kalerkantho

বুধবার । ২৯ বৈশাখ ১৪২৮। ১২ মে ২০২১। ২৯ রমজান ১৪৪২

মহিলা পরিষদ শোক

সংগীতচর্চার ক্ষেত্রকে সমৃদ্ধ করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন মিতা হক

অনলাইন ডেস্ক   

১১ এপ্রিল, ২০২১ ১৭:১২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সংগীতচর্চার ক্ষেত্রকে সমৃদ্ধ করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন মিতা হক

একুশে পদকপ্রাপ্ত বিশিষ্ট রবীন্দ্রসংগীত শিল্পী মিতা হকের মৃত্যুতে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ শোক প্রকাশ করেছে। বিশিষ্ট রবীন্দ্র সংগীতশিল্পী মিতা হক আজ ১১ এপ্রিল ২০২১ (রোববার) সকাল ৬টা নাগাদ রাজধানীর বাংলাদেশ স্পেশালাইজড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৫৯ বছর।

এক শোকবার্তায় বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ শোক প্রকাশ করে বলেছে, গুণী এই সঙ্গীতশিল্পী ছায়ানটের সাথে যুক্ত  ছিলেন। তিনি রবীন্দ্রসংগীত সম্মেলন পরিষদের সহ-সভাপতি ছিলেন। পাশাপাশি সাংস্কৃতিক আন্দোলনের অন্যতম  একজন সংগঠক  ছিলেন তিনি।

সুরতীর্থ নামে একটি গানের স্কুল ও পরিচালনা করেছেন তিনি।  দেশজুড়ে অসংখ্য সঙ্গীত শিল্পী তৈরির মাধ্যমে দেশে  সংগীত চর্চার ক্ষেত্রকে সমৃদ্ধ করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। পাশাপাশি তিনি ১৯৭৭ সাল থেকে নিয়মিত বাংলাদেশ টেলিভিশন ও বেতারে সঙ্গীত পরিবেশনা করতেন।

এ পর্যন্ত সব মিলিয়ে প্রায় ২০০টি রবীন্দ্রসংগীতে কণ্ঠ দিয়েছেন মিতা হক। তাঁর এককভাবে মুক্তি পাওয়া মোট  অ্যালবাম আছে ২৪টি।

সংগীতে অবদানের জন্য তিনি ২০১৬ সালে শিল্পকলা পদক  পান এবং ২০২০ সালে একুশে পদক লাভ করেন।
তিনি ছিলেন বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের একান্ত সুহৃদ। সংগঠনের বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে তিনি প্রায়শই সংগীত পরিবেশন করতেন।

গুণী এই সঙ্গীত শিল্পীর মৃত্যুতে বাংলাদেশের  সঙ্গীতাঙ্গনে এক অপূরণীয় শূন্যতার সৃষ্টি হলো। রবীন্দ্র সংগীতকে সমৃদ্ধ করতে তাঁর অবদানের জন্য তিনি সকলের কাছে চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবেন।

শোকবার্তায় বলা হয়, বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ  তাঁর বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করছে এবং তাঁর শোকসন্তপ্ত পরিবারের সকল সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা ও সহমর্মিতা জ্ঞাপন করছে।



সাতদিনের সেরা