kalerkantho

বুধবার । ২৯ বৈশাখ ১৪২৮। ১২ মে ২০২১। ২৯ রমজান ১৪৪২

করোনা ভ্যাকসিন: আইনজীবীদের অন্তর্ভুক্ত করা নিয়ে হাইকোর্টের রুল

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৩ এপ্রিল, ২০২১ ১৯:৪৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



করোনা ভ্যাকসিন: আইনজীবীদের অন্তর্ভুক্ত করা নিয়ে হাইকোর্টের রুল

করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন পাওয়ার অগ্রাধিকার তালিকায় আইনজীবীদের অন্তর্ভুক্ত না করা কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। স্বাস্থ্য সচিব ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালকসহ (ডিজি) সংশ্লিষ্টদের চার সপ্তাহের মধ্যে এ রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। 

বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ মঙ্গলবার এ আদেশ দিয়েছেন। সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মো. আবু তালেবের করা এক রিট আবেদনে এ আদেশ দেওয়া হয়। রিট আবেদনকারীপক্ষে অ্যাডভোকেট মো. ইমাম হাসান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. সারওয়ার হোসেন বাপ্পী।

এদিকে, হাইকোর্ট করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সকলকে সচেতন হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। আদালত বলেছেন, এখানে সতর্কতাই মুখ্য বিষয়। টিকাই শেষ কথা নয়। আদালত বলেন, করোনা ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ যারা নিয়েছেন তাদের কেউ কেউ করোনায় আক্রান্ত হয়েছে বলে খবরে দেখেছি। বিশেষজ্ঞরাতো বলছেন, দ্বিতীয় ডোজ দিলেও যে করোনা হবে না তা নয়। আদালত ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, আমরা এ-ও দেখেছি যে আইনজীবীরাসহ অনেকেই পিকনিক করছেন। অথচ এক্ষেত্রে সকলের সচেতন হওয়া দরকার। 

করোনার ভ্যাকসিন প্রদানের অগ্রাধিকার তালিয়ায় ১৯ ধরনের ব্যক্তিদের নাম অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। এই তালিকায় বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের তালিকাভুক্ত আইনজীবীদের অন্তর্ভুক্তি চেয়ে গত ১১ এপ্রিল রিট আবেদন করেন ওই আইনজীবী। এরও আগে গত ৩১ মার্চ সরকারের সংশ্লিষ্টদের আইনি নোটিশ দেন। নোটিশের জবাব না পেয়ে রিট আবেদন করা হয় বলে জানান অ্যাডভোকেট মো. আবু তালেব। 

অ্যাডভোকট আবু তালেব বলেন, কভিড-১৯ এর টিকা দেওয়ার জন্য তালিকাভুক্ত করতে ৪০ বছর বয়স নির্ধারণ করা হয়েছে। আমি নিবন্ধনের জন্য আবেদন করতে পারলেও আমার নিজের বয়স ৯ মাস কম হওয়ায় অগ্রাধিকার পাচ্ছি না। তিনি বলেন, দেশেল মানুষের পক্ষে ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার জন্য আইনজীবীরা কাজ করেন। তাদের প্রতিনিয়ত বাড়ির বাইরে অর্থাৎ আদালতে যেতে হয়। ফলে তাদের সংক্রমণের ঝুঁকি বেশি থাকে।

এর আগে আইনজীবী ও তাদের পরিবারের সদস্যদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে করোনা ভ্যাকসিনের আওতায় আনতে গত বছর ৩ ডিসেম্বর স্বাস্থ্য সচিবের প্রতি অনুরোধ জানিয়ে চিঠি দিয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি। 



সাতদিনের সেরা