kalerkantho

সোমবার । ৬ বৈশাখ ১৪২৮। ১৯ এপ্রিল ২০২১। ৬ রমজান ১৪৪২

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীতে রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির আলোচনাসভা

‘বাঙালি জাতির মুক্তির চিন্তা ছিল সর্বদাই বঙ্গবন্ধুর মনে’

অনলাইন ডেস্ক   

১৯ মার্চ, ২০২১ ১৮:০১ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



‘বাঙালি জাতির মুক্তির চিন্তা ছিল সর্বদাই বঙ্গবন্ধুর মনে’

বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির উদ্যোগে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষ্যে এক আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি জানায়, যথাযোগ্য মর্যাদায় দিবসটি উদযাপনে ৩ দিনের নানা কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়। আজ ২য় দিনের কর্মসূচির অংশ হিসেবে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। আগামী ২১ মার্চ রবিবার দুপুরে সোসাইটির মসজিদে বিশেষ দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে। এর আগে ১৭ মার্চ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস পালন উপলক্ষ্যে জাতীয় ও রেড ক্রিসেন্ট পতাকা উত্তোলন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধার্ঘ্য নিবেদন, ভবনে ভবনে আলোকসজ্জা, শিশুদের চিত্রাংকন প্রতিযোগীতা, শিশু কিশোরদের আলোচনা সভা ও স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচি পালন করা হয়।

দিবসটি পালন উপলক্ষে ১৮ মার্চ বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টায় সোসাইটির মগবাজারস্থ জাতীয় সদর দপ্তর প্রঙ্গনে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির মহাসচিব ও সরকারের প্রাক্তন সচিব মো: ফিরোজ সালাহ্ উদ্দিন। মূখ্য আলোচক ছিলেন পরিচালক (অপারেশন), ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুতি কর্মসূচি-সিপিপি মো: নূর ইসলাম খান অসি। প্রধান আলোচক ছিলেন বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির ডিআরএম বিভাগের পরিচালক মো: বেলাল হোসেন, ইউনিট অ্যাফায়ার্স ও স্বাস্থ্য বিভাগের বিভাগের দায়িত্বরত পরিচালক ইকরাম এলাহী চৌধুরী এবং সোসাইটির যুব ও স্বেচ্ছাসেবক বিভাগের পরিচালক ইমাম জাফর সিকদার। এছাড়াও সোসাইটির বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাগনও অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন। আলোচনা অনুষ্ঠান শেষে সোসাইটির যুব ও স্বেচ্ছাসেবকদের পরিবেশনায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির মহাসচিব মো: ফিরোজ সালাহ্ উদ্দিন বলেন, বঙ্গবন্ধু সবসময় এই দেশের মানুষের সামাজিক ও অর্থনৈতিক মুক্তির জন্য চিন্তা করেছেন। বাঙালী জাতির মুক্তির চিন্তা ছিলো সর্বদাই বঙ্গবন্ধুর মনে। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু শৈশব থেকেই যেকোন দুর্যোগে বাংলার মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন। বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি ও সরকারের যৌথ কর্মসূচি “দুর্যোগ প্রস্তুতি কর্মসূচি” বঙ্গবন্ধুরই সৃষ্টি।

প্রধান অতিথি বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তৎকালিন রেডক্রস ও বর্তমানে বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটিকে শক্তিশালী করতে যা করেছেন পৃথিবীর আর কোন রাষ্ট্রপ্রধান এই ধরনের সহযোগীতা করেছেন কিনা আমার জানা নেই। তার এই অবদানের কথা বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি চিরকাল কৃতজ্ঞ চিত্বে স্মরণ করবে। বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে সত্যিকার অর্থেই মনে প্রানে লালন করার জন্য কর্মকর্তা-কর্মচারীদের আহবান জানান।

মূখ্য আলোচক সোসাইটির পরিচালক মো: নূর ইসলাম খান অসি বলেন, বাঙালী জাতি মানেই শেখ মুজিব আর শেখ মুজিব মানেই বাঙালী জাতি। তিনি বলেন, স্বাধীনতা ও ভাষা আন্দোলনসহ তৎকালিন সব আন্দোলনের নেতৃত্ব দিয়ে ছিলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

প্রধান আলোচক যুব ও স্বেচ্ছাসেবক বিভাগের পরিচালক ইমাম জাফর সিকদার বলেন, বঙ্গবন্ধু প্রতিটি মহল্লায় কিংবা প্রতিটি গ্রামে জন্মায় না। তিনি একজন ক্ষণজন্মা মানুষ ছিলেন।

সোসাইটির ইউনিট অ্যাফায়ার্স বিভাগের পরিচালক ইকরাম এলাহী চৌধুরী বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তৎকালিন বাংলাদেশ রেড ক্রস সোসাইটি এবং বর্তমান বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটিকে নানাভাবে সহযোগীতা করেছিলেন ।

সোসাইটির ডিআরএম বিভাগের দায়িত্বরত পরিচালক মো; বেলাল হোসেন বলেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতা আন্দোলনসহ সব আন্দোলনের প্রেক্ষাপট তৈরী করেছিলেন বঙ্গবন্ধু। তিনি বলেন, মেহনতি মানুষের জন্য বঙ্গবন্ধু যে ভাষণ দিয়েছিলেন সেটি ছিল অনন্য। সেই ভাষণে আমরা এখনও অনুপ্রাণিত হই। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা