের জরুরি সেবা প্রয়োজন হলে তা দেওয়ার জন্য দূতাবাসকে ব্যবস্থা করতে হবে।

কূটনৈতিক সূত্রগুলো জানায়, দূতাবাসগুলোতে পাঠানো বার্তায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় গত ১২ এপ্রিল মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের জারি করা প্রজ্ঞাপনের বিভিন্ন দিক তুলে ধরেছে। ওই প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী আজ বুধবার ভোর ৬টা থেকে ২১ এপ্রিল পর্যন্ত জরুরি সেবা ছাড়া সব ধরনের চলাচল বন্ধ থাকবে। এ সময় সরকারি, আধা সরকারি, বেসরকারি সব প্রতিষ্ঠান থাকবে।

বিদেশি মিশনগুলোকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, নির্দেশনার আলোকে বিধিনিষেধের সময় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা বাসায় থেকেই তাদের দায়িত্ব পালন করবেন। দৈনন্দিন কাজের জন্য সংশ্লিষ্ট মহাপরিচালকদের ফোনে পাওয়া যাবে। পররাষ্ট্র সচিব, রাষ্ট্রাচার প্রধান, করোনা সেলের প্রধান সমন্বয়ককেও মিশনগুলোর জরুরি প্রয়োজনে পাওয়া যাবে। 

নোট ভারবালে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ‘এই সময় (কঠোর বিধিনিষেধের আট দিন) বাংলাদেশে কূটনৈতিক ও কনস্যুলার মিশনের সদস্য, জাতিসংঘ ও আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোর প্রতিনিধিদের বাড়িতে অবস্থান করে কাজ করার পরামর্শ দেওয়া হলো। জরুরি দাপ্তরিক কাজ, ওষুধ ও জরুরি খাদ্যসামগ্রী কেনার পাশাপাশি বৈধ টিকা কার্ড নিয়ে টিকা নেওয়ার জন্য কূটনৈতিক নম্বরপ্লেটযুক্ত গাড়ি ব্যবহারের সুযোগ দেওয়া হবে।’



সাতদিনের সেরা