kalerkantho

শুক্রবার । ১১ আষাঢ় ১৪২৮। ২৫ জুন ২০২১। ১৩ জিলকদ ১৪৪২

দক্ষিণ সিটির সতর্কতা, সিদ্ধান্ত নেয়নি উত্তর

♦ রাত ৮টার মধ্যে ডিএসসিসির সব ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের আহ্বান
♦ সময়টা বিকেলে না কমিয়ে সকালে করার অনুরোধ ব্যবসায়ী সমিতির

শম্পা বিশ্বাস   

২৫ মার্চ, ২০২১ ০৩:২৬ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



দক্ষিণ সিটির সতর্কতা, সিদ্ধান্ত নেয়নি উত্তর

দেশে ফের বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। এই সংক্রমণের শীর্ষে রয়েছে রাজধানী। এখনই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা না নিলে ঢাকা শহরে করোনা নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যেতে পারে। এই উদ্বেগ থেকে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) সব ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান ও দোকানপাট রাত ৮টার মধ্যে বন্ধের আহ্বান জানিয়েছেন ডিএসসিসি মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস। তবে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) এখনো এ ব্যাপারে কোনো সিদ্ধান্ত নেয়নি। সরকারের সঙ্গে আলোচনা করে পরে তারা সিদ্ধান্ত নেবে। আর ব্যবসায়ী সমিতি বলছে, সময় সংক্ষিপ্ত না করে বরং স্বাস্থ্য সচেতনতা বাড়ানো প্রয়োজন।

করোনা সংক্রমণ বিবেচনায় রাত ৮টার মধ্যে ঢাকা দক্ষিণ সিটির সব ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান ও দোকানপাট বন্ধের আহ্বান জানিয়ে ডিএসসিসি মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস বলেন, ‘আমি ঢাকাবাসীকে দুটো নিবেদন করব। এখন যেহেতু আবার করোনার সংক্রমণ বাড়ছে, সুতরাং রাত ৮টার মধ্যে অবশ্যই সব দোকানপাট, ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেবেন। আমরা গণবিজ্ঞপ্তি দিয়েছি। রাত ৮টার মধ্যে সব বন্ধ হলে সংক্রমণও কমে আসবে।’

গতকাল বুধবার দুপুরে নগরীর গোপীবাগে বাংলাদেশ বয়েজ ক্লাব মাঠ পরিদর্শনের সময় এ আহ্বান জানান তিনি। 

এদিকে এ বিষয়ে ঢাকা উত্তর সিটির পক্ষ থেকে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি বলে জানিয়েছেন ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সেলিম রেজা। কালের কণ্ঠকে তিনি বলেন, ‘আমরা এখনো কোনো নির্দেশনা দিইনি। জাতীয় পর্যায়ে আলোচনা করে তারপর সিদ্ধান্ত জানাব। আলোচনা চলছে, মেয়র মহোদয় কথা বলছেন, বিভিন্ন জায়গায় খোঁজখবর নিচ্ছেন। এখন বাস্তবতা হলো, যেকোনো সময় যেকোনো সিদ্ধান্ত আসতে পারে। তবে আমাদের উত্তর সিটির পক্ষ থেকে এখনো কোনো ঘোষণা নেই।’

দোকানপাট বন্ধে দক্ষিণের মেয়রের নির্দেশনা কিভাবে বাস্তবায়ন করা হবে জানতে চাইলে ডিএসসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এ বি এম আমিন উল্লাহ নুরী কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আমরা আগেই পত্রিকায় গণবিজ্ঞপ্তি দিয়েছি। সবাইকে অনুরোধ করেছি, মাইকিং করেছি দ্রুত দোকান বন্ধ করতে। আমাদের আঞ্চলিক পর্যায়ের কর্মকর্তা এবং ওয়ার্ড কাউন্সিলররা এ বিষয়ে প্রচার কাজ করবে। তারা দোকানে দোকানে গিয়ে বোঝাবে। ব্যবসায়ী সমিতির সঙ্গেও বৈঠক করা হবে। তাদের বোঝাব যেন সবাই রাতে তাড়াতাড়ি দোকান বন্ধ করেন।’

ঢাকা নিউ মার্কেট ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি ডা. দেওয়ান আমিনুল ইসলাম শাহীন কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আমরা কিন্তু ১০-১৫ দিন আগেই ঘোষণা করেছি নিউ মার্কেটে আজ থেকে (বুধবার) ৮টার মধ্যে দোকানপাট বন্ধ করতে। দোকানিরা সেটা শুরুও করেছে। তবে এখন রুটি রুজির সমস্যা এবং স্বাস্থ্যঝুঁকি দুটোই বেড়ে গেছে। সামনে ঈদ। এর জন্য আমাদের সময়টা বিকেলের দিকে না কমিয়ে সকালের দিকে সংক্ষিপ্ত করলে সুবিধা হয়। কারণ বেশির ভাগ মানুষ বিকেলে আসেন কেনাকাটা করতে। যদি সকাল ১০টার জায়গায় ১২টায় মার্কেট খোলা হয় তাতে সমস্যা হবে না। আর রাতের সময়টা যদি ১০টা পর্যন্ত রাখা হয়, তাহলে সবার জন্য ভালো। 



সাতদিনের সেরা