kalerkantho

বুধবার । ২ আষাঢ় ১৪২৮। ১৬ জুন ২০২১। ৪ জিলকদ ১৪৪২

ছাত্র ইউনিয়ন সভাপতিকে মারধর

জলি-মঈনের সদস্যপদ স্থগিত; তদন্ত কমিটি গঠন

অনলাইন ডেস্ক   

৯ এপ্রিল, ২০২১ ১৭:৪৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জলি-মঈনের সদস্যপদ স্থগিত; তদন্ত কমিটি গঠন

ছাত্র ইউনিয়ন সভাপতি ফয়েজ উল্লাহকে গত ৪ এপ্রিল মারধর করে সিপিবির কিছু নেতাকর্মী। ছবি : ফেসবুক

দলীয় কোন্দলের কারণে গত ৪ এপ্রিল কমিউনিস্ট পার্টির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি মো. ফয়েজ উল্লাহকে মারধর করেছিলেন সিপিবির নেতা জলি তালুকদার, হজরত আলীসহ কয়েকজন। বিষয়টি নিয়ে সোশ্যাল সাইটে প্রতিবাদের ঝড় ওঠে। ছাত্রনেতাদের গায়ে হাত তোলা সাবেক নেতা-কর্মীরা মেনে নিতে পারেননি। ঘটনার ৫ দিন পর গঠন করা হয়েছে তদন্ত কমিটি। যদিও এতদিন সিপিবি নেতারা ঘটনাটি নিয়ে মুখে কুলুপ এঁটে ছিলেন।

জানা গেছে, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)’র প্রেসিডিয়াম সভায় গঠিত এই তদন্ত কমিটিকে ১০ দিনের মধ্যে রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে। ছাত্র ইউনিয়ন নেতা ফয়েজউল্লাহর ওপর হামলার ঘটনার যথার্থ তদন্তের সুবিধার্থে কমরেড জলি তালুকদারের সদস্যপদ সাময়িকভাবে স্থগিত থাকবে বলে সভায় সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এছাড়া ছাত্র ইউনিয়নের আরেক কর্মীকে মারধরের ঘটনায় সিপিবি শান্তিনগর শাখার সম্পাদক মঞ্জুর মঈনের সদস্যপদও ২ মাসের জন্য স্থগিত করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, ঐতিহ্যবাহী সংগঠন ছাত্র ইউনিয়ন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির অফিসিয়াল কোনো অঙ্গ সংগঠন না হলেও পার্টির নির্দেশনা অনুযায়ীই নিজেদের কর্মকাণ্ড পরিচালনা করে থাকে। সংগঠনটির বর্তমান কেন্দ্রীয় কমিটি নিয়ে দুই পক্ষে বিবাদ চলছে। যাতে উস্কানি দিচ্ছেন সিপিবির কিছু নেতা। সিপিবির প্রেসিডিয়াম সভায় নেতাকর্মীদের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারের ক্ষেত্রে দলীয় নির্দেশনা কঠোরভাবে অনুসরণ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। নির্দেশনা অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের ঘোষণাও দেওয়া হয়।



সাতদিনের সেরা