kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১০ আষাঢ় ১৪২৮। ২৪ জুন ২০২১। ১২ জিলকদ ১৪৪২

গ্যাস সরবরাহ কম আজও, ভোগান্তির দ্বিতীয় দিনে রাজধানীবাসী

অনলাইন ডেস্ক   

২৫ মার্চ, ২০২১ ১০:২৬ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



গ্যাস সরবরাহ কম আজও, ভোগান্তির দ্বিতীয় দিনে রাজধানীবাসী

ফাইল ছবি।

ঢাকার আমিনবাজারে গ্যাসের পাইপলাইনের ছিদ্র দুই দিনেও মেরামত করতে পারেনি তিতাস। ফলে রাজধানী ঢাকা ও এর আশপাশের এলাকায় আজ বৃহস্পতিবার (২৫ মার্চ) দুপুর ১২টা পর্যন্ত গ্যাস সরবরাহ কম থাকবে বলে জানিয়েছে তিতাস গ্যাস কম্পানি।

তিতাসের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, তিতাস অধিভুক্ত এলাকায় সামগ্রিক নেটওয়ার্কে গ্যাসের সরবরাহ কম। এ জন্য ঢাকা শহরসহ সব এলাকায় প্রয়োজনীয় পরিমাণে ও চাপে গ্যাস সরবরাহ করতে পারছে না তারা। এ অবস্থায় আজ বৃহস্পতিবার (২৫ মার্চ) দুপুর ১২টা পর্যন্ত ঢাকা শহরসহ সব এলাকায় গ্যাসের স্বল্প চাপ বিরাজ করবে।

মেরামতকাজ শুরু করলে গত মঙ্গলবার (২৩ মার্চ) সারা দিনের পর রাত থেকে অল্প অল্প করে গ্যাস আসতে শুরু করে। গতকাল বুধবার সকাল থেকে আবারও রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় গ্যাসসংকট সৃষ্টি হয়।

তিতাস কর্তৃপক্ষ জানায়, তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাস (এলএনজি) সরবরাহ ব্যাহত হওয়ায় পুরো রাজধানীতে গ্যাস সরবরাহ কমে গেছে। এ ছাড়া আমিনবাজার এলাকায় তিতাস গ্যাস বিতরণ কম্পানির পাইপলাইনে লিকেজ মেরামতে দেরি হওয়ায় কিছু এলাকায় গ্যাস সরবরাহ ব্যাহত হচ্ছে। আজ বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টা পর্যন্ত গ্যাস সরবরাহ কম থাকতে পারে বলে জানিয়েছে তিতাস।

গত সোমবার রাতে আমিনবাজারে রাস্তা মেরামত করতে গিয়ে তিতাসের সিটি গেটের গ্যাসের পাইপলাইন ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় মঙ্গলবার সকালে গ্যাস সরবরাহ বন্ধ করে দেওয়া হয়। এতে রাজধানীর মোহাম্মদপুর, ধানমণ্ডি, হাজারীবাগ, মিরপুর, শ্যামলী, গ্রিন রোডসহ বেশ কিছু এলাকায় এদিন সকাল থেকেই গ্যাস সরবরাহ ব্যাহত হয়েছে। গতকালও অনেক এলাকায় গ্যাস সরবরাহ স্বাভাবিক হয়নি। রাজধানীর বড় একটি অংশে এখনো গ্যাস নেই। যেটুকু গ্যাস আসছে, তা দিয়ে রান্না করা যাচ্ছে না।

গতকাল বুধবার (২৪ মার্চ) দুপুরে সব গ্রাহকের কাছে দুঃখ প্রকাশ করে তিতাস এক বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, 'তিতাসের আওতাধীন এলাকায় সামগ্রিক নেটওয়ার্কে গ্যাস সরবরাহ কম থাকায় ঢাকা শহরসহ সব এলাকায় প্রয়োজনীয় পরিমাণে ও চাপে গ্যাস সরবরাহ করা যাচ্ছে না। আজ বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টা পর্যন্ত গ্যাসের চাপ কম থাকবে।'

তিতাসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আলী ইকবাল মো. নুরুল্লাহ বলেন, 'আমরা মেরামতকাজ মোটামুটি শেষ করে গ্যাস সরবরাহ শুরু করেছিলাম। এর মধ্যে আবার এলএনজি সংকটে কমে গেছে সরবরাহ। সরবরাহ না বাড়লে আমাদের করার কিছু নেই। গরমের কারণে বেড়ে গেছে চাহিদাও।'

এলএনজি সেলের এক কর্মকর্তা জানান, 'আমাদের সরবরাহ কিছুটা কমেছে। এখন গড়ে ৬০০ মিলিয়ন ঘনফুটের মতো সরবরাহ করতে পারছি। আগামী পরশু থেকে ৭৫০ মিলিয়ন ঘনফুটের মতো সরবরাহ করতে পারব বলে আশা করছি।' 



সাতদিনের সেরা